রাজশাহীতে ‘জাতীয় ট্যাক্স কার্ড ও সম্মাননা’ প্রদান রাষ্ট্রের দায়িত্বশীল নাগরিক হিসেবে স্বইচ্ছায় কর দেয়ার আহ্বান

আপডেট: নভেম্বর ২৪, ২০২১, ৯:৫৮ অপরাহ্ণ


নিজস্ব প্রতিবেদক:


রাজশাহী সিটি করপোরেশন এলাকার ধারাবাহিকভাবে পাঁচবারের সম্মাননাপ্রাপ্ত দুইজন করদাতাসহ কর অঞ্চল রাজশাহীর সেরা করদাতাদের ‘জাতীয় ট্যাক্স কার্ড ও সম্মাননা’-২০২১ প্রদান করা হয়েছে। কর অঞ্চল রাজশাহীর আয়োজনে বুধবার (২৪ নভেম্বর) দুপুরে কর ভবন রাজশাহীর পদ্মা কনভেনশন হলে এই এই সম্মাননা প্রদান করা হয়।

অনুষ্ঠানে কর অঞ্চল রাজশাহীর কর কমিশনার শফিকুল ইসলাম আকন্দের সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, রাজশাহী কর আপীল অঞ্চলের কর কমিশনার আহসান হাবিব, রাজশাহী কাস্টমস এক্সাইজ ও ভ্যাট কমিশনার লুৎফর রহমান, রাজশাহী চেম্বর অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ড্রাষ্ট্রির সভাপতি মাসুদুর রহমান রিংকু, রাজশাহী জোনাল ট্রাক্সেস বার অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি ফজলে করিম।

এ সময় বক্তারা বলেন, জনগণের করের টাকা দিয়েই দেশের উন্নয়ন কর্মকা- পরিচালিত হয়। দেশের সার্বিক উন্নয়নের মূল চালিকাশক্তি কর। কিন্তু আমাদের দেশে প্রত্যক্ষ কর প্রদানে এখনো অবহেলা আছে। আমাদের মাথাপিছু আয় বাড়লেও কর প্রদানে তুলনামূলক অনেক পিছিয়ে আছি। বর্তমানে ভারতের চেয়ে বাংলাদেশের পার ক্যাপিটাল বেশি।

বক্তারা আরও বলেন, আগের চেয়ে রাজশাহীর মানুষের আর্থিক অবস্থার উন্নতি হয়েছে। ট্যাক্স দেয়ার মতো সক্ষমতা তৈরি হয়েছে। কিন্তু আমরা অনেকেই ট্যাক্স দিচ্ছি না। অনেকে জেনে বুঝেই দিচ্ছি না। অথচ এটা রাষ্ট্রীয় একটা দায়িত্ব ও দায়বদ্ধতা। দায়িত্বশীল নাগরিক হিসেবে আমাদের স্বইচ্ছাই কর প্রদান করা উচিত। অন্যান্য সময়ের চেয়ে দেশে প্রত্যাক্ষ করদাতার সংখ্যা বাড়ছে। তবে কাঙ্খিত অংশ গ্রহণ এখনো নিশ্চিত হয় নি। আগামী দিতে রাজশাহীর অর্থনীতিতে তরুণদের অংশ গ্রহণ ও সেরা করদাতা হিসেবেও তাদের অংশ গ্রহণ বাড়াতে তরুণ করদাতাদের সম্মাননা গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন তারা।

সভাপতির বক্তব্যে কর অঞ্চল রাজশাহীর কর কমিশনার শফিকুল ইসলাম আকন্দ বলেন, রাজশাহী কর অঞ্চলে বুধবার (২৪ নভেম্বর) পর্যন্ত করদাতার সংখ্যা ৩ লাখ ৪৭ হাজার ৯৯৫ জন। টিনধারী করদাতাদের সংখ্যা গত বছরে রির্টান দিয়েছেন ৮১ হাজার ৯৩৩ জন করদাতা। এ বছরে ৮১ হাজার ৯৩৩ জন করদাতা কর দিয়েছিলেন ২৫ কোটি ৮০ লাখ ৪০ হাজার ১৭৭ টাকা। কিন্তু তুলনা করতে গেলে আমারা নূন্যতম গড়ে ৩ হাজার টাকার করও দিচ্ছি না। আমরা অনেক সীমাবদ্ধতার মধ্যেও করদাতাদের সেবা দিয়ে যাচ্ছি। কিন্তু প্রত্যাশা অনুযায়ী কর রির্টান পাওয়া যাচ্ছে না। এই রির্টান দিতে গিয়ে অনেক করদাতা অবহেলা করছে। দেশের উন্নয়নে আমাদের আমাদের দায়িত্ব কর প্রদান করা।

সম্মাননা প্রদান অনুষ্ঠানে সেরা করদাতাদের অনুভূতি ব্যক্ত করে বক্তব্য রাখেন, নগরীর পুরুষ সেরা করদাতা আব্দুল আওয়াল। তিনি বলেন, দেশের উন্নয়নের অংশীদার করদাতারা। কারদাতাদের সম্মানিত করে এমন সম্মাননা খুবই প্রশংসনীয়। তবে উন্নত দেশগুলোতে সেরা করদাতাদের জন্য ১৪ থেকে ১৬ টি রাষ্ট্রীয় বিশেষ সুবিধা থাকে। কিন্তু ২০০৭ সাল থেকে রাজশাহীর সেরা দাতার ধারাবাহিকতা রক্ষা করে চলেছেন তিনি কিংবা দেশের সেরা করদাতারা একটি সুবিধাও পান না। সেরা করদাতাদের জন্য সরকারি হাসপাতালগুলোতে সংরক্ষিত বেড ও যাতায়াতে ক্ষেত্রে বিশেষ সুবিধার ব্যবস্থা করা হলে করদাতারা উপকৃত ও অনুপ্রাণিত হবে।

অনুভূতি ব্যক্ত করে বক্তব্য রাখেন নগরীর সেরা করদাতা নাসিমুল গণি খান। তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার হাত ধরে উন্নয়নের শেখরে পৌঁছাচ্ছে দেশ। পদ্মা সেতু বিভিন্ন প্রকল্প বাস্তাবায়িত হচ্ছে। আর এসকল উন্নয়ন কর্মকান্ডে করদাতা হিসেবে গর্বিত অংশীদার হতে পেরে খুশি তিনি। ভবিষ্যতেও এ ধারা রক্ষা করতে চান তিনি। এসময় অনুভূতি করে বক্তব্য রাখেন, নগরীর সেরা তরুণ করদাতা পাভেল হোসেন, রাজশাহীর সেরা মহিলা করদাতা নূরজাহান বেগম, চাঁপাইনবয়াবগঞ্জের পুরুষ সেরা করদাতা মো. এরফান আলী।

রাজশাহী সিটি করপোরেশনের ৭ জন সেরা করদাতা নির্বাচিত হয়েছেন। নগরীতে পুরুষ সেরা করদাতা হয়েছেন- মো. আব্দুল আওয়াল, মো. নাসিমুল গণি খান ও মো. সৈয়দ শাহীন শওকত। দীর্ঘ সময় ধরে করদাতা নির্বাচিত হয়েছেন দুই জন। এরা হলেন-মো. তাজকেরাতুল ইসলাম ও মো. বদরুদ দোজা। সর্বোচ্চ তরুণ করদাতা মো. পাভেল হোসেন। মহিলা সর্বোচ্চ করদাতা মোসা. নূরজাহান বেগম।

রাজশাহী জেলা সর্বোচ্চ পুরুষ করদাতা মো. আব্দুস সোবহান, মো. কাজী মাহমুদুল হাসান মামুন ও মো. একরামুল হক। দীর্ঘ মেয়াদী করদাতা আর বিন্দু সাহা ও মো. আতাহার আলী। সেরা তরুণ করদাতা মো. বলাল উদ্দীন। মহিলা সর্বোচ্চ করদাতা মোসা. ইসরাত জাহান।

চাঁপাইনবয়াবগঞ্জের পুরুষ সেরা করদাতা মো. এরফান আলী, মো. সেলিম রেজা ও মো. তরিকুল ইসলাম। দীর্ঘ মেয়াদী করদাতা মো. নাইমুল হক ও কাত্তিক চন্দ্র সরকার। সেরা তরুণ করদাতা মো. আখতারুল ইসলাম। মহিলা সর্বোচ্চ করদাতা মোসা. আয়েশা সিদ্দিকা। পাবনা জেলা সর্বোচ্চ পুরুষ করদাতা মি. তপন চৌধুরী, মি. অঞ্জন চৌধুরী, মি. স্যামুয়েল এস চৌধুরী। দীর্ঘ মেয়াদী করদাতা মো. নাছির আহমেদ ও মো. আবুল কাশেম। সেরা তরুণ করদাতা এরিক এস চৌধুরী । মহিলা সর্বোচ্চ করদাতা মিসেস অনিতা চৌধুরী।

নাটোর সর্বোচ্চ পুরুষ করদাতা মো. মীর আমিরুল ইসলাম, সুজিত কুমার সরকার, মো. কাজী জাকির হোসেন। দীর্ঘ মেয়াদী করদাতা বিশ্বনাথ পালিত ও রতন কুমার আগরওয়ালা। সেরা তরুণ করদাতা মো. রোকনুল ইসলাম। সর্বোচ্চ মহিলা করদাতা শাহানাজ পলি। নওগাঁয় পুরুষ সর্বোচ্চ করদাতা মো. হারুনুর রশিদ, দেওয়ান ছেকার আহমেদ ও সাধন চন্দ্র মজুমদার (এমপি)। দীর্ঘ মেয়াদী করদাতা মো. ইয়াদ আলী ও মো. শামসুল হক। সেরা তরুণ করদাতা মামুন অর রশিদ। সর্বোচ্চ মহিলা করদাতা মিসেস জেসমিন।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ