যৌন নিপীড়নের অভিযোগ নিয়ে মুখ খুললেন ইমরান খান

আপডেট: আগস্ট ৫, ২০১৭, ১২:৪৭ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক


যৌন নিপীড়নের অভিযোগ প্রশ্নে নীরবতা ভেঙেছেন পাকিস্তানের সাবেক ক্রিকেটার ও পিটিআই (পাকিস্তান তেহরিক ই ইনসাফ) নেতা  ইমরান খান।  মঙ্গলবার ইমরান ছাড়াও পিটিআই-এর অন্য নেতাদের বিরুদ্ধে যৌন নিপীড়নের অভিযোগ তোলেন ওই দলের সাবেক নেত্রী আয়েশা গুলালাই । অভিযোগকে ‘গুজব’ আখ্যা দিয়েছেন ইমরান। তিনি দাবি করেছেন, এই অভিযোগের নেপথ্যে নওয়াজ শরিফ পরিবারের হাত রয়েছে।
গুলালাইয়ের অভিযোগ, ইমরান ও দলের অন্য নেতারা নারী কর্মীদের ফোনে যৌন নিপীড়নমূলক শব্দ ব্যবহার করে টেক্সট পাঠাতেন। তিনি আরও অভিযোগ করেছেন, ইমরান খান দলের নারী নেত্রীদের অমর্যাদা করতেন। ইমরানকে ‘চরিত্রহীন’ বলেও অভিহিত করেন তিনি। অবশ্য, অভিযোগ নাকচ করে দিয়ে পিটিআই বলছে আসন্ন সাধারণ নির্বাচনে টিকেট না পাওয়ায় মিথ্যা রটনার আশ্রয় নিচ্ছেন আয়েশা গুলালাই।
টুইটারে নিজের বিক্ষোভ সংক্রান্ত প্রচারণা করতে গিয়ে ইমরান বলেন, নওয়াজের মুসলিম লীগ তাকে ‘অযোগ্য’ বানানো এবং তার বিরদ্ধে যৌন নিপীড়নের অভিযোগ তুলে ব্যর্থ হয়েছে। এরপর তারা যা তা করছে। পরে এক সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন, নিজেদের দুর্নীতি আড়াল করতেই এসব করছে নওয়াজ পরিবার।
অভিযোগ উত্থাপনের একদিনের মাথায় দল থেকে বহিষ্কার করা হয় এমএনএ আয়েশা গুলালাইকে। একই সঙ্গে দেশটির জাতীয় পরিষদের আসন থেকে গুলালাইকে পদত্যাগ করতে বলা হয়। গুলালাইকে দেওয়া কারণ দর্শানোর নোটিশে দলটির পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, পিটিআইয়ের শৃঙ্খলাবিরোধী কর্মকা- ও আচরণ করেছেন তিনি। দলের প্রধানের বিরুদ্ধে ভিত্তিহীন ও গুরুতর অভিযোগ তুলেছেন। দল মনোনীত প্রধানমন্ত্রী প্রার্থীকে ভোট দেওয়া থেকেও বিরত থেকেছেন গুলালাই।
এদিকে পিটিআই-এর সাবেক এমপি আয়েশা গুলালাই’র যৌন হয়রানির অভিযোগের প্রেক্ষিতে দলটির নেতা ইমরান খানের বিরুদ্ধে তদন্ত শুরুর দাবি জানিয়েছেন পিএমএলএন নেতা হানিফ আব্বাসি। বুধবার (২ আগস্ট) সুপ্রিমকোর্টের সামনে সাংবাদিকদের তিনি বলেন, সত্য বের করে আনতে এ নিয়ে স্বতঃপ্রণোদিত তদন্ত হওয়া প্রয়োজন। ইমরান খানকেও সংবাদ সম্মেলন করে জনগণের জবাবদিহিতার মুখোমুখি হওয়ার জন্য আহ্বান জানিয়েছেন হানিফ।
বুধবার পিএমএলএন নেতা হানিফ আব্বাসি বলেন, ইমরানের উচিত সংবাদ সম্মেলন করে জাতির কাছে ক্ষমা চাওয়া এবং নিজেকে জবাবদিহিতার মুখোমুখি করা। হানিফ আব্বাসি বলেন, ‘যখনই আমার বিরুদ্ধে কোনও অভিযোগ উঠেছে তখনই সত্য প্রকাশ করতে পাঁচ মিনিটের মধ্যে আমি সংবাদ সম্মেলন করেছি। ইমরান খান, আপনার বিরুদ্ধে গুরুতর অভিযোগ উঠেছে এবং আপনার এ নিয়ে রজ্জিত হওয়া উচিত। কিন্তু আপনি তা হচ্ছেন না। কারণ যে সমাজ থেকে আপনি এসেছেন সেখানে এ বিষয়গুলোকে লজ্জার বলে বিবেচনা করা হয় না। এ অভিযোগগুলো যদি তদন্ত না করা হয়, তাহলে আমরা বুঝে নেব ন্যায়বিচারের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে স্বতঃপ্রণোদিত তদন্ত হওয়া প্রয়োজন যেন সত্য প্রকাশ করা যায়।’
এদিকে ইমরান খানকে অযোগ্য ঘোষণার জন্য পাঞ্জাবের বিধানসভায় এক প্রস্তাব উত্থাপপন করেছেন পিএমএল-এন নেত্রী হিনা পারভেজ।-বাংলা ট্রিবিউন