মান্দায় মন্দির নিয়ে সৃষ্ট বিরোধ || নিরসন ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন

আপডেট: মার্চ ১৩, ২০১৭, ১২:২৪ পূর্বাহ্ণ

মান্দা প্রতিনিধি


নওগাঁর মান্দা উপজেলার পিড়াকৈর-শ্রীরামপুর গ্রামে মন্দিরের নামকরণ নিয়ে সৃষ্ট বিরোধ নিরসন হয়েছে। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. নুরুজ্জামানের উদ্যোগে গতকাল রোববার বেলা ১১টার দিকে দীর্ঘদিনের জটিলতা নিরসন করে মন্দিরের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করা হয়।
ইউএনও নুরুজ্জামান জানান, পিড়াকৈর-শ্রীরামপুর গ্রামের রাধা-গোবিন্দ মন্দিরের নামকরণ নিয়ে স্থানীয় সনাতন ধর্মাবলম্বীদের মাঝে বিরোধ সৃষ্টি হয়। দীর্ঘদিন ধরে সেখানে পূজা-অর্চনা ও হরিবাসরের কার্যক্রম বন্ধ রয়েছে। মন্দিরটি পাকাকরণের সময় বিরোধ চরম আকার ধারণ করে। বিষয়টি নিয়ে কয়েক দফা বৈঠকের পর সমঝোতার মধ্য দিয়ে মন্দিরের নির্মাণ কাজ শুরু করা হয়েছে।
স্থানীয়রা জানান, দীর্ঘ ৮ বছর ধরে পিড়াকৈর-শ্রীরামপুর রাধা-গোবিন্দ নামে ওই মন্দিরে হরিবাসরসহ পূজা-অর্চনা অনুষ্ঠিত হয়ে আসছিল। পাকাকরণের সময় পিড়াকৈর গ্রামের লোকজন মন্দিরটি তাদের গ্রামের নামে নামকরণের পাঁয়তারা করে। এতে ক্ষুব্ধ হয়ে ওঠেন শ্রীরামপুর গ্রামের সনাতন ধর্মাবলম্বীরা। দুই গ্রামবাসীর অনঢ় অবস্থানের কারণে বিরোধ চরম আকার ধারণ করে। এক পর্যায়ে এ নিয়ে সংঘর্ষের আশঙ্কাও দেখা দেয়।
স্থানীয় ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ব্রজেন্দ্রনাথ সাহা জানান, বিষয়টি নিরসনের জন্য উপজেলা ও পুলিশ প্রশাসন দুই গ্রামের লোকজন নিয়ে একাধিকবার বৈঠক করেন। উভয়পক্ষের সম্মতিতে পূর্বের নাম বহাল রেখে রোববার তাদের মধ্যে সমঝোতা করে দেয়া হয়েছে। এর ফলে এলাকার সনাতন ধর্মাবলম্বীদের মাঝে স্বস্তি ফিরে এসেছে বলে জানান তিনি।
ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন অনুষ্ঠানে উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ফয়সাল আহমেদ, থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আনিছুর রহমান, স্থানীয় চেয়ারম্যান ব্রজেন্দ্রনাথ সাহা, উপজেলা পূজা উদযাপন কমিটির যুগ্মসাধারণ সম্পাদক নিরঞ্জন বাগচি নিরু, উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক গৌতম কুমার মহন্ত, তেঁতুলিয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের যুগ্মসাধারণ সম্পাদক গোলাম মোস্তফা, ইউনিয়ন স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি রবিউল ইসলাম, ইউপি সদস্য আবদুস সামাদ ও নিতাই চন্দ্রসহ এলাকার বিভিন্ন শ্রেণিপেশার মানুষ উপস্থিত ছিলেন।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ