মৌসুমে চাঁপাইনবাবগঞ্জে আমনের আবাদে ব্যস্ত কৃষক

আপডেট: জুলাই ৩০, ২০২১, ৫:৪৭ অপরাহ্ণ

চাঁপাইনবাবগঞ্জ প্রতিনিধি :


চলছে রোপা-আমনের ভরা মৌসুম। চাঁপাইনবাবগঞ্জের বরেন্দ্রঅঞ্চলসহ বিভিন্ন অঞ্চলে এবার তুলনামূলক বৃষ্টি বেশি হয়েছে। রোপা আমনের মৌসুমে পর্যাপ্ত বৃষ্টি স্বস্তি এসেছে কৃষকের মাঝে। ফলে চলছে রোপা আমন চাষ। পানির অভাব না থাকায় চাঁপাইনবাবগঞ্জে কৃষকরা রোপা-আমনের আবাদ নিয়ে ব্যস্ত সময় পার করছেন। তবে কৃষি বিভাগ বলছে, বৃষ্টিপাত সময়মত হওয়ায় কৃষকরা পুরো শ্রাবণ মাস পর্যন্ত আমনের আবাদ করতে পারবে। ইতোমধ্যে ৭০ ভাগ জমিতে আমন ধান রোপনের কাজ শেষ করেছে কৃষক। কৃষি বিভাগ এবারও আমনের ভাল ফলনের আশা করছে।
জানা গেছে, জেলার ৫টি উপজেলায় চলতি মৌসুমে ৫৩ হাজার ২০৫ হেক্টর জমিতে আমন ধান আবাদের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে। ইতোমধ্যে ৪১ হাজার ৫৮ হেক্টর জমিতে আমন চাষাবাদ হয়েছে। আমনের আবাদের জন্য এসময় প্রকৃতির বৃষ্টির দিকে তাকিয়ে থাকেন চাষিরা। এবার সময়মতো বৃষ্টি হওয়ায় আষাঢ়-শ্রাবণ মাসে জমিতে চাষাবাদ নিয়ে ভাবতে হয়নি কৃষকদের। আর এ সুযোগে বৃষ্টির পানিতে আমনের জমিতে চাষাবাদে ব্যস্ত সময় পার করছেন। আর পুরো শ্রাবণ মাস পর্যন্ত এবার আমন আবাদ করবে কৃষকরা। এবছর জেলায় আমন ধানের উৎপাদনের লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছে ২ লাখ ২০ হাজার ৫৭৭ মেট্রিক টন।
চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর উপজেলায় ৯ হাজার ৭শো হেক্টরের বিপরীতে ৯ হাজার ৮৩০ হেক্টর, নাচোলে ২৩ হাজার ১৫৫ হেক্টরের বিপরীতে ১৩ হাজার ১৫৫ হেক্টর, গোমস্তাপুরে ১৫ হাজার ৪৭০ হেক্টরের বিপরীতে ১১ হাজার ৭৭৩ হেক্টর, ভোলাহাটে ৪ হাজার ৪৪০ হেক্টরের বিপরীতে ৩ হাজার ৯১০ হেক্টর, শিবগঞ্জে ৩৯০ হেক্টরের বিপরীতে ৫৩৫ হেক্টর জমিতে চাষাবাদ হয়েছে। নেজামপুর ইউনিয়নের কেন্দুয়া এলাকার কৃষক দুলাল হোসেন জানান, মৌসুমের শুরু থেকেই বৃষ্টি হওয়ায় পুরো জমিতে চাষাবাদ করা হয়েছে। এবার গভীর ও অগভীর নলকূপ থেকে পানি ব্যবহার করা হয়নি।
জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক মো. নজরুল ইসলাম জানান, এ বছর রোপা আমন মৌসুমের শুরুতে পর্যাপ্ত পরিমাণ বৃষ্টিপাত হওয়ায়, কৃষকরা এবার পতিত জমিসহ আবাদি জমিতে কৃষকরা চাষাবাদ শুরু করেছেন। কোন ধরনের দুর্যোগ দেখা না দিলে চলতি মৌসুমে আমনের আশানুরূপ ফলন পেলে চাষিরা লাভবান হবে বলে মন্তব্য করেন তিনি। এ পর্যন্ত ৭০ ভাগ জমিতে আমন