মেয়ের বাগদত্তাকে ৩৬৫ রকমের পদ রেঁধে খাওয়ালেন হবু শাশুড়ি

আপডেট: জানুয়ারি ১৯, ২০২২, ২:০৯ অপরাহ্ণ


সোনার দেশ ডেস্ক :


বাড়িতে জামাই আসবে আর এলাহি আয়োজন হবে না, তা কি হয়? জামাই আদর বলে কথা। তবে হবু জামাইয়ের আপ্যায়নে এলাহি আয়োজন দেখে চোখ কপালে ওঠার জোগাড় প্রায় সকলেরই।

কারণ, তাঁর জন্য ৩৬৫ রকমের পদ রান্না করলেন শাশুড়ি। অন্ধ্রপ্রদেশের পশ্চিম গোদাবরীর শ্বশুরবাড়ির কীর্তি এখন সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল।

মকর সংক্রান্তিতে অন্ধ্রপ্রদেশের বাসিন্দা জামাইকে বাড়িতে ডেকে একাধিক পদ রান্না করেখাওয়ান। এটাই রীতি সে রাজ্যের। পশ্চিম গোদাবরীর ওই পরিবারও তার ব্যতিক্রম নয়। তখনও মেয়ের বিয়ে হয়নি। তাতে কি?

জামাই বাছাই পর্ব সম্পূর্ণ। তাই হবু জামাইকেই মকর সংক্রান্তির দিন বাড়িতে আমন্ত্রণ করেন। হবু জামাইও আমন্ত্রণ রক্ষা করতে শ্বশুরবাড়িতে আসেন। আত্মীয়, পরিজনদের সঙ্গে দু-একটা কথাবার্তা বলার পরই খাবার টেবিলের কাছে নিয়ে যাওয়া হয় ওই যুবককে।

তবে টেবিলের সামনে গিয়ে মাথা ঘুরে যাওয়ার জোগাড় তাঁর। কারণ, টেবিলের উপর সাজানো ৩৬৫ রকমের খাবার। কোনটা ছেড়ে কোনটা খাবেন, তা ভাবতেই বেশ কয়েক মুহূর্ত সময় নষ্ট হয় হবু জামাইয়ের।

কী কী ছিল মেনুতে? পরিবারের সদস্যরা জাননা, ৩০ রকমের তরকারি, বিভিন্ন রকমের পেস্ট্রি, ১০০ রকমের মিষ্টি, ১৫ রকমের আইসক্রিম, ৩৫ রকমের ঠান্ডা পানীয় এবং বিস্কুট।

এছাড়াও ছিল ভাত, বিরিয়ানি, পুলিহোরা-সহ কত কী! তিনটি টেবিলে খাবারগুলি সাজিয়ে রাখা হয়। ইউটিউবে একটি ভিডিও শেয়ার করেন তরুণী। ওই তরুণীর মা জানান, “আমাদের মেয়ে এবং হবু জামাইয়ের জন্য এই আয়োজন করতে পেরে আমরা খুশি।

মেয়ে জামাইয়ের পাশাপাশি সব আত্মীয়দেরও আমন্ত্রণ জানানো হয়েছিল। গোদাবরীর ঐতিহ্যকে জামাইয়ের সামনে তুলে ধরাই ছিল লক্ষ্য।”

মকর সংক্রান্তির পরই গাঁটছড়া বাঁধেন ওই তরুণ ও তরুণী। তাঁর দাদু বিয়েতেও এলাহি আয়োজন করেন। মকর সংক্রান্তির জামাই আদরের পর বিয়ের আয়োজন দেখেও অবাক ওই যুবক।
তথ্যসূত্র: সংবাদ প্রতিদিন

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ