যে দেশগুলিতে অতিমারি ছড়ায়নি সেখানে মাঙ্কিপক্স নিয়ন্ত্রণ সম্ভব, জানাল বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা

আপডেট: মে ২৪, ২০২২, ২:৪০ অপরাহ্ণ

এখনও পর্যন্ত একশোর বেশি মানুষ মাঙ্কিপক্সে আক্রান্ত হয়েছেন।

সোনার দেশ ডেস্ক :


অতিমারিতে আক্রান্ত নয় এরকম দেশগুলিতে মাঙ্কিপক্সের প্রাদুর্ভাব নিয়ন্ত্রণ করা যেতে পারে। পাশাপাশি এই দেশগুলিতে এক মানুষ থেকে অন্য মানুষে ভাইরাসের সংক্রমণও রোধ করা সম্ভব। সোমবার এমনটাই জানাল বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (হু)।

হু’র তরফে চলা মাঙ্কিপক্স নিয়ে গবেষণার নেতৃত্বে থাকা মারিয়া ভ্যান কেরখোভ জানিয়েছেন, এখনও পর্যন্ত একশোর বেশি মানুষ মাঙ্কিপক্সে আক্রান্ত হয়েছেন।

মারিয়া বলেন, ‘‘আমরা পরিস্থিতি সম্পর্কে ধারণা করতে পারছি। মূলত ইউরোপ এবং উত্তর আমেরিকার দেশগুলিতে মাঙ্কিপক্স ছড়িয়ে পড়েছে। আমরা এক মানুষ থেকে অন্য মানুষে সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়া রোধ করতে চাই।

অতিমারিতে আক্রান্ত নয় এমন দেশগুলিতে এটি করা সম্ভব। আমরা এমন পরিস্থিতিতে আছি যেখানে আমরা প্রাথমিক ভাবে এই রোগ সনাক্ত করে আক্রান্তদের বিচ্ছিন্নবাসে পাঠাতে পারি।’’

তিনি আরও জানান, এক জন অন্য জনের ঘনিষ্ঠ সংস্পর্শে এলে, বিশেষ করে ত্বকের সংস্পর্শে এলে এই রোগ ছড়িয়ে পড়ে। এছাড়াও এখনও পর্যন্ত যাঁরা মাঙ্কিপক্সে আক্রান্ত হয়েছেন, তাঁদের অতীতে কোনও অন্য কঠিন রোগে আক্রান্ত হওয়ার ইতিহাস নেই বলেও তিনি জানিয়েছেন।

হু’র স্মলপক্স নিয়ে চলা গবেষণার দায়িত্বে থাকা রোসামুন্ড লুইস জানিয়েছেন, মাঙ্কিপক্স প্রায় ৪০ বছর ধরে মানুষের কাছে পরিচিত।

গত পাঁচ বছরে ইউরোপ থেকে অতিমারি এলাকাগুলিতে ঘুরতে যাওয়া মানুষদের মধ্যে বেশ কিছুজন আগেও মাঙ্কিপক্সে আক্রান্ত হয়েছেন। কিন্তু তা তখনও এত উদ্বেগ বাড়ায়নি।
তথ্যসূত্র: আনন্দবাজার পত্রিকা

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ