রাজশাহীতে করোনার জাল সনদ! দোষিদের আইনের আওতায় আনতে হবে

আপডেট: আগস্ট ৫, ২০২০, ১২:১৩ পূর্বাহ্ণ

করোনাভাইরাস পরীক্ষার সনদ জালিয়াতির অভিযোগ রাজশাহীতেও। রাজধানী ঢাকাসহ দেশের আরো কয়েকটি শহরে এই অভিযোগ নিয়ে সারা দেশে যখন তোলপাড় অবস্থাÑ সেই মুহূতে রাজশাহী মেডিকেল কলেজের মাইক্রোবায়োলজি বিভাগের করোনা পরীক্ষার ল্যাবের সনদ জালিয়াতির অভিযোগ পাওয়া গেছে। ৩০ জুলাই একটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের এক কর্মচারী করোনা পজিটিভ সনদটি তার প্রতিষ্ঠানে জমা দিয়েছিলেন। পরে সেই সদনটি প্রতিষ্ঠানের পক্ষ থেকে যাচাই করার জন্য রামেকে পাঠানো হয়। এর পরেই কলেজ কর্তৃপক্ষ ধরে ফেলেন যে সনদটি জাল। তবে সনদধারী ওই কর্মচারী দাবি করেছেন তিনি প্রতারণার শিকার হয়েছেন।
দৈনিক সোনার দেশ পত্রিকায় প্রকাশিত প্রতিবেদনের তথ্য অনুযায়ী ওই কর্মচারীর নাম মমতাজ ইসলাম (২৬)। তিনি নগরীর হড়গ্রাম এলাকার বাসিন্দা। ঢাকায় একটি তৈরি পোশাক কারখানায় কাজ করেন। তাই তার প্রতিষ্ঠান থেকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজের ল্যাবে করোনা পজিটিভ সনদটি যাচাই করার জন্য পাঠানো হয়। সোমবার কলেজ কর্তৃপক্ষ সদনটি হাতে পায়। সেদিনই যাচাই করে দেখা গেছে সনদটি এই ল্যাব থেকে দেয়া হয়নি। মেডিকেল কলেজের মাইক্রোবায়োলজি বিভাগের ল্যাবের প্যাড নকল করে কলেজের সনদের আদলে অবিকল নকল সনদ তৈরি করা হয়েছে। এ ব্যাপারে রাজপাড়া থানায় অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।
করোনা পরীক্ষার সনদ জালিয়াতির ঘটনা দেশ জুড়ে ব্যাপক তোলপাড় করে। বিষয়টি দেশের মধ্যেই সীমাবদ্ধ থাকে নিÑ আন্তর্জাতিকভাইে বাংলাদেশ বেশ অস্বস্তিকর পরিস্থিতির মধ্যে পড়ে। বাংলাদেশের ভাবমূর্তিও ক্ষতির সম্মুখিন হয়। ইতোমধ্যেই কয়েকটি দেশ বাংলাদেশিদের সে দেশে প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে। এই পরিস্থিতি বাংলাদেশের জন্য মোটেও সম্মানজনক হয় নি। ঢাকার রিজেন্ট হাসপাতালের সনদ জালিয়াতির ঘটনার পর আরো কয়েকটি জেলায় একই ধরনের জালিয়াতির অভিযোগ উঠেছে। করোনাভাইরাস সংক্রমণের ফলে মানুষের জীবন নিয়ে যখন টানাপোড়ন চলছেÑ তখন এক শ্রেণির লোভি মানুষ জালিয়াতির মাধ্যমে অর্থ হাতিয়ে নেয়ার চেষ্টায় লিপ্ত হয়। করোনা পরীক্ষার জাল সনদ দিয়ে কোটি কোটি টাকা হাতিয়ে নেয়ার অভিযোগে বেশ কয়েকজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তাদের বিরুদ্ধে মামলা চলছে।
রাজশাহীতে একজনের ক্ষেত্রে জাল সনদ ধরা পড়েছে। এই জাল সনদের পরিমাণ কত হবে- তা-ই এখন প্রশ্ন। বিষয়টি নিবিড় তদন্তের দাবি রাখে। আমরা প্রত্যাশা করি তদন্তের মাধ্যমে প্রকৃত তথ্য বেরিয়ে আসবে এবং দোষিরা শাস্তির আওতায় আসবে।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ