মুমিনুলের কষ্ট, মুমিনুলের আফসোস

আপডেট: এপ্রিল ২, ২০১৭, ১২:৩২ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক



ইমার্জিং টিমস এশিয়া কাপের শুরু থেকেই বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-২৩ দলের অধিনায়ক মুমিনুল হক আত্মবিশ্বাসী কণ্ঠে বলেছিলেন, টুর্নামেন্টে চ্যাম্পিয়ন হওয়াই তাঁর একমাত্র লক্ষ্য। সে লক্ষ্য পূরণে দলকে সামনে থেকেই নেতৃত্ব দিচ্ছিলেন। কিন্তু তাঁর সেই যাত্রা শেষ হয়েছে গতকাল শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ৮ উইকেটে হেরে।
আগামীকাল জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে ফাইনালে খেলবে পাকিস্তান-শ্রীলঙ্কা। ঘরের মাঠে বাংলাদেশ এখন দর্শক। অন্য দলকে চ্যাম্পিয়ন হতে দেখে কষ্ট হবে না? ম্যাচ শেষে ম্লান কণ্ঠে মুমিনুল বললেন, ‘অন্যের চ্যাম্পিয়ন দেখা অবশ্যই কষ্টের, ভীষণ আফসোস হবে। শুরু থেকেই বলে এসেছি চ্যাম্পিয়ন হওয়ার স্বপ্ন নিয়ে খেলছি। স্বপ্ন দেখা তো খারাপ কিছু নয়। হয়তো বলবেন আপনি স্বপ্ন পূরণ করতে পারেননি। আমি চেষ্টা করেছি। হয়নি। এর জন্য দুঃখিত। আমি অধিনায়ক, দায়টা আমার কাঁধেই তুলে নিলাম।’
টুর্নামেন্টের শেষ চার থেকে বিদায় নিলেও অনেক প্রাপ্তি খুঁজে পাচ্ছেন গ্রুপ পর্বে দুই ফিফটি করা মুমিনুল, ‘আমরা যারা ওয়ানডে খেলি না, তাদের জন্য খুব ভালো ছিল টুর্নামেন্ট। অধিনায়ক হিসেবে অনেক কিছু শিখেছি। বয়সভিত্তিক ক্রিকেটেও আমরা শক্তিশালী দলগুলোর সঙ্গে জিততে পারি এমন বিশ্বাস এসেছে। আজ অল্প লক্ষ্য দিয়েও যদি দ্রুত ৩-৪ উইকেট নিতে পারতাম, ম্যাচটা অন্য রকম হতে পারত।’
ব্যাটসম্যান হিসেবে একটা সেঞ্চুরি না পাওয়ার আফসোসও পোড়াচ্ছে মুমিনুলকে। সব আক্ষেপ ভুলে বাঁহাতি ব্যাটসম্যান তাকাতে চান সামনে। তাঁর ভাবনায় আপাতত ঢাকা প্রিমিয়ার লিগ। এক দিনের ক্রিকেটে নিজেকে প্রমাণের তাগিদটা যে তাঁর তীব্র!-প্রথম আলো অনলাইন

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ