রাজশাহীতে তাপমাত্রা নেমে আসল ৭ ডিগ্রিতে

আপডেট: জানুয়ারি ২৮, ২০২৪, ১২:১৭ অপরাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক :রাজশাহীতে কয়েকদিন থেকে বইছিল মৃদ্যু শৈত্যপ্রবাহ। শনিবার (২৭ জানুয়ারি) থেকে মাঝারি শৈত্যপ্রবাহের রূপ নিয়েছে। রোববার (২৮ জানুয়ারি) তাপমাত্রা নেমে এসেছে ৭ ডিগ্রি সেলসিয়াসে। এই মৌসুমে এটাই সর্বনিম্ন তাপমাত্রার রেকর্ড।
ভোর ছয়টায় ৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রা রেকর্ড করে আবহাওয়া অফিস। এসময় বাতাসের আর্দ্রতা ছিল ১০০ শতাংশ। শনিবার ৭ দশমিক ৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়। জানুয়ারি মাসের মাঝ থেকে শুরু হয়েছে শৈত্যপ্রবাহ। যা এখনও অব্যাহত আছে। এর মধ্যে দুদিন তাপমাত্রা বাড়লেও তা আবার কমে যায়।

রাজশাহী আবহাওয়া অফিস জানায়, রাতের তাপমাত্রা কমলেও দিনের তাপমাত্রা স্বাভাবিক আছে। রোববার বেলা বাড়ার সাথে সাথে তাপমাত্রা আরও বাড়বে। এদিন সকাল ৯ টায় তাপমাত্রা রেকর্ড হয়েছে ১৩ দশমিক ৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস। এসময় বাতাসের আর্দ্রতা ছিল ৮৮ শতাংশ।
রাজশাহী আবহাওয়া অফিসের পর্যবেক্ষক লতিফা হেলেন বলেন, রাতে তাপমাত্রা কমছে। দিনে স্বাভাবিক থাকছে। এ দু’একদিন এমন তাপমাত্রা থাকতে পারে। এরপর আবার স্বাভাবিক হতে শুরু করবে। ফেব্রুয়ারি মাসের শুরু থেকে বাড়বে তাপমাত্রা।

আবহাওয়ার অফিসের তথ্য বলছে, মঙ্গলবার (২৩ জানুয়ারি) রাজশাহীতে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছিল। ওইদিন তাপমাত্রা নেমেছিল ৭ দশমিক ৮ ডিগ্রি সেলসিয়াসে। এর আগে সোমবার তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছিল ১০ ডিগ্রি সেলসিয়াস। শনিবার (২৭ জানুয়ারি) তাপমাত্রা রেকর্ড হয় ৭ দশমিক ৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

আবহাওয়া অফিসের হিসাবে তাপমাত্রা ৮ থেকে ১০ ডিগ্রি সেলসিয়াসের মধ্যে থাকলে তাকে মৃদু শৈত্যপ্রবাহ বলে। তাপমাত্রা ৬ থেকে ৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস হলে সেটিকে মাঝারি শৈত্যপ্রবাহ হিসেবে গণ্য করা হয়। তাপমাত্রা ৪ থেকে ৬ ডিগ্রি সেলসিয়াসকে তীব্র এবং ৪ ডিগ্রির নিচে তাপমাত্রাকে অতি তীব্র শৈত্যপ্রবাহ ধরা হয়। তাই এখন রাজশাহীতে মাঝারি শৈত্যপ্রবাহ বইছে।