মেক্সিকোর সীমান্তে দেয়াল তৈরির আদেশ, সব ‘খারাপ’ লোককে তাড়াবেন ট্রাম্প

আপডেট: জানুয়ারি ২৭, ২০১৭, ১২:০৩ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক



মেক্সিকো থেকে আসা অবৈধ অভিবাসীদের ঠেকাতে সীমান্তে দেয়াল তুলে দেয়ার ব্যাপারে একটি নির্বাহী আদেশ জারি করেছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প।
তিনি বলছেন এই দেয়াল তৈরির কাজ অবিলম্বেই শুরু হবে।
সীমান্তে অবৈধ অভিবাসীদের আটকে রাখার জন্য বন্দি শিবিরের যায়গা বাড়ানোরও ঘোষণা দিয়েছেন ডোনাল্ড ট্রাম্প। আর নানা শহরে অবৈধ অভিবাসীদের সহায়তায় যে অর্থ বরাদ্দ রয়েছে তাও পুরোপুরি বন্ধ করে দেয়ার আদেশ দিয়েছেন তিনি।
মি ট্রাম্প বলছেন, সকল অপরাধী, মাদক চোরাকারবারি আর গ্যাং মেম্বারদের যুক্তরাষ্ট্রের মাটি ছাড়া করবেন তিনি। যুক্তরাষ্ট্রের মাটিতে বসে দেশটির ক্ষতি করার সময় ফুরিয়ে এসেছে বলে হুশিয়ারি দিয়েছেন তিনি।
নির্বাচনের আগে ডোনাল্ড ট্রাম্প ঘোষণা দিয়েছিলেন ক্ষমতায় গেলে তিনি অনেকগুলো বিষয়ে ১০০ দিনের মধ্যে ব্যবস্থা নেবেন।
তার মধ্যে মেক্সিকো থেকে আসা অবৈধ অভিবাসীদের ঠেকাতে সীমান্তে দুই হাজার মাইল লম্বা একটি দেয়াল তৈরি ছিলো অন্যতম।
ক্ষমতা নেয়ার পর থেকেই একটার পর একটা আদেশে সই করে যাচ্ছেন ডোনাল্ড ট্রাম্প। যুক্তরাষ্ট্রে দুই কোটির মতো মেক্সিকান বংশোদ্ভূত জনগোষ্ঠীর বাস।
প্রতিবছর কাজ বা ভাল জীবনের খোঁজে নতুন করে হাজার হাজার মেক্সিকান অবৈধভাবে যুক্তরাষ্ট্রে প্রবেশ করে। এটি সবসময়ই মার্কিন রাজনীতির একটি গুরুত্বপূর্ণ ইস্যু।
এই মেক্সিকানদের ঠেকাতেই যে দেয়ালের কথা বলছেন মি ট্রাম্প তা তৈরির খরচ পুরোটাই তিনি উল্টো মেক্সিকোর কাছ থেকেই আদায় করবেন বলে জানিয়েছেন। ডোনাল্ড ট্রাম্পের এই ঘোষণা ইতোমধ্যেই কড়া সমালোচনার মুখোমুখি হয়েছে। মেক্সিকানরা এটিকে ট্রাম্পের বর্ণবৈষম্যবাদ বলে আখ্যা দিয়েছে।
মানবাধিকার সংস্থা হিউম্যান রাইটস ওয়াচের নির্বাহী পরিচালক কেন রথ বলছেন এই সিদ্ধান্ত কিছু মানুষের কষ্টই শুধু বাড়াবে।
মি. রথ বলছেন, নিরাপত্তার কথা বলে তিনি শরণার্থীদের প্রবেশ বন্ধ করতে চান। ‘এটি নিষ্ঠুর এবং অর্থহীন সিদ্ধান্তের একটি নমুনা’।- বিবিসি বাংলা

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ