রক্তের বন্ধনে অটুট বাঁধন

আপডেট: ফেব্রুয়ারি ২৬, ২০১৭, ১২:০৮ পূর্বাহ্ণ

আহমেদ ফরিদ



সম্পর্ক যখন রক্তের, বন্ধন তখন অটুট। ঠিক একইভাবে এরকম লক্ষাধিক কর্মীর বন্ধনের ফসল সেচ্ছায় রক্তদাতাদের সংগঠন বাঁধন। মানুষকে সেচ্ছায় রক্তদানে উৎসাহিত করার পাশাপাশি সেচ্ছাসেবী এই সংগঠন নানামুখী সামাজিক কর্মকা-ে জড়িত।
বাঁধন সূত্রে জানা যায়, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদুল্লাহ্ হল থেকে ১৯৯৭ সালে বাঁধনের যাত্রা শুরু হয়েছিল। বর্তমানে কেন্দ্রীয় পরিষদে প্রায় ৪৮টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে সাতটি জোন, স্বতন্ত্র ইউনিটসহ মোট ১১২টি ইউনিট। বাঁধনের নীতিমালায় প্রতিটি কমিটিতে ১৭জন সদস্য থাকেন। সেই হিসেবে বর্তমানে কমিটির সদস্য সংখ্যা দুই হাজারের বেশি। সারা দেশে ছড়িয়ে আছেন লক্ষাধিক কর্মী।
জানতে চাইলে বাঁধনের কেন্দ্রীয় পরিষদের সভাপতি মো. সাজ্জাদুর রহমান সরকার বলেন, ‘আগামীতে আমরা বাংলাদেশের প্রত্যেকটি জেলায় এর কার্যক্রমের বিস্তার ঘটানোর পরিকল্পনা নিয়েছি। এটি প্রতিষ্ঠার পর থেকে ২০১৫ সাল পর্যন্ত ১২.৩২ লাখ ব্যাগের বেশি রক্ত সরবরাহ করেছে এবং ৬.২৮ লাখ মানুষকে বিনামূল্যে রক্তের গ্রুপ জানিয়ে দিয়েছে। তাছাড়া পর্যায়ক্রমে দেশের সকল স্নাতক ও স্নাতকোত্তর প্রতিষ্ঠানে কার্যক্রম পরিচালনা করার প্রস্তুতি নিয়ে এগিয়ে যাচ্ছি।’
‘একের রক্ত অন্যের জীবন, রক্তই হোক আত্মার বাঁধন’ স্লোগানকে ধারণ করে অদম্য গতিতে এগিয়ে চলছে সংগঠনটি। সামাজিক এই সংগঠন দুস্থ ও অসহায়দের মাঝে রক্তদান করে থাকে। রক্তদানসহ শীতবস্ত্র বিতরণ, দুর্যোগে মানুষের পাশে দাড়ানোর পাশাপাশি নানা সামাজিক কর্মকা-ের সাথে বাঁধন জড়িত।
বাঁধনের সাতটি জোনের মধ্যে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় (রাবি) জোন অন্যতম। ২০০৪ সালে বাঁধনের রাবি জোন আনুষ্ঠানিক যাত্রা শুরু করে। ক্যাম্পাসে বাঁধনের ১৬ টি স্বতন্ত্র ইউনিট ও একটি পরিবার রয়েছে। গত ১০ ফেব্রুয়ারি শুক্রবার বাঁধন রাবি জোনের ১৩ তম কমিটি ঘোষণা করা হয়েছে। প্রতিটি ইউনিটে ১৭জন করে কার্যনির্বাহী সদস্য ঘোষণা করা হয়েছে। এইদিন বিকেলে বিশ্ববিদ্যালয়ের কাজী নজরুল ইসলাম মিলনায়তনে দায়িত্ব হস্তান্তর অনুষ্ঠানে ২০১৭ সালের জন্য নতুন কার্যনির্বাহী কমিটি ঘোষণা করা হয়। কমিটিতে সভাপতি হিসেবে আনিছুর রহমান ও সাধারণ সম্পাদক হিসেবে জুবায়ের আল মামুন মনোনিত হন।
এ কার্যনির্বাহী কমিটির অন্য সদস্যরা হলেন সহসভাপতি এসএম খালিদ সাইফুল্লাহ, ফারহানা হক সমাপ্তি, সহসাধারণ সম্পাদক শারমিন নাহার আঁখি, সাংগঠনিক সম্পাদক মো. সেলিম রেজা, সহসাংগঠনিক সম্পাদক আসাদুজ্জামান, কোষাধ্যক্ষ মো. নাজমুল হাসান, দফতর সম্পাদক  রনজিনা খাতুন রোজি প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক প্রশান্ত রায়, তথ্য ও শিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক আহসান রুবেল প্রমুখ।
সদ্যবিদায়ী সভাপতি আল-মামুনের সভাপতিত্বে এবং সাধারণ সম্পাদক শহিদুল ইসলামের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক মুহম্মদ মিজানউদ্দিন, বিশেষ অতিথি হিসেবে ছিলেন বাঁধনের উপদেষ্টা প্রফেসর আনন্দ কুমার সাহা, বাঁধনের কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক আলী আজম প্রমুখ।
বাঁধনের রাবি জোনের নবনির্বাচিত সভাপতি আনিছুর রহমান বলেন, ‘আমরা ২০১৬ সালে বিভিন্ন হল ইউনিটের মাধ্যমে মোট ১৮০২ ব্যাগ রক্ত এবং প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকে ‘১৬ সালের শেষ পর্যন্ত রাবি জোনের মাধ্যমে ২২, ৫১৩ ব্যাগ রক্ত সরবরাহ করেছি। আগামী দিনে ক্যাম্পাসের সকল শিক্ষার্থীর রক্তের গ্রুপ নির্ণয়ের পরিকল্পনা রয়েছে।’ ( লেখক : রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী)