মেয়ের শ্লীলতাহানীর প্রতিবাদ করাই বাবাকে হাতুড়ি পেটা, ৩ জন গ্রেপ্তার

আপডেট: আগস্ট ১৮, ২০২২, ১১:০২ অপরাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক :


মেয়ের শ্লীলতাহানীর প্রতিবাদ করায় পিতাকে হাতুড়ি পেটার অভিযোগে তিনজনকে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব। বুধবার (১৭ আগস্ট) দিবাগত রাত ২ টার দিকে রাজশাহী মহানগরীর মতিহার থানাধীন মেহেরচন্ডী পূর্বপাড়া গ্রামস্থ এলাকায় অপারেশন পরিচালনা করে আসামিদের গ্রেপ্তার করা হয়।

আসামিরা হলো- ইউসূফ খানের ছেলে ইরফান খান ওরফে মিরাজ (২৩), মৃত ইনতাজ আলীর ছেলে ফরহাদ (২৭) ও মৃত ইনতাজ আলীর ছেলে আখের আলী (৩২)।

গত ১২ আগস্ট সন্ধ্যায় কলেজ ছাত্রীকে উত্ত্যক্তের প্রতিবাদ করায় বাবা নীলমাধব সাহাকে হাতুড়িপেটা করে মাথা ফাটিয়ে দেয়ার অভিযোগ উঠে ছাত্রলীগ নেতা মহানগর ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি রুহুল আমিন প্রিন্স, ছাত্রলীগ কর্মী ফরহাদ, মেরাজ, রায়হান, মামুন ও তাদের সহযোগী আখেরসহ কয়েকজনের বিরুদ্ধে।

র‌্যাব সূত্রে জানা যায়, রাণী সাহা নামক এক কলেজ ছাত্রীকে উত্ত্যক্ত করার প্রতিবাদ করায় তার পিতা শ্রী নীলমাধব শাহাকে হত্যার উদ্দেশ্যে হাতুড়ি দিয়ে মাথায় আঘাত করে রক্তাক্ত করে। তার স্ত্রী বন্দনা রাণী সাহা (৩৫) কেউ মারপিঠ করে। রাজশাহী মহানগরীর মতিহার থানাধীন রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় রেলওয়ে স্টেশন এলাকায় ১২ আগস্ট সন্ধ্যা সাড়ে ৭ টার দিকে এই ঘটনা ঘটে।

এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে শ্রী নীলমাধব শাহা ও তাহার মেয়ে রাণী সাহা বিচার চেয়ে বুধবার সকালে রাজশাহী সাংবাদিক ইউনিয়নে সংবাদ সম্মেলন করে। পরে রাজশাহী রেলওয়ে থানায় মামলা করা হয়। এরই প্রেক্ষিতে পুলিশের পাশাপাশি র‌্যাবও অভিযান পরিচালনা করে আসামিদের গ্রেপ্তার করে।

এদিকে, ওই ছাত্রীকে উত্ত্যক্ত ও তার বাবাকে আঘাত করার ঘটনাটি সাজানো বলে দাবি করেছেন অভিযুক্ত ফরহাদের স্ত্রী। বৃহস্পতিবার (১৮ আগস্ট) সকালে রাজশাহীর একটি রেস্তোরাঁয় সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব দাবি করেন।

তিনি বলেন, ইমন নামের এক ছেলের সঙ্গে প্রিন্সের দ্বন্দ্ব আগে থেকে। তারপর থেকে ইমন পলাতক। হঠাৎ রাজশাহী বিশ্ব বিদ্যালয়ের স্টেশনে নীল মাধবসহ ইমন আসলে প্রিন্সের সঙ্গে তাদের বাকবিত-া ও ধাক্কাধাক্কি হয়। তখন নীল মাধব পড়ে তার মাথা ফেটে যায়। কিন্তু তারা এ ঘটনাকে ভিন্নভাবে উপস্থাপন করেছে। নীল মাধবের মেয়েকে কেউ উত্ত্যক্ত করে নি।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ