মোদির যে চিঠি হৃদয় ছুঁয়েছে প্রণবের

আপডেট: আগস্ট ৪, ২০১৭, ১:২৮ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক


ভারতের সদ্য সাবেক রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখোপাধ্যায়। রাইসিনার রাষ্ট্রপতি ভবনে এখন তার উত্তরসূরি রামনাথ কোবিন্দ। বাংলোতে দিন কাটাচ্ছেন ভারতের প্রথম বাঙালি রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখোপাধ্যায়। পেছনে ফেলে এসেছেন প্রায় অর্ধ শতকের রাজনৈতিক-প্রশাসনিক ব্যস্ততা। ডুবে আছেন কর্মমুখর বর্ণাঢ্য রাজনৈতিক জীবনের স্মৃতির পাতায়। আর তাতে ডুব দিতে গিয়েই তাকে স্পর্শ করল এক চিঠি যা মাত্র কয়েকদিন আগে রাষ্ট্রপতি হিসেবে নিজের শেষ কর্মদিবসে পেয়েছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র দামোদরদাস মোদির কাছ থেকে। টুইটারে সেই চিঠির ছবি পোস্ট করে ‘সিটিজেন মুখার্জ্জী’ জানিয়েছেন যে, এই চিঠি তার হৃদয় স্পর্শ করেছে। কিন্তু কি এমন লিখলেন মোদি যা এমনভাবে ছুঁয়ে গেল পোড় খাওয়া রাজনীতিক প্রণব মুখোপাধ্যায়কে? আসুন, পড়া যাক সেই চিঠি:
প্রিয় প্রণব দা’,
আপনি জীবনের এক নতুন অধ্যায়ে প্রবেশ করতে চলেছেন। এমন মুহূর্তে জাতির জন্য আপনার যা অবদান এবং বিশেষ করে ভারতের রাষ্ট্রপতি হিসেবে গত পাঁচ বছরে আপনার কাজকে মনে রেখে আমি আপনাকে অন্তর থেকে শ্রদ্ধা ও মুগ্ধতা জানাচ্ছি। আপনার চরিত্রের সারল্য, সুউচ্চ নৈতিকতা এবং উদাহরণযোগ্য নেতৃত্ব দানের ক্ষমতা আমাদের সবার কাছে অনুপ্রেরণার।
আজ থেকে ঠিক তিন বছর আগে আমি এক বহিরাগত হিসেবে দিল্লিতে এসে হাজির হই। আমরা সামনে তখন স্তূপাকৃতি কাজ আর চ্যালেঞ্জ। আর সেই সময় আপনি পিতৃসুলভ স্নেহে আমাকে পথ দেখান। আপনার পা-িত্য, অভিভাবকত্ব এবং উষ্ণ আন্তরিকতা আমাকে অনেকটাই শক্তিশালী ও প্রত্যয়ী করে তোলে।
আপনার পা-িত্য সুবিদিত। রাজনীতি থেকে রাষ্ট্রনীতি, পররাষ্ট্রনীতি থেকে অর্থনীতি এবং সুরক্ষাসহ বিভিন্ন জাতীয় ও আন্তর্জাতিক বিষয়ে আপনার জ্ঞান আমাকে মুগ্ধ করেছে। আপনার বুদ্ধিমত্তা এবং অভিজ্ঞতা আমার সরকারকে সবসময়ই সাহায্য করেছে।
আপনার স্নেহ ও উষ্ণ আন্তরিকতার কথা আর কি বলব। দীর্ঘ বৈঠক বা প্রচারে ব্যস্ত থাকায় যখন খুবই ক্লান্ত, সে সময় আপনার একটি ফোনকল, “আশা করি আপনি স্বাস্থ্যের দিকে নজর রাখছেন” মুহূর্তে আমার সব ক্লান্তি ধুয়ে দিত।
প্রণব দা’, আমাদের রাজনৈতিক জীবন আকার পেয়েছে ভিন্ন ভিন্ন দলে। আমাদের আদর্শ ও বিশ্বাসও বিভিন্ন সময়ে আলাদা। আমাদের জীবনও কেটেছে ভিন্নভাবে-আমি যেমন রাজ্য রাজনীতি থেকে শুরু করেছি, আপনি তেমন দশকের পর দশক ব্যাস্ত থেকেছেন জাতীয় রাজনীতি ও রাষ্ট্রনীতি নিয়ে। কিন্তু তবু আপনার জ্ঞান ও বুদ্ধিমত্তার জন্যই আমরা ভিন্ন ধারার হয়েও সফলভাবে একসঙ্গে কাজ করেছি।
দীর্ঘ রাজনৈতিক জীবনে এবং রাষ্ট্রপতির মেয়াদকালে আপনি সবকিছুর ওপরে স্থান দিয়েছেন রাষ্ট্রের কল্যাণ সাধনকে। রাষ্ট্রপতি ভবনের দরজা আপনি খুলে দিয়েছেন আমজনতার জন্য। আর এভাবেই উঠে এসেছে এবং স্বীকৃতি পেয়েছে দেশের একাধিক মেধা।
আপনি সেই প্রজন্মের নেতা যারা সত্যিই নিঃস্বার্থভাবে সমাজের জন্য কাজ করেছেন। সব ভারতীয়দের জন্য আপনি চিরকাল অনুপ্রেরণার সুবিশাল উৎস হয়ে থাকবেন। এমন একজন বিনয়ী জনসেবক ও ব্যাতিক্রমী নেতার জন্য ভারত গর্বিত।
আপনার ফেলে আসা কর্মকা- আমাদের পথ দেখাবে। সবাইকে একসঙ্গে নিয়ে চলার যে উচ্চ গণতান্ত্রিক বোধ আপনি দশকের পর দশক ধরে তৈরি করেছেন তা আমাদের শক্তি যোগাবে। তাই, জীবনের এই নবপর্যায়ে আপনার প্রবেশ এবং ভবিষ্যতের কর্মকা-ের জন্য অন্তর থেকে রইলো শুভেচ্ছা। আপনার দেওয়া সমর্থন, অনুপ্রেরণা এবং অভিভাবকত্বের জন্য আরও একবার কৃতজ্ঞাতা জানাতে চাই। পার্লামেন্টে দেওয়া আপনার শেষ ভাষণে আমার সম্পর্কে অত্যন্ত ভালো কথা বলার জন্যও আপনাকে অশেষ ধন্যবাদ।
রাষ্ট্রপতি জী, এটা আপনার প্রধানমন্ত্রীর তরফ থেকে আপনার প্রতি সম্মান জ্ঞাপন। জয় হিন্দ।
নরেন্দ্র মোদি।
বাস্তবে যেমন বাঙালি সংস্কৃতি মেনে প্রণব মুখোপাধ্যায়কে তিনি ‘প্রণব দা” সম্বোধন করেন, তেমনই চিঠিতেও আগাগোড়া সেই একই ডাক গোটা বিষয়টিকে আরও আন্তরিক করে তুলেছে।
এই চিঠি প্রণব মুখোপাধ্যায় টুইটারে পোস্ট করায় নরেন্দ্র মোদিও টুইট করে পুনরায় জানিয়েছেন, “আপনার সঙ্গে কাজ করার অভিজ্ঞতা আমি চিরদিন উপভোগ করবো”। সূত্র: জি নিউজ।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ