মান্দায় বিত্তবানদের ঘরে হতদরিদ্রদের কার্ড!

আপডেট: এপ্রিল ৭, ২০১৭, ১২:৪৭ পূর্বাহ্ণ

মান্দা প্রতিনিধি


নওগাঁর মান্দায় হতদরিদ্রদের জন্য বরাদ্দকৃত সরকারি সহায়তার কার্ড (ভিজিডি) স্বজনপ্রীতির মাধ্যমে বিত্তবানদের নামে বরাদ্দ দেয়ার অভিযোগ উঠেছে। ওই কার্ডধারীরা ইতোমধ্যে তিন মাসের চাল উত্তোলন করেছেন বলে সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে। বিষয়টি অবহিত করা হলেও এখন পর্যন্ত কোনো ব্যবস্থা নেয় নি সংশ্লিষ্ট দফতর।
স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার কশব ইউনিয়নের এক নম্বর ওয়ার্ডে ভিজিডির তালিকায় বিত্তবান চার ব্যক্তির নাম অন্তর্ভুক্ত করেন ইউপি সদস্য নজরুল ইসলাম। এরা হলেন, বনকুড়া গ্রামের সেলিম আল রেজার স্ত্রী সুলতানা বিবি, আবেদ আলীর স্ত্রী রেশমি তারা ও সাদেকুল ইসলামের স্ত্রী সুলতানা খাতুন এবং চক সিদ্ধেশ্বরী গ্রামের আবদুল কুদ্দুসের স্ত্রী আলতাফুন নেছা। এদের মধ্যে সেলিম আল রেজা ইউপি সদস্য নজরুল ইসলামের নিকটাত্মীয় এবং তাদের দুইতলা বাড়ি রয়েছে।
অভিযোগ উঠেছে, ভিজিডি কার্ডের নীতিমালা লঙ্ঘন করে ইউপি সদস্য নজরুল ইসলাম ব্যক্তিস্বার্থে তাদের নাম তালিকাভুক্ত করেছেন। টাকার বিনিময়ে বিত্তবান এসব ব্যক্তিদের নাম তালিকাভুক্ত করা হয়েছে বলে স্থানীয়দের অভিযোগ। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক স্থানীয় একাধিক ব্যক্তি জানান, ভোটের সময় এসব ব্যক্তি ইউপি সদস্যপক্ষের কর্মী-সমর্থক ছিলেন। এলাকায় অনেক হতদরিদ্র নারী থাকলেও রহস্যজনক কারণে তাদের নাম তালিকাভুক্ত করা হয় নি।
এ বিষয়ে ইউপি সদস্য নজরুল ইসলাম সাংবাদিকদের সঙ্গে মোবাইলফোনে কথা বলতে রাজি হন নি। তিনি বলেন, সাক্ষাতে কথা হবে।
ভিজিডি কার্ডের তালিকা তৈরিতে কিছু অনিয়মের কথা স্বীকার করেছেন স্থানীয় কশব ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আনিছুর রহমান। তিনি বলেন, নীতিমালা মেনে ইউনিয়নের প্রত্যেক সদস্যদের তালিকা তৈরির নির্দেশনা দেয়া হয়েছিল। তাদের দেয়া তালিকা উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তার দফতরে পাঠানো হয়েছে। এখানে কোনো অনিয়ম হয়ে থাকলে তার দায়ভার সংশ্লিষ্ট ইউপি সদস্যের।
উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা ফজলুর রহমান জানান, লোকবল সঙ্কটের কারণে উপজেলার ১৪ ইউনিয়নের তালিকা যাচাই-বাছাই ও তদারকি করা সম্ভব হয় না। কশব ইউনিয়নে বিত্তবানদের নাম তালিকাভুক্ত হয়ে থাকলে তদন্ত করে তাদের বাদ দিয়ে নতুন নাম সংযোজন করা হবে। সেই সঙ্গে সংশ্লিষ্ট ইউপি সদস্যের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার কথা জানান তিনি।
এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নুরুজ্জামান জানান, এ ধরনের ঘটনা ঘটে থাকলে তা অত্যন্ত দুঃখজনক। তদন্ত করে জরুরি ভিত্তিতে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ