ম্যাচ পাতানোর অভিযোগে ক্ষুব্ধ লঙ্কান ক্রিকেটাররা

আপডেট: সেপ্টেম্বর ২৪, ২০১৭, ১২:৩৫ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক


ম্যাচ ফিক্সিংয়ের অভিযোগ নিয়ে চটেছেন লঙ্কান ক্রিকেটাররা। ফাইল ছবি

ইদানীং শ্রীলঙ্কান ক্রিকেটে অভিযোগটা খুব শোনা যাচ্ছে। প্রথমে এই অভিযোগ ছিল ১৯৯৬ বিশ্বকাপজয়ী শ্রীলঙ্কান দলপতি অর্জুনা রানাতুঙ্গার। তিনি বলেছিলেন, ২০১১ বিশ্বকাপের ফাইনালটা নাকি ‘পাতানো’ ছিল। সম্প্রতি একই অভিযোগ করেছেন বিশ্বকাপজয়ী শ্রীলঙ্কান দলের আরেক সদস্য প্রমোদ্য বিক্রমাসিংহে।
বিক্রমাসিংহের অভিযোগটা বেজায় চটিয়ে দিয়েছে লঙ্কান ক্রিকেটারদের। তাঁরা এখন ব্যাপারটির সুরাহা চান। তাঁরা চান ঢালাও অভিযোগ না করে পুরো ব্যাপারটির তদন্ত করা হোক।
গত শুক্রবার তদন্তের দাবি নিয়ে শ্রীলঙ্কা ক্রিকেটের কার্যালয়ে হাজির হয়েছিলেন লঙ্কান জাতীয় দলের ক্রিকেটাররা। ম্যাচ পাতানোসংক্রান্ত যাবতীয় অভিযোগের ব্যাপারে তদন্ত চেয়ে একটা আরজি জমা দিয়েছেন তাঁরা। সেখানে সই করেছেন অ্যাঞ্জেলো ম্যাথুস, দিনেশ চান্ডিমাল, উপুল থারাঙ্গাসহ জাতীয় দলের সব ক্রিকেটার।
আরজিতে বলা হয়েছে, ‘বিক্রমাসিংহে যে অভিযোগ করেছেন, সেটা খেলোয়াড়দের জন্য অবমাননাকর ও বেদনাদায়ক। এই ধরনের অভিযোগে সাধারণ মানুষের কাছে জাতীয় দলের ক্রিকেটারদের ব্যাপারে সন্দেহের জন্ম দিতে পারে।’
শ্রীলঙ্কার সাবেক পেসার বিক্রমাসিংহে একটি বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেলে দেওয়া সাক্ষাৎকারে বলেছেন, শ্রীলঙ্কান ক্রিকেট দলের কয়েকজন খেলোয়াড় নাকি অর্থের বিনিময়ে ম্যাচ পাতানোর সঙ্গে জড়িয়ে পড়েছেন।
এমনিতেই লঙ্কান ক্রিকেট যথেষ্ট বাজে সময়ের মধ্য দিয়ে যাচ্ছে। গত মার্চে বাংলাদেশের বিপক্ষে দেশের মাটিতে টেস্ট হেরেছে শ্রীলঙ্কা। তিন সংস্করণের প্রতিটি সিরিজই শেষ হয়েছে অমীমাংসিতভাবে। জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে তো শ্রীলঙ্কান দলের অবস্থা ছিল আরও বাজে। একটি টেস্টে হারের পাশাপাশি ওয়ানডে সিরিজও খুইয়ে বসে ম্যাথুসের দল। সম্প্রতি ভারতের সঙ্গে হেরেছে টানা নয় ম্যাচ। এমন একটা সময় বিক্রমাসিংহের ম্যাচ পাতানোর অভিযোগ লঙ্কান ক্রিকেটকে করে তুলেছে আরও বেশি অস্থির। সূত্র: জি নিউজ।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ