যুক্তরাষ্ট্রে শ্বেতাঙ্গ কমছে, জনসংখ্যা বাড়ছে সংখ্যালঘুদের মাধ্যমে

আপডেট: July 6, 2020, 2:07 pm

সোনার দেশ ডেস্ক:


গত এক দশকে প্রথমবারের মতো যুক্তরাষ্ট্রে কমেছে শ্বেতাঙ্গদের সংখ্যা, বিপরীতে অনেকটাই বেড়েছে অশ্বেতাঙ্গ বা সংখ্যালঘুদের সংখ্যা। বর্তমানে জনসংখ্যা বৃদ্ধির জন্য পুরোপুরিই অশ্বেতাঙ্গদের ওপর নির্ভরশীল হয়ে পড়েছে দেশটি। সম্প্রতি মার্কিন গবেষণা সংস্থা ব্রুকিংস ইনস্টিটিউশনের এক বিশ্লেষণে উঠে এসেছে এ তথ্য।
যুক্তরাষ্ট্রের আদমশুমারি ব্যুরো প্রকাশিত তথ্যে দেখা গেছে, দেশটিতে গত ১০ বছরে জনসংখ্যা বেড়েছে ১ কোটি ৯৫ লাখ, অর্থাৎ প্রায় ৬ দশমিক ৩ শতাংশ।
প্রথমবারের মতো যুক্তরাষ্ট্রের ৫০ শতাংশেরও বেশি অনূর্ধ্ব ১৬ বছর বয়সী মানুষ কোনও না কোনও জাতিগত সংখ্যালঘু গ্রুপের সদস্য।
১৯৮০ সালে যুক্তরাষ্ট্রের ৮০ শতাংশ মানুষই ছিল শ্বেতাঙ্গ; ২০০০ সালে এর পরিমাণ কমে দাঁড়ায় ৬৯ দশমিক ১ শতাংশ। আর বর্তমানে এর হার নেমে এসেছে ৬০ দশমিক ১ শতাংশে।
২০১০ থেকে ২০১৯ সালের মধ্যে ল্যাটিনো বা হিস্পানিকদের সংখ্যা বেড়েছে ২০ শতাংশ বা প্রায় এক কোটি; এশিয়ান-আমেরিকান বেড়েছে ২৯ শতাংশ বা প্রায় ৪৩ লাখ এবং কৃষ্ণাঙ্গদের সংখ্যা বেড়েছে ৮ দশমিক ৫ শতাংশ বা ৩২ লাখ।
বিশ্লেষণে দেখা গেছে, বর্তমানে প্রতি ১০ জন মার্কিন নাগরিকের মধ্যে প্রায় চারজনই জাতিগত সংখ্যালঘু। নিউইয়র্ক, লস অ্যাঞ্জেলস ও মিয়ামির মতো শহরগুলোতে এখন শ্বেতাঙ্গরাই সংখ্যালঘু হয়ে উঠেছে।
তথ্যসূত্র: জাগোনিউজ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ