মার্কিন মুলুকে অব্যাহত বন্দুকবাজের হামলা, প্রাণ হারালেন ১২ জন

আপডেট: মে ২৪, ২০২১, ১২:৪৬ অপরাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক


মহামারীর মধ্যে মার্কিন মুলুকে অব্যাহত শুট আউটের ঘটনা। ফের আমেরিকায় পৃথক পৃথক জায়গায় বন্দুকবাজের হামলায় প্রাণ হারালেন ১২ জন। ঘটনায় গুরুতর জখম হয়েছেন অন্তত ৪৯ জন। গত বছর থেকে এই পর্যন্ত বারবার বন্দুকবাজের হামলার ঘটনা প্রকাশ্যে আসায় মর্মান্তিক এই ঘটনায় উদ্বেগ প্রকাশ করেছে মার্কিন প্রশাসন।
এর আগেও গত মাসে আমেরিকায় এই ধরনের সহিংসতার ঘটনাকে ‘মহামারী’ বলে উল্লেখ করেছিলেন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন। তারপরও থামেনি নৃশংস এই তাণ্ডবের ঘটনা। প্রতিনিয়ত যার শিকার হচ্ছেন মার্কিন মুলুকের নিরীহ সাধারণ মানুষেরা। জানা গিয়েছে, শনিবার রাতে নিউ জার্সির কেমডেনে একটি ঘরোয়া পার্টিতে বন্দুকধারীর গুলিতে দু’জন মারা গিয়েছেন এবং কমপক্ষে ১২ জন আহত হয়েছেন বলে পুলিশ জানিয়েছে।
এছাড়াও দক্ষিণ ক্যারোলাইনে, একটি কনসার্টে অনুষ্ঠান চলাকালীন বন্দুকবাজের হামলায় ১৪ বছর বয়সী এক কিশোরী নিহত হয় এবং ঘটনায় ১৪ জন আহত হন। জর্জিয়ার আটলান্টায় পুলিশ রবিবার ভোরে তিনজন গুলিবিদ্ধদের দেহ উদ্ধার করেছেন। মার্কিন সংবাদ মাধ্যম জানিয়েছে, ঘটনাস্থলেই তিনজনকেই মৃত ঘোষণা করা হয়েছে।
পুলিশ জানিয়েছেন, রবিবার ভোরে ওহিওর ইয়াংস্টাউনে একটি বারের বাইরে আরও তিনজন নিহত ও আটজন আহত হয়েছেন।এছাড়াও কলম্বাসের একটি পার্কে ১৬ বছর বয়সী এক কিশোরী নিহত ও সাতজন আহত হয়েছে।
এদিকে বারবার এই ধরনের ঘটনা প্রকাশ্যে আসা নিয়ে মিনিয়াপলিস পুলিশ সংবাদ সংস্থা এএফপিকে জানিয়েছে যে, এই গুলি চালানোর ঘটনায় একজন সন্দেহভাজনকে গ্রেফতার করা হয়েছিল, এবং দ্বিতীয় সন্দেহভাজন মারা গিয়েছে। আমেরিকাতে কয়েক মাস ধরে অনেকেই এই বন্দুকবাজদের হামলার শিকার হয়েছেন। যার মধ্যে রয়েছে ক্যালিফোর্নিয়ায় ইন্ডিয়ানাপলিসের ফেডএক্স ফ্যাসিলিটি, কলোরাডোর বোল্ডারের একটি মুদি দোকান – পাশাপাশি কয়েক সপ্তাহ ধরে একই শহরে একটি জন্মদিনের পার্টি পরে – এবং আটলান্টায় বিভিন্ন স্পা সেন্টারে এই হামলার ঘটনা ঘটেছে।
যদিও বিশ্বব্যাপী এই মহামারি পরিস্থিতির মধ্যে আমেরিকাতে গত বছর থেকে শুটিংয়ের ঘটনা কয়েক গুণ বেড়েছে তা কার্যত স্বীকার করে নিয়েছেন প্রেসিডেন্ট বিডেন। সহিংস এই ঘটনায় উদ্বেগ প্রকাশ করে তিনি বন্দুক তৈরি এবং বিক্রির উপর নিয়ন্ত্রণ জারি করার চেষ্টা চালাচ্ছেন বলে জানা গিয়েছে। চলতি বছরের এই পর্যন্ত মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে মোট ২০০ টি বন্দুকবাজের হামলার ঘটনা ঘটেছে।
তথ্যসূত্র: শড়ষশধঃধ২৪ী৭