মেসির ‘মুক্তি’তে হতাশ ভিদাল

আপডেট: মে ৮, ২০১৭, ১২:২৩ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক


সহকারী রেফারির সঙ্গে অশোভন আচরণ করে চার ম্যাচের নিষেধাজ্ঞা পেয়েছিলেন। এক ম্যাচ নিষেধাজ্ঞাও কাটিয়েছেন লিওনেল মেসি। তবে আপিলের পর তাঁর নিষেধাজ্ঞা তুলে নিয়েছে ফিফার আপিল কমিটি। ফিফার এমন সিদ্ধান্ত হতাশ করেছে আরতুরো ভিদালকে। তাঁর ধারণা মেসি বলেই বড় অপরাধ করেও পার পেয়ে গেলেন মেসি।
গত মার্চে বিশ্বকাপ বাছাইপর্বে চিলির বিপক্ষে ১-০ গোলে জিতে সহকারী রেফারিকে কটূক্তি করেন মেসি। এতে ফিফার শৃঙ্খলা কমিটি চার ম্যাচের জন্য নিষিদ্ধ করে মেসিকে। এ কারণে বলিভিয়ার বিপক্ষে আর্জেন্টিনার পরের ম্যাচটা খেলতে পারেননি আর্জেন্টাইন অধিনায়ক। নিষেধাজ্ঞার বিরুদ্ধে আপিলটা করে রেখেছিলেন। শুনানির পর ফিফার আপিল কমিটি তাঁর নিষেধাজ্ঞা তুলে নেওয়ারই রায় দিয়েছে। মেসির সহকারী রেফারির সঙ্গে অশোভন আচরণ করেছেনÍ এমন ঘটনার যথেষ্ট প্রমাণ নাকি পাওয়া যায়নি। এ কারণেই বাকি তিন ম্যাচের নিষেধাজ্ঞা আর কাটাতে হবে না তাঁকে। খেলতে পারবেন বিশ্বকাপ বাছাইপর্বে আর্জেন্টিনার পরের ম্যাচগুলো।
মেসির ব্যাপারে ফিফার এই সিদ্ধান্তে হতাশ ভিদাল। কনমেবল অঞ্চলের বিশ্বকাপ বাছাইপর্বে আর্জেন্টিনার চেয়ে এক পয়েন্ট এগিয়ে আছে। মেসি ফেরায় আর্জেন্টিনার বিশ্বকাপে যাওয়ার রাস্তাটা যতটা সহজ হয়েছে, চিলির ক্ষেত্রে ততটাই কঠিন হয়ে গেছে। প্রায় একই অপরাধে শাস্তি জুটেছিল চিলির গ্যারি মেডেলের। কিন্তু আপিলের পর তাঁর শাস্তি কমানো হয়েছিল মাত্র এক ম্যাচ। এএনডি রেডিওর সঙ্গে আলাপে ভিদাল নিজের ক্ষোভ গোপন করেননি, এটা খুব কঠিন বিষয় (আলোচনার জন্য)। আমি শুধু এটাই আশা করি, নিয়মটা সবার জন্যই একই থাকবে।’
সিদ্ধান্ত কমাতে আর্জেন্টিনার যে সুবিধা হবে সেটা জানেন ভিদাল। এবং তাঁর ধারণা খেলোয়াড়ের নাম ‘মেসি’ বলেই নিষেধাজ্ঞার সিদ্ধান্তটা ফিফা উল্টে দিয়েছে। এ নিয়ে খোঁচাও দিতে ছাড়েননি তিনি, ‘এটা আর্জেন্টিনার জন্য ভালো। ফুটবলের জন্যও এটা ভালো। মেসিকে আর্জেন্টিনার হয়ে খেলতে দেখতে সব সময়ই ভালো লাগে। সে দলের জন্য সর্বস্ব দেওয়ার চেষ্টা করে। তাই সিদ্ধান্তটা ওর জন্য খুব ভালো হয়েছে। কিন্তু সবার ক্ষেত্রে এমন হোক আমার প্রত্যাশা এটাই।’ সূত্র: গোলডটকম,প্রথম আলো অনলাইন।