যে কোনও টার্গেটে জেতার বিশ্বাস অ্যাগারের

আপডেট: আগস্ট ২৯, ২০১৭, ১২:৪৫ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক


সৌম্যকে ফেরানোর উল্লাস করছেন অ্যাগার

১৪৪ রানের মধ্যে প্রতিষ্ঠিত ৮ অস্ট্রেলিয়ান ব্যাটসম্যান বাংলাদেশের স্পিন ফাঁদে ধরা দিলেন। এর পর প্যাট কামিন্সকে নিয়ে শক্ত প্রতিরোধ গড়লেন অ্যাস্টন অ্যাগার। ২০১৩ সালের ইংল্যান্ডের বিপক্ষে অ্যাশেজ সিরিজে ১১৪ রানে ৮ উইকেট হারানোর পর ফিল হিউজেসকে নিয়ে গড়া দুর্দান্ত জুটির পুনরাবৃত্তি করতেই হয়তো চেয়েছিলেন তিনি। কিন্তু পারেন নি অন্য প্রান্তের ব্যাটসম্যানদের অসহযোগিতার অভাবে। বাংলাদেশের চেয়ে ৪৩ রানে পিছিয়ে থেকে অলআউট হয় অস্ট্রেলিয়া। এখন স্বাগতিকরা লিডকে বেশ বড় করার লক্ষ্যে খেলছে, ৮৮ রানে এগিয়ে থেকে তৃতীয় দিন খেলতে নামবে তারা। তবে অ্যাগারের বিশ্বাস, যে কোনও টার্গেটে সফল হবে তার দল।
কামিন্সের সঙ্গে এদিন ৪৯ রানের জুটি গড়েন অ্যাগার। কিন্তু চা বিরতির পর সাকিব আল হাসানের কাছে ভাঙে এ জুটি। শেষ ব্যাটসম্যান জশ হ্যাজেলউডও উইকেট হারান বাংলাদেশি অলরাউন্ডারের বলে। দলকে দাঁড় করানোর চেষ্টায় লড়তে থাকা অ্যাগার অপরাজিত ছিলেন ৪১ রানে। ২১৭ রানে প্রথম ইনিংসে গুটিয়ে যায় অজিরা। অবশ্য দলের লড়াইয়ে খুশি অ্যাগার, ‘আমরা ইতিবাচক আছি। আজ (সোমবার) আমরা দারুণ লড়াই করেছি। এ উইকেটে যে কোনও কিছু হয়। আজ দেখতে পেলেন যে, কয়েকটি বল উঁচুতে উঠছে। আমরা আত্মবিশ্বাসী কাল (মঙ্গলবার) তাদের তাড়াতাড়ি গুটিয়ে দিতে পারব।’
পিচের আচরণ দেখে সাচ্ছন্দ্যবোধ করছেন শেষ সেশনে সৌম্য সরকারকে আউট করা অ্যাগার। স্পিনাররা তৃতীয় দিন ভালো সুবিধা পাবে বিশ্বাস তার। এজন্য দলকে ধৈর্য্য ধরতে বলছেন এ স্পিনার। প্রতিপক্ষকে দ্রুত অলআউট করা এখন অস্ট্রেলিয়ান বোলারদের মূল দায়িত্ব। এর পর ছুটতে হবে টার্গেটের পেছনে। অ্যাগারের বিশ্বাস, যে কোনও রানকে তাড়া করতে সফল হবে তারা। তিনি বলেছেন, ‘আমি বিশ্বাস করি যে কোনও টার্গেট আমরা সফলভাবে তাড়া করতে পারব। কারণ আমার মনে হয় আমরা কাল তাদের খুব তাড়াতাড়ি অলআউট করতে পারব। উইকেট দেখে মনে হচ্ছে এখানে ব্যাটসম্যানদের জন্য কঠিন পরিস্থিতি তৈরি হবে। কিন্তু আমি নিশ্চিত আমাদের ব্যাটসম্যানরা প্রথম ইনিংস থেকে শিক্ষা নেবে।’-বাংলা ট্রিবিউন