মুজিবনগর দিবসকে জাতীয় দিবস ঘোষণার দাবি

আপডেট: এপ্রিল ১৮, ২০১৭, ১২:৩০ পূর্বাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক


নগরীতে যথাযোগ্য মর্যাদায় নানা কর্মসূচির মধ্য দিয়ে ঐতিহাসিক মুজিবনগর দিবস পালিত হয়েছে। দিবসটি উপলক্ষে আলোচনাসভা ও র‌্যালি অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল সোমবার মহানগর আ’লীগ, জেলা আ’লীগ, জেলা প্রশাসনসহ বিভিন্ন সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠনের উদ্যোগে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় বিভিন্ন সংগঠনের পক্ষ থেকে মুজিবনগর দিবসকে জাতীয় দিবস হিসেবে ঘোষণার দাবি জানানো হয়। এছাড়া মুজিবনগর সরকারের বিভিন্ন দিক ও তাৎপর্য তুলে ধরে মহান মুক্তিযুদ্ধ ও স্বাধীনতা নিয়ে আলোচনা করা হয়। পাশাপাশি বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের বাংলাদেশ গড়ার প্রত্যয় ব্যক্ত করেছেন বক্তারা।
সভায় বক্তারা বলেন, বঙ্গবন্ধু বাঙালি জাতিকে স্বাধীনতার স্বপ্ন দেখিয়ে স্বাধীনতার ডাক দিয়েছিলেন। বঙ্গবন্ধুর ডাকে দেশের আপামর জনতা রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের মধ্যে স্বাধীনতা অর্জন করেন। ১৯৪৭ এর পর থেকে ১৯৭১ পর্যন্ত স্বাধীনতা অর্জনের নিয়ে পর্যায়ক্রমিক আলোচনা করা হয়। বাংলাদেশের ইতিহাসে ১৭ এপ্রিল একটি ঐতিহাসিক দিন।
বক্তারা আরো বলেন, এদিন মেহেরপুরের বৈদ্যনাথ তলায় আ¤্রকাননে স্বাধীনতার পক্ষে বঙ্গবন্ধুর অবর্তমানে জাতীয় চারনেতা যে পদক্ষেপ নিয়েছিলেন তার ফসল স্বাধীন বাংলাদেশ। স্বাধীনতাই বাংলাদেশ অভ্যুদ্বয়ের মাইলফলক। এছাড়া সভায় দেশকে সাম্প্রদায়িকতা, জঙ্গি ও সন্ত্রাসমুক্ত করে ২০২১ সালের মধ্যে ক্ষুধা, দারিদ্র, দুনীতিমুক্ত ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার আহ্বান জানানো হয়। সভায় গভীর শ্রদ্ধার সঙ্গে স্মরণ করা হয়েছে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানসহ জাতীয় চার নেতাকে।
মহানগর আ’লীগ : ঐতিহাসিক মুজিবনগর সরকার দিবস উপলক্ষে সকাল ১০ টায় রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগ কার্যালয়ের স্বাধীনতা চত্বরে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানসহ জাতীয় চার নেতার প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পন করা হয়। সন্ধ্যা ৭ টায় কুমারপাড়াস্থ দলীয় কার্যালয়ে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় সভাপতিত্ব করেন, রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা মীর ইকবাল। সভা পরিচালনা করেন, রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ডাবলু সরকার।
সভায় বক্তব্য দেন, রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি শাহীন আকতার রেনী, মুক্তিযোদ্ধা নওশের আলী, সাংগঠনিক সম্পাদক আসলাম সরকার, নগর শ্রমিক লীগ সাধারণ সম্পাদক আব্দুস সোহেল, নগর কৃষক লীগ সভাপতি রহমত উল্লাহ সেলিম, নগর যুবলীগ সভাপতি রমজান আলী।
এসময় উপস্থিত ছিলেন, রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগের যুগ্মসম্পাদক রেজাউল ইসলাম বাবুল, নাইমুল হুদা রানা, কৃষি সম্পাদক জহির উদ্দিন তেতু, সাংস্কৃতিক সম্পাদক কামার উল্লাহ সরকার কামাল, উপ-দতফর সম্পাদক শফিকুল ইসলাম দোলন, উপ-প্রচার সম্পাদক মীর ইসতিয়াক আহম্মেদ লিমন প্রমুখ। সভায় বক্তারা বাংলাদেশর ইতিহাসে ১৭ এপ্রিলের এই দিনটির তাৎপর্য রয়েছে। এই দিন বাংলাদেশর ঐতিহাসিক মুজিবনগর সরকার গঠিত হয়। যে সরকার বাংলাদেশের মহান মুক্তিযুদ্ধ পরিচালনা করেন এবং স্বাধীনতা অর্জন করে পাকিস্থানী হানাদার বাহিনী কাছে থেকে বাংলাদেশকে মুক্ত করেন।
জেলা আ’লীগ : ১৭ এপ্রিল ঐতিহাসিক মুজিবনগর দিবসে রাজশাহী জেলা আওয়ামী লীগ বিভিন্ন কর্মসূচি গ্রহণ করেছে। কর্মসূচির মধ্যে সূর্যোদয়ের সাথে সাথে জেলা আ’লীগের লক্ষীপুরস্থ দলীয় কার্যালয়ে জাতীয় ও দলীয় পতাকা উত্তোলন, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে মাল্যদান, সারাদিনব্যাপি মাইকে বঙ্গবন্ধুর ভাষণ ও মুক্তিযুদ্ধের গাণ প্রচার করা হয়। বিকেল ৫ টায় দলীয় কার্যালয়ের সামনে থেকে র‌্যালি শুরু হয়্। র‌্যালিটি নগরীর প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে লক্ষীপুর মোড়ে গণজমায়েত অনুষ্ঠিত হয়। গণজমায়েতে সভাপতিত্ব করেন, রাজশাহী জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি অনিল কুমার সরকার।
সভায় বক্তব্য দেন, রাজশাহী জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মোহা. আসাদুজ্জামান আসাদ, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট লায়েব উদ্দিন লাভলু, অধ্যক্ষ মোস্তাফিজুর রহমান মানজাল, কারুজ্জামান, সাংগঠনিক সম্পাদক একেএম আসাদুজ্জামান, আরফোর রহমান, বাগমারা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও বাগমারা আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক জাকিরুল ইসলাম সান্টু, জেলা যুবলীগ সভাপতি আবু সালেহ, জেলা শ্রমিকলীগের সভাপতি আবদুল্লাহ খান, জেলা মহিলা আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট নাসরিন আকতার মিতা, জেলা ছাত্রলীগ সভাপতি হাবিবুর রহমান হাবিব।
রাজশাহী জেলা প্রশাসন : রাজশাহী জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে গতকাল সকাল ১০টায় শিল্পকলা একাডেমি মিলনায়তনে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। এতে সভাপতিত্ব করেন, রাজশাহী জেলা প্রশাসক কাজী আশরাফ উদ্দীন। প্রধান অতিথি ছিলেন, রাজশাহী বিভাগীয় কমিশনার নূর-উর-রহমান। বিশেষ অতিথি ছিলেন, রাজশাহী রেঞ্জের অতিরিক্ত ডিআইজি মাসুদুর রহমান ভুঞা, আরএমপি পুলিশ কমিশনার শফিকুল ইসলাম, পুলিশ সুপার মোহাম্মদ মোয়াজ্জেম হোসেন ভুঞা, সাবেক মেয়র অ্যাডভোকেট আবদুল হাদী, মহানগর ইউনিট মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার ডা. আবদুল মান্নান, নগর আ’লীগের সহসভাপতি সমাজসেবী শাহীন আক্তার রেনী।
রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় : রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে বিভিন্ন কর্মসূচির মধ্য দিয়ে ঐতিহাসিক মুজিবনগর দিবস পালিত হয়েছে। এই উপলক্ষে গতকাল সোমবার দিনব্যাপী আলোচনা সভা, র‌্যালি, রচনা ও কুইজ প্রতিযোগিতা এবং সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান হয় ক্যাম্পাসে। সকাল ১০টায় শহীদ সুখরঞ্জন সমাদ্দার ছাত্র-শিক্ষক সাংস্কৃতিক কেন্দ্রে আলোচনায় সভা অনুষ্ঠিত হয়। বিশ্ববিদ্যালয়ের কোষাধ্যক্ষ প্রফেসর সায়েন উদ্দিন আহমেদের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় প্রধান আলোচক ছিলেন, বিশিষ্ট গবেষক ও লেখক প্রফেসর সনৎকুমার সাহা। সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদের ডিন প্রফেসর ফয়জার রহমান অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তৃতা করেন।
বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র উপদেষ্টা প্রফেসর মিজানুর রহমানের সঞ্চালনায় আলোচনা সভায় অন্যান্যের মধ্যে রেজিস্ট্রার প্রফেসর মুহাম্মদ এন্তাজুল হক, পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক প্রফেসর আসাবুল হক, প্রক্টর প্রফেসর মুজিবুল হক আজাদ খান, জনসংযোগ দপ্তরের প্রশাসক অধ্যাপক মশিহুর রহমান, টিএসসিসির ভারপ্রাপ্ত পরিচালক অধ্যাপক টিএমএম নুরুল মোদ্দাসের চৌধুরী প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন। আলোচনা সভা শেষে অনুষ্ঠিত হয় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ও রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় স্কুলে রচনা প্রতিযোগিতা।
এদিকে মুজিবনগর দিবস উপলক্ষে ক্যাম্পাসে র‌্যালি ও সমাবেশ করেছে বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগ। সোমবার দুপুর সাড়ে ১২টায় দলীয় টেন্ট থেকে র‌্যালি বের করে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা। র‌্যালিটি ক্যাম্পাসের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হল প্রাঙ্গণে এসে সংক্ষিপ্ত সমাবেশে মিলিত হয়। এসময় বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ করা হয়। বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক ফয়সাল আহমেদ রুনুর সঞ্চালনায় সমাবেশে বক্তব্য দেন, কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সহসভাপতি আনিকা ফারিহা জামান অর্না, রাবি ছাত্রলীগ সভাপতি গোলাম কিবরিয়া প্রমুখ। এসময় বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি সৈকত হোসাইন, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক শহিদুল ইসলাম ডন, সাংগঠনিক সম্পাদক রেজাউল করিমসহ বিভিন্ন পর্যায়ের নেতা-কর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।
মুজিরনগর দিবসকে জাতীয় দিবস হিসেবে ঘোষণার দাবিতে সকাল সাড়ে ১০টার দিকে ক্যাস্পাসে র‌্যালি বের করে মেহেরপুর ছাত্র ইউনিয়ন সংঘ। র‌্যালিটি বিশ্ববিদ্যায়ের টুকিটাকি চত্বর থেকে বের হয়ে ক্যাস্পাসের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় গ্রন্থাগারের সামনে গিয়ে শেষ হয়। দিবসটি উপলক্ষে বেলা ১১টার দিকে বিশ্ববিদ্যারয়ের ডিনস কমপ্লেক্সের সম্মেলন কক্ষে আলোচনা সভা ও কুইজ প্রতিযোগিতার আয়োজন করে রাবি সংবাদপত্র পাঠক ফোরাম। ফোরামের সাধারণ সম্পাদক উম্মে কুলছুম কনির সঞ্চালনায় আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য প্রফেসর আব্দুল খালেক। আলোচক হিসেবে ছিলেন, রাবির সমাজকর্ম বিভাগের সভাপতি প্রফেসর সাদেকুল আরেফিন, অর্থনীতি বিভাগের প্রফেসর ইলিয়াছ হোসেন প্রমুখ।
জেলা পরিষদ : ঐতিহাসিক মুজিবনগর দিবস উপলক্ষে রাজশাহী জেলা পরিষদে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। দিবসটির তাৎপর্য তুলে ধরে সোমবার সকালে জেলা পরিষদ চেয়ারম্যানের দফতরে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়। সেখানে গভীর শ্রদ্ধার সঙ্গে স্মরণ করা হয় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানসহ জাতীয় চার নেতাকে। সভায় সভাপতিত্ব করেন, জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ আলী সরকার। প্রধান অতিথি ছিলেন, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আসাদুজ্জামান আসাদ।
আলোচনায় অংশগ্রহণ করেন, মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদফতরের সহকারি পরিচালক ড. মোয়াজ্জেম হোসেন, জেলা পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান নাইমুল হুদা রানা, রবিউল আলম, সদস্য আবদুস সালাম, আবুল ফজল ও মাহমুদুর রহমান রেজাসহ সকল সদস্য ও নারী সদস্যরা।
নগর স্বেচ্ছাসেবক লীগ: এ দিবসটি উপলক্ষে সকাল সাড়ে ১০ টার দিকে বঙ্গবন্ধু ও জাতীয় চার নেতার প্রতিকৃতিতে পুষ্পমাল্য অর্পন করা হয়েছে। এসময় উপস্থিত ছিলেন, নগর আওয়ামী লীগের সহসভাপতি শাহীন আক্তার রেণী, সাধারণ সম্পাদক ডাবলু সরকার, স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি আবদুল মোমিন, সাধারণ সম্পাদক জেডু সরকার, সহসভাপতি শহিদুল ইসলাম প্রমুখ।
মুক্তিযুদ্ধের চেতন বাস্তবায়ন মঞ্চ: এ দিবসটি উপলক্ষে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুষ্পমাল্য অর্পন করা হয়েছে। এসময় এক মিনিট নিরবতা পালন করা হয়। পরে আলোচনাসভা সভাপতিত্ব করেন, মঞ্চের সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা হাকিম আতাউর রহমান। আলোচনায় অংশগ্রহণ করেন, সাধারণ সম্পাদক মুক্তিযোদ্ধা আবুল কালাম আজাদ, সহসভাপতি নূরুল ইসলাম, অ্যাডভোকেট এন্তাজুল হক বাবু, শফিকুল আলম, সাদরুল ইসলাম, আবদুস সালাম, বজলুর রহমান প্রমুখ।
মুক্তিসংগ্রাম পরিষদ মুক্তিযোদ্ধা’৭১: এ দিবসটি উপলক্ষে কানপাড়ায় বঙ্গবন্ধু ও জাতীয় চার নেতার প্রতিকৃতিতে পুষ্পমাল্য অর্পন করা হয়েছে। পরে সকাল ১০ টার দিকে আলোচনাসভা অনুষ্ঠিত হয়। অন্যদিকে, শিরোইল সুপার মার্কেটে মুক্তিযোদ্ধা আবুল হাসান খন্দকারের সভাপতিত্বে এবং মুক্তিযোদ্ধা’৭১ এর নেতা মুক্তিযোদ্ধা ইয়াছিন আলী মোল্লার পরিচালনায় দিবসটির তাৎপর্য তুলে ধরে জঙ্গিবাদ ও সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধ থাকার আহ্বান জানিয়ে বক্তব্য দেন, সেনা অফিসার (অব.) খন্দকার নুরুন নবী, জেলা আওয়াম লীগের সহসভাপতি সরদার আবদুল মজিদ, মুক্তিযোদ্ধা সিরাজুল ইসলাম প্রমুখ।
বঙ্গবন্ধু পরিষদ : মুজিব নগর দিবস স্মরণে বঙ্গবন্ধু পরিষদ রাজশাহী জেলা শাখার উদ্যেগে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল সোমবার বিকেলে নগরীর আলুপট্টি মোড়স্থ মুক্তিযুদ্ধ পাঠগারের রায়হানুল হক মুন্টু অনুশীলন কক্ষে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় সভাপতিত্ব করেন, বঙ্গবন্ধু পরিষদ রাজশাহী জেলা শাখার সভাপতি প্রফেসর ড. আব্দুল খালেক। বক্তব্য দেন, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) ইতিহাস বিভাগের সহকারী অধ্যাপক সৈয়দ আব্দুল্লাহ আল মামুন, রাবি’র প্রাক্তত উপউপাচার্য প্রফেসর এম ওয়াজেদ আলী, রাবির আইন বিভাগের প্রফেসর আনিছুর রহমান, আর্ন্তজাতিক সর্ম্পক বিভাগের সভাপতি প্রফেসর আবুল কাশেম, বঙ্গবন্ধু পরিষদ রাজশাহী জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক প্রফেসর নূর উল্লাহ, সহ সভাপতি প্রফেসর কায়েশ উদ্দিন প্রমুখ।
মুক্তিযোদ্ধা সংসদ জেলা ইউনিট কমান্ড : দিবসটি উপলক্ষে বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা সংসদ জেলা ইউনিট কমান্ড বিভিন্ন কর্মসূচি পালন করে। কর্মসূচীর মধ্যে ছিল, শেখ মুজিবুর রহমানসহ জাতীয় চার নেতার প্রতীককৃতিতে পুষ্পমাল্য দান ও আলোচনা সভা। সভায় সভাপতিত্ব করেন, জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের কমান্ডার শাহাদুল হক মাস্টার। বক্তব্য দেন, জেলা ইউনিটের নির্বাহী সদস্য অ্যাড. আব্দুস সামাদ, সাংগঠনিক সম্পাদক শাহ লুৎফর রহমান প্রমুখ।