ম্যালঅয়্যার থেকে বাঁচার জন্য শুধুমাত্র অ্যান্টিভাইরাস সফটঅয়্যার যথেষ্ট নয়

আপডেট: আগস্ট ৭, ২০২২, ১২:১১ পূর্বাহ্ণ


এ.এস.এম. শাহরিয়ার জাহান, তথ্য-প্রযুক্তিবিদ:


ইতিপূর্বে যেমন বলেছি একটি অ্যান্টিভাইরাস সফটঅয়্যার ব্যবহার করলেই তা সকল সমস্যার সমাধান নয়। পৃথিবীতে প্রতিনিয়ত নতুন নতুন নিরাপত্তা ঝুঁকি তৈরি হচ্ছে। যেমন অ্যান্টিভাইরাস সফটঅয়্যার থাকার পরেও একজন ব্যবহারকারী ম্যালঅয়্যারের দ্বারা আক্রান্ত হতে পারে। এজন্য শুধুমাত্র অ্যান্টিভাইরাস সফটঅয়্যার ইন্সটল করাই নয় বরং ম্যালঅয়্যার থেকে নিরাপদ থাকতে আরও বেশি সতর্কতা অবলম্বন করা প্রয়োজন।

ম্যালঅয়্যার ছড়িয়ে পড়ার অন্যতম মাধ্যম হচ্ছে ফিশিং ও স্প্যাম ইমেইল। এই ধরনের ইমেইলগুলিকে ব্লক করতে সাহায্য করার জন্য একটি ইমেল ক্লায়েন্ট ব্যবহার করা যেতে পারে। তাছাড়া আরও শক্তভাবে স্প্যাম ফিল্টার করা যেতে পারে। আর সর্বোপরি অচেনা ইমেল অ্যাকাউন্ট থেকে আসা কোন সন্দেহজনক অ্যাটাচমেন্ট ও লিংকে ক্লিক করবেন না।

ভাল, স্মার্ট অর্থ এনক্রিপ্ট করা ইমেইল সার্ভিস ব্যবহার করা আরও একটি ভালো উপায়। যেমন ProtonMail| Gmail, Outlook-এসব ইমেইল পরিসেবা বিজ্ঞাপন প্রদর্শন করে, অর্থাৎ যেকোন ধরণের ক্ষতিকারক মেইল এই বিজ্ঞাপনের আড়ালে আপনার ইনবক্সে চলে আসতে পারে।

ইমেল ছাড়াও অনলাইন নিরাপত্তার হুমকির বেশিরভাগ সমস্যা আপনার ব্রাউজারের মাধ্যমে আসে। অতএব আপনি নিয়মিত আপডেট হয় এমন একটি ব্রাউজার ব্যবহার করছেন তা নিশ্চিত করা অত্যাবশ্যক৷ যেমন মোজিলা ফায়ারফক্স নির্ভরযোগ্য ব্রাউজারের একটি ভালো উদাহরণ যা ক্রমাগত আপডেট করা হয়। এছাড়াও ব্রাউজার এক্সটেনশন ব্যবহার করার ব্যপারেও একইভাবে সচেতন হওয়া প্রয়োজন।

এছাড়া যে কোন সন্দেহজনক লিংকে ক্লিক করার পূর্বে সেটি নিরাপদ কিনা তা লিংক চেকার টুল দ্বারা চেক করে নিন। আর অনলাইনে ব্রাউজ করার সময় প্রক্সি সার্ভার বা VPN এর মাধ্যমে ওয়েব ব্রাউজ করতে পারেন। এই অনুশীলনগুলো অ্যান্টিভাইরাস সফটঅয়্যারের পাশাপাশি আপনার বারতি নিরাপত্তা নিশ্চিত করবে।