রংপুরকে হারিয়ে তিনে চিটাগাং ভাইকিংস

আপডেট: নভেম্বর ২৭, ২০১৬, ১১:১৭ অপরাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক
প্রথম পর্বে নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচেই রংপুর রাইডার্সের মুখোমুখি হয়েছিল চিটাগাং ভাইকিংস। যদিও সেটি ছিল রংপুরের বিপিএলের প্রথম ম্যাচ। ওই ম্যাচে চিটাগাং ভাইকিংস প্রথমে ব্যাট করে সংগ্রহ করলো ১২৪ রান। জবাবে ৩০ বল হাতে রেখেই ৯ উইকেটে জয় তুলে নিলো রংপুর রাইডার্স।
সেই ম্যাচেরই কী দারুণ পূনরাবৃত্তি ঘটলো ফিরতি পর্বে এসে! এবার ভাইকিংসরা। অর্থাৎ এবার প্রথম ব্যাট করে রংপুর করলো ১২৪ রান। জবাবে ২৪ বল হাতে রেখে ৯ উইকেটেই ম্যাচ জিতে নিলো তামিম- গেইলরা।
মিরপুর শেরেবাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে টস জিতে ব্যাট করতে নেমে রানে ফিরতে মরিয়া সৌম্য সরকারের ব্যাটে ছিল স্বরূপে ফেরার আভাস। তবে মোহাম্মদ নবিকে চার-ছক্কা হাঁকিয়ে পরের ওভারেই ফিরে যান এই উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান (২৬)।
এরপর দলে হাল ধরেন মোহাম্মদ শাহজাদ ও মোহাম্মদ মিঠুন। তিন বলের মধ্যে এই দুই জনকে ফিরিয়ে দেন তাসকিন আহমেদ। জোড়া আঘাত সামলানোর আগেই নাঈম ইসলাম, শহিদ আফ্রিদি ও লিয়াম ডসনরা বদায় নিলে চাপে পড়ে রংপুর। শেষ দিকে আনোয়ার আলি ১৩ বলে ২০ করলে কোনোমতে ১২৪ সংগ্রহ করে রংপুর।
জবাবে ব্যাট করতে নেমে গেইল একটু দেখেশুনে ব্যাট করতে থাকলেও শুরু থেকেই বলারদের উপর চড়াও হয়ে খেলতে থাকে চিটাগাং দলপতি তামিম। এরপর ধীরে ধীরে গেইলও বোলারদের উপর চড়াও হতে থাকে। সোহাগ গাজীর শেষ ওভারের শেষ দুই বলে টানা দুটি ছক্কা হাঁকিয়ে উল্লাসে মাতান দর্শকদের। এরপর টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটের আরেক বিজ্ঞাপন শহিদ আফ্রিদির বলে টানা দুই বলে দুটি ছক্কা। যদিও এরপরের বলে আরও একটি ছক্কা হাঁকাতে গিয়ে আরেক পাকিস্তানি আনোয়ার আলির হাতে ধরা পড়েন তিনি। ব্যক্তিগত ২২ বলে ৪ ছয় ও ২ চারে সাজঘরে ফিরে বাঁহাতি এই ব্যাটসম্যান।
গেইল না পারলেও তামিম তুলে নেন চলতি আসরে নিজের তৃতীয় অর্ধশত। ৪৮ বলে ৯ চার ১ ছয়ে ৬২ রান করে অপরাজিত থেকে জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে তামিম। এছাড়া বিজয় করেন করেন ২২ রান।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ