মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস অস্বীকার করলে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড : শাহরিয়ার কবির

আপডেট: জুন ৪, ২০২২, ১১:২৬ অপরাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক:


প্রধান অতিথির বক্তব্যে একাত্তরের ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটির কেন্দ্রীয় সভাপতি শাহরিয়ার কবির বলেন, দেশের স্বাধীনতা বিরোধী গোষ্ঠী মহান মুক্তিযুদ্ধের মীমাংসিত ব্যাপারগুলো হেয় করার অপচেষ্টায় তাদের সর্বশক্তি দিয়ে লিপ্ত রয়েছে।

যুদ্ধাপরাধের দায়ে অভিযুক্ত এমনকি দণ্ডপ্রাপ্ত আসামিরাও ট্রাইব্যুনালের ভেতরে এবং বাইরে বিভিন্ন সময় বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধ নিয়ে কটূক্তি করে আসছে। যুদ্ধাপরাধী সংগঠন জামায়াতে ইসলামী এবং তাদের ছাত্র সংগঠন ইসলামী ছাত্র শিবিরসহ যুদ্ধাপরাধীদের সন্তানরা এ দলে রয়েছে।

তাদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস অস্বীকার করলে যাবজ্জীবন কারাদণ্ডের বিধান আছে। এখন সময় এসেছে বঙ্গবন্ধুর আদর্শকে রক্ষা করতে হবে। সেই লক্ষ্যে ওয়ার্ড পর্যায়ে কমিটি গঠন করতে হবে। বিরোধী দলীয় নেতাকর্মীরা মাঠে নেমেছে। তাই নেতাকর্মীদের আগামী নির্বাচনের জন্য প্রস্তুত হওয়ার আহবান জানান তিনি।

শনিবার (৪ জুন) বিকেলে নগরীর শাহমখদুম কলেজ মিলনায়তনে ‘রোহিঙ্গা সংকট ও বাংলাদেশের জাতীয় নিরাপত্তা’ শীর্ষক আলোচনা সভায় এসব কথা বলেন তিনি।

জামায়াত রোহিঙ্গাদের জঙ্গিবাদ শেখাচ্ছে উল্লেখ্য করে প্রধান অতিথি শাহরিয়ার কবির বলেন, রোহিঙ্গা ক্যাম্পে জামায়াতের শতাধিক এনজিও রোহিঙ্গাদের জঙ্গিবাদ শেখাচ্ছে। তাদের জেহাদ শেখানো হচ্ছে। তারা বাংলাদেশ ও মিয়ানমারের একটা অংশ দখল করে স্বাধীন মুসলিম দেশ হিসেবে প্রতিষ্ঠার নীল নকশা করছে।

তিনি আরো বলেন, আমরা রোহিঙ্গা ক্যাম্পে স্কুল করতে চাইলাম। এনজিওগুলো বলল- রোহিঙ্গারা জাতিগতভাবে মাদ্রাসা শিক্ষা গ্রহণ করে। মাদ্রাসা ছাড়া স্কুল করা ঠিক হবে না। আমাদের স্কুল করতে দিল না। সরকার এসব এনজিওকে শনাক্ত করে।

তাদের কার্যক্রম নিষিদ্ধ করে। কিন্তু আবার তারা নাম পরিবর্তন করে কার্যক্রম শুরু করে। একটা এনজিও তো সাতবার নাম পরিবর্তন করে রোহিঙ্গা ক্যাম্পে কার্যক্রম চালাচ্ছে। এসব এনজিও’র বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা সরকার না নিলে পরে পস্তাতে হবে।

একাত্তরের ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটির রাজশাহী জেলার সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা শাহজাহান আলী বরজাহান এঁর সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, একাত্তরের ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটির কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক কাজী মুকুল, বঙ্গবন্ধু পরিষদ রাজশাহী মহানগর শাখার সাধারণ সম্পাদক এএমএম আরিফুল হক কুমার।

একাত্তরের ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটির রাজশাহী মহানগর শাখার নির্বাহী সদস্য তামিম শিরাজী’র সঞ্চালনায় স্বাগত বক্তব্য রাখেন একাত্তরের ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটির রাজশাহী মহানগর শাখার (ভারপ্রাপ্ত) সভাপতি সুজিত সরকার।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ