রাজশাহীতে ট্রেনের দ্বিতীয় দিনের ফিরতি টিকিট বিক্রি

আপডেট: জুন ২৪, ২০১৭, ১:২১ পূর্বাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক


রাজশাহী রেলওয়ে স্টেশনে অগ্রিম ফিরতি টিকিট বিক্রির দ্বিতীয় দিনে বেশ ভিড় লক্ষত করা গেছে। গতকাল শুক্রবার সকাল থেকে কাউন্টারগুলোত টিকিট প্রত্যাশীরা লাইনে দাড়িয়ে টিকিট ক্রয় করেন। তবে নন এসি টিকিটের চেয়ে এসি টিকিটের লাইনে বেশি ভিড় ছিলো। এর আগে বৃহস্পতিবার প্রথম দিনে যাত্রীদের দেয়া হয়েছে ১ জুলাইয়ের টিকেট।
রাজশাহী রেলওয়ের স্টেশন মাস্টার মো. জাহিদ জানায়, দ্বিতীয় দিনে অগ্রিম ফিরতি টিকিট বিক্রি করা হয়েছে। ট্রেনের টিকিটগুলো কাউন্টার থেকে বিক্রি করা হয়। কোন ধরনের সমস্য ছাড়ায় টিকিট প্রত্যাশীরা লাইনে দাড়িয়ে টিকিট কিনে নিয়ে যাচ্ছেন। এসি ও নন এসি টিকিটি বিক্রি করা হয়েছে।
পশ্চিমাঞ্চল রেলওয়ে সূত্রে জানা গেছে, রাজশাহী-ঢকা-রাজশাহী এর মধ্যে ঈদ স্পেশাল-৩ এবং ঈদ স্পেশাল-৪। ২২ জুন থেকে ঈদের পূর্ব দিন পর্যন্ত এবং ঈদের পরে দ্বিতীয় দিন থেকে সাত দিন চলাচল করবে। এ ট্রেন দুপুর দেড়টায় ঈদ স্পেশাল-৪ রাজশাহী থেকে ঢাকার উদ্দ্যেশে ছেড়ে যাবে। রাত নয়টা ২৫ মিনিটে ঈদ স্পেশাল-৩ ঢাকা থেকে রাজশাহীর উদ্দ্যেশে ছেড়ে আসবে। এছাড়া ২১ জুন থেকে ঈদুল ফিতর উপলক্ষে অন্তনগর ও কমিউটার ট্রেনের কোন অফ-ডে থাকবে না। যাত্রীর চাহিদা বিবেচনা করে ২৩ জুনের পরিবর্তে রাজশাহী ও পাবর্তীপুরগামী ট্রেন ২২ জুন থেকে চলা শুরু করবে।
পশ্চিমাঞ্চল রেলওয়ের সুপারিন্টেডেন্ট জিয়াউর রহমান জানায়, গত ২২ জুন দেওয়া হচ্ছে ১ জুলাইয়ের টিকিট। গতকাল শুক্রবার দেয়া হয় ২ জুলাইয়ের টিকিট, ২৪ জুন দেয়া হবে ৩ জুলাইয়ের টিকিট এবং ২৫ জুন দেয়া হবে ৪ জুলাইয়ের টিকিট। এরপর থেকে পর্যাক্রমে আগের নিয়মেই মিলবে ১০ দিন আগের টিকিট।
স্টেশনে টিকিট প্রত্যাশী আবদুর রাজ্জাক জানায়, টিকিট পাওয়া যাচ্ছে লাইনে। কোন সমস্য হচেছ না। তবে আজ গতকালের চেয়ে ভিড় অনেকটাই কম। টিকিট পেয়ে অনেক ভালোলাগছে। প্রায় নিশ্চিত হলাম। সঠিক সময়ে যেতে পারবো।
অন্যদিকে, টিকিট বিক্রিতে শৃঙ্খলা বজায় রাখতে রাজশাহী রেলওয়ে স্টেশনে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। এছাড়া যাত্রীদের হয়রানি বন্ধে আগে থেকেই কাজ করছে রেল পুলিশ ও আনসার সদস্যরা।