যৌন নির্যাতনের ভয়াবহ তথ্য দিলেন আফগানিস্তানের সাবেক নারী মন্ত্রী

আপডেট: জানুয়ারি ১৮, ২০২২, ১:২৪ অপরাহ্ণ


সোনার দেশ ডেস্ক :


আফগানিস্তানের মার্কিন সমর্থিত সরকারের দুঃশাসনের অনেক চিত্রই অজানা থেকে গেছে। তবে এবার মুখ খুলতে শুরু করেছেন সেই সরকারের লোকজন।
নার্গিস নেহান নামের আশরাফ গনি সরকারের এক মন্ত্রী এবার যৌন নির্যাতনের অভিযোগ তুলেছেন।

ওই মন্ত্রী জানান, গনির খুব কাছের একজন উচ্চপদস্থ কর্মকর্তা সাদ মোহাম্মদ নিয়মিত যৌন হয়রানি করতেন এক শিয়া তরুণীকে।
আফগানিস্তানের দ্য খামা প্রেস জানিয়েছে, তালেবানের হাতে ক্ষমতাচ্যুত আশরাফ গনির সরকার সম্পর্কে নার্গিস নেহান বেশ কিছু চমকপ্রদ তথ্য দিয়েছেন।

সাদ মোহাম্মদ সম্পর্কে নার্গিস জানান, তিনি একজন শিয়া তরুণীকে নিজের স্ত্রী থাকা অবস্থাতেও বিয়ে করতে চেয়েছিলেন। কিন্তু ওই নারী রাজি না হওয়ায় তাকে ইরানের গুপ্তচর হিসেবে অভিযুক্ত করে চাকরিচ্যুত করার চেষ্টা করেন।

নার্গিস আরও জানিয়েছেন, আশরাফ গনি সাদ মোহাম্মদের কথায় ওই নারীকে অব্যাহতি দিয়েছিলেন। কিন্তু নার্গিস নিজে চেষ্টা করে ওই তরুণীকে অন্য বিভাগে বদলি করে দেন, যেন তার কোনো ক্ষতি না হয়।

নার্গিস আরেকটি ঘটনা সম্পর্কে জানান, সেটি হল প্রেসিডেন্টের বাসভবনে যৌন নির্যাতনের বিষয়ে কথা বলতে তিনিসহ মোট ৪৫ জন নারী গনির সঙ্গে দেখা করেন। কিন্তু তাদের কথাকে কোনো পাত্তা দেননি তৎকালীন প্রেসিডেন্ট আশরাফ গনি।

নার্গিসের দাবি, সাদ মোহাম্মদ ও তার সহযোগীদের বাঁচাতেই গনি এমনটি করেছিলেন। এছাড়া বেশ কয়েকজন দুর্নীতিবাজের নামও প্রকাশ করেছেন নেহান।

তিনি জানান, হুমায়ুন কওমি, মোহাম্মদ হানিফ ও ইলহাম গুল ছিলেন শীর্ষ দুর্নীতিবাজ। যারা সবাই প্রেসিডেন্টের ছত্রছায়ায় ছিলেন।
তথ্যসূত্র: বাংলানিউজ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ