মুনবোর বিরল দৃশ্য বাংলাদেশের আকাশে

আপডেট: ডিসেম্বর ১৫, ২০১৬, ১২:০৫ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক



১৭৯৯ সালে শরতের এক সন্ধেূ সান্ধ্যভ্রমণে বেরিয়েছিলেন কবি উইলিয়াম কোল। হঠাৎ আকাশে দেখেন এক অপার্থিব আলোর খেলা। কবি লেখনীতে ধরা পড়ল সেই সৃষ্টিূ তিনি লিখলেন- ‘ঞযব ধঃসড়ংঢ়যবৎব রিঃয যঁসরফ াধঢ়ড়ঁৎং ভষড়,ি/অহফ ঃযব ঢ়ধষব সড়ড়হ ফরংঢ়ষধুং যবৎ ষঁহধৎ নড়।ি’
চন্দ্রধনু বা মুনবো মূলত রংধনুর মতোই। কিন্তু এটা মূলত সাদা রঙের হয়। চাদের চারপাশে একটা বিরাট আলোর বলয়। চাদের আলো যখন কুয়াশা কিংবা পানির কনার মধ্য দিয়ে যায় তখন আলোর পূর্ণ অভ্যন্তরীণ প্রতিফলনের ফলে এমন ঘটে থাকে। তৈরি হয় নয়নাভিরাম দৃশ্য। এটাকে চাঁদের রঙধনু ও বলা হয়। আর এই রঙধনু তৈরি হয় চাঁদের থেকে আসা আলো থেকে যা মূলত সূর্যের আলোর-ই ফল।
গত ১১ ডিসেম্বর রোববার রাতে, খুলনা এলাকার অনেকেই আকাশে চাদের চার পাশের এই বিরল দৃশ্যের দেখা পেয়েছে। বিষয়টি সম্পর্কে জানতে চাইলে খুলনা সরকারি মহিলা কলেজের ছাত্রী ইউশা ফারিহা বলেন, ‘এমন দৃশ্য আমি জীবনে প্রথম দেখলাম। মুনবো যে হয় তা আমি জানতামই না।’
ছবিটি তোলা হয়েছে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পাশে অবস্থিত আনন্দ নিকেতন মডেল স্কুলের মাঠ থেকে। ছবিটি তুলেছেন আবদুল্লাহ আল রাকিন। এই মুনবো দেখা গিয়েছে প্রায় পাঁচ থেকে সাত মিনিট ধরে। তারপর হঠাৎ করেই মিলিয়ে গেছে। এই অল্প সময়ের মধ্যেই মানুষের মাঝে এক ধরনের বিস্ময় ছড়িয়ে দিয়ে গেছে মুনবো। রাইজিংবিডি