‘যুক্তরাষ্ট্রের সহযোগিতা প্রয়োজন নেই ফিলিপাইনের’

আপডেট: অক্টোবর ৭, ২০১৬, ১১:১৬ অপরাহ্ণ

11. Philipaine
সোনার দেশ ডেস্ক
ফিলিপাইনের সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্রের সম্পর্কের ক্রমাবনতি ঘটছে। দেশটির প্রেসিডেন্ট রদ্রিগো দুতের্তের পর এবার প্রতিরক্ষামন্ত্রী ডেলফিন লরেঞ্জানা বলেছেন, যুক্তরাষ্ট্র তাদের সহযোগিতা বন্ধ করে দিলে ফিলিপাইনের সেনাবাহিনীর কোনো সমস্যা হবে না।
শুক্রবার সাংবাদিকদের এ কথা বলেন লরেঞ্জানা।
এর আগে গত বুধবার প্রেসিডেন্ট দুতের্তে বলেছিলেন, যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে ফিলিপাইনের যৌথ মহড়া আর হবে না। কারণ এর মাধ্যমে ফিলিপাইনের কোনো উপকার হচ্ছে না। প্রতিরক্ষামন্ত্রী ডেলফিন লরেঞ্জানা অবশ্য ওই সময় বলেছিলেন দুতের্তেকে এ বিষয়ে ভুল তথ্য দেয়া হয়েছে।
শুক্রবার নিজের আগের অবস্থান পরিবর্তন করে লরেঞ্জানা বলেন, তার দেশ রাশিয়া ও চিন থেকে সমরাস্ত্র কিনতে ইচ্ছুক। এ ব্যাপারে সামরিক বাহিনীর কোনো আপত্তি নেই।
তিনি বলেন, ‘যুক্তরাষ্ট্রের সামরিক সহযোগিতার খুব বেশি একটা মূল্য নেই। যুক্তরাষ্ট্র সহযোগিতা প্রত্যাখান করলে কংগ্রেসের কাছ থেকে সেনাবাহিনী ৫০ থেকে ১০০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার ঘাটতির বিষয়টি জানাতে পারে। আমরা এটা ছাড়াও চলতে পারি।’
প্রসঙ্গত, মাদকের বিরুদ্ধে দুতের্তে যে অভিযান চালাচ্ছে তার ব্যাপক সমালোচনা করেছে যুক্তরাষ্ট্র। এছাড়া দুতের্তে নির্বাচিত হওয়ার আগে তার সম্পর্কে নেতিবাচক মন্তব্য করেছিল ফিলিপাইনে নিযুক্ত মার্কিন রাষ্ট্রদূত। এ ঘটনায় ক্ষুব্ধ দুতের্তে গত আগস্ট থেকে যুক্তরাষ্ট্রের বিরুদ্ধে তীর্যক মন্তব্য করতে শুরু করেন। এমনকি গত মাসে মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামাকে ‘বেশ্যাপুত্র’ বলেও সম্বোধন করেছেন তিনি।- রাইজিংবিডি