মুশফিককেই চেনেন না স্মিথ!

আপডেট: জুন ৫, ২০১৭, ১২:৫৩ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক


বাংলাদেশের মুখোমুখি খুব একটা হয় না অস্ট্রেলিয়া। ওয়ানডেতে সর্বশেষ মুখোমুখি হয়েছে ৬ বছর আগে, ২০১১ সালে। টি-টোয়েন্টিতে গত বিশ্বকাপে মুখোমুখি হলেও, খুব অনিয়মিত দেখা হয় বাংলাদেশ আর অস্ট্রেলিয়ার। টেস্টে তো প্রায় এক যুগ হয়ে গেছে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে খেলে না বাংলাদেশ।
তবুও, বাংলাদেশ দলের নিয়মিত সদস্য, ১২ বছরেরও বেশি সময় ধরে জাতীয় দলের হয়ে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট মাতানো এবং টেস্ট দলের অধিনায়ক মুশফিকুর রহিমকে কে না চেনে? কিন্তু আক্ষেপের বিষয় হলো, অস্ট্রেলিয়ার অধিনায়ক স্টিভেন স্মিথ ঠিক তাকে চিনতে পারছিলেন না। অসি অধিনায়কের চেয়ে বয়সে এবং ক্যারিয়ারে অনেক বড় হওয়ার পরও মুশফিককে ‘তরুণ’ বলে আখ্যায়িত করলেন স্মিথ।
কেনিংটন ওভালে সোমবার দিবা-রাত্রির ম্যাচে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে মাঠে নামছে বাংলাদেশ। তার আগে গতকাল অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলনে কথা বলতে গিয়ে তামিম ইকবালের নামটা ঠিকমত উচ্চারণ করতে পারলেন স্মিথ; কিন্তু মুশফিকের নাম উচ্চারণ করতে গিয়েই মুখে বেধে গেলো তার। ঠিকভাবে উচ্চারণ করতে পারছিলেন না। মুশফিকের নাম এমনভাবে উচ্চারণ করতে গিয়েছিলেন তিনি, মনে হচ্ছিল জীবনে কখনও তাকে দেখেননি এবং তার নাম শোনেনওনি।
অথচ ২০১০ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে মুশফিকদের মুখোমুখি হয়েছিলেন স্টিভেন স্মিথ। স্পিনার হিসেবে দলে সুযোগ পাওয়া এই ব্যাটসম্যানই সেদিন বাংলাদেশের বিপক্ষে অস্ট্রেলিয়াকে বাঁচিয়েছিল। আট নম্বরে ব্যাট করতে নেমে করেছিলেন ২৭ রান। ওই ম্যাচে বাংলাদেশের হয়ে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ রান ছিল মুশফিকের।
২০১১ ওয়ানডে বিশ্বকাপের পর বাংলাদেশ সফরে এসে মুশফিককে দেখে গিয়েছেন। সেবার স্মিথও ছিলেন অস্ট্রেলিয়ার দলে। স্পিনার হিসেবে সুযোগ পেলেও নিজেকে আমুল বদলে পুরোপুরি ব্যাটসম্যান বানিয়ে নিয়েছেন স্মিথ। এখন অস্ট্রেলিয়ার অধিনায়ক। গত টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে বাংলাদেশের বিপক্ষে ম্যাচে অসিদের নেতৃত্ব দিয়েছেন স্মিথই। তখনও মুশফিক দলে ছিলেন।
অথচ, গতকাল সংবাদ সম্মেলনে মুশফিকের নাম উচ্চারণ করতে গিয়েই মুখে আটকে গেলো স্মিথের। সংবাদ সম্মেলনে বাংলাদেশ সম্পর্কে বলতে গিয়ে স্মিথ বলেন, ‘ওদের ভয়ঙ্কর কিছু ব্যাটসম্যান আছে। তামিম ইকবাল দারুণ একটা ইনিংস খেলেছে আগের ম্যাচেই। ওদের আরেকজন, নামটা ঠিকভাবে উচ্চারণ করতে পারছি না, মুশফিক, ওই যে উইকেটরক্ষক, নাকি মুশফিকুর? সে খুব ভালো, তরুণ খেলোয়াড়। ওদের দলে বেশ কিছু ভালো খেলোয়াড় আছে। মোস্তাফিজ খুবই ভালো মানের বোলার। ওদের আসলেই বেশ কিছু ভালো খেলোয়াড় আছে।’
স্মিথ ইচ্ছা করে এমন করেছেন নাকি সত্যি সত্যিই মুশফিকের নাম ভুলে গেলেন,নাকি তাকে চিনতেই পারছিলেন না- বোঝা গেল না কিছুই।