মিয়ানমার থেকে অর্থনৈতিক নিষেধাজ্ঞা তুলে নিল যুক্তরাষ্ট্র

আপডেট: অক্টোবর ৮, ২০১৬, ১১:৪৯ অপরাহ্ণ

03. Miyanmar

সোনার দেশ ডেস্ক
অবশেষে মিয়ানমারের ওপর থেকে অর্থনৈতিক নিষেধাজ্ঞা তুলে নিল যুক্তরাষ্ট্র।
মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা এক নির্বাহী আদেশে ১৯৮৯ সালে আরোপিত এ নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করে নেয়ার ঘোষণা দিয়েছেন। এখন দুই দেশের বাণিজ্যি স্বাভাবিক গতিতে চলবে। বিবিসি অনলাইনের এক খবরে শনিবার এ তথ্য জানানো হয়েছে। কয়েক সপ্তাহ আগে মিয়ানমারের গণতন্ত্রপন্থি নেত্রী ও রাষ্ট্রীয় পরামর্শক (প্রধানমন্ত্রীর পদমর্যাদা) অং সান সু চি প্রেসিডেন্ট ওবামার সঙ্গে বৈঠক করেন। এর কয়েক সপ্তাহ পর নিষেধাজ্ঞা তুলে নেয়ার ঘোষণা দিলেন ওবামা।
দারিদ্র্যপীড়িত দেশ হিসেবে যুক্তরাষ্ট্রের কাছ থেকে বাণিজ্য সুবিধা পাওয়ার ওপর ১৯৮৯ সালে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে মার্কিন প্রশাসন। কারণ ছিল, চরমভাবে মানবাধিকার লঙ্ঘন।
হোয়াইট হাউস জানিয়েছে, মিয়ানমারে গণতন্ত্রের জন্য টেকসই অগ্রগতির অর্থ দাঁড়ায় তারা আর যুক্তরাষ্ট্রের জাতীয় নিরাপত্তার জন্য হুমকি নয়। দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার দেশ মিয়ানমারে অং সান সু চি গণতান্ত্রিক ধারা ফেরানোয় তাদের সঙ্গে সুসম্পর্ক বজায় রাখতে যুক্তরাষ্ট্র তড়িঘড়ি করে বাণিজ্যিক সম্পর্ক স্থাপনের ওপর গুরুত্ব দিয়েছে।
যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিনিধি পরিষদ ও সিনেটের উদ্দেশে লেখা চিঠিতে ওবামা বলেছেন, গণতন্ত্র সংহত করাসহ মিয়ানমার যেসব চ্যালেঞ্জের মুখে রয়েছে, সেগুলো থেকে উত্তরণে মিয়ানমারের জনগণকে সাহায্য করতে চায় যুক্তরাষ্ট্র।
যুক্তরাষ্ট্রের অর্থনৈতিক নিষেধাজ্ঞার আওতায় মিয়ানমারের জান্তা সরকারের সময়ের প্রায় ১০০ ব্যক্তি ও কোম্পানির নাম ‘কালো তালিকাভুক্ত’ করা হয়। এর মধ্যে অধিকাংশই এখন মুক্ত বাণিজ্যের স্বাদ নিতে পারলেও কিছু ব্যক্তি ও কোম্পানি নিষেধাজ্ঞার আওতায় থেকে যাবে।- রাইজিংবিডি