রাজশাহীতে দিনভর মেঘাচ্ছন্ন আবহওয়া

আপডেট: জানুয়ারি ২২, ২০২২, ১০:০৫ অপরাহ্ণ


নিজস্ব প্রতিবেদক:


রাজশাহীতে গত দু’দিনের তুলনায় সর্বনিম্ন তাপমাত্রার পারদ কিছুটা বাড়লেও কমেনি শীতের তীব্রতা। সারাদিনিই মেঘের লুকোচুরি খেলা চলছিলো আকাশ জুড়ে। দুপুরের দিকে নগরীর কোথাও কোথাও রোদ উঁকি দিলেও মেঘের দাপটে উষ্ণতা ছড়াতে পারে নি। এতে শনিবার (২২ জানুয়ারি) সারাদিনিই ঠান্ডা আবহওয়া ছিলো। গরম কাপড়ে দিনভর চলাফেরা করতে দেখা গেছে গাড়ি চালক, পথচারী সকলকে।

আবহাওয়া অফিসের উচ্চ পর্যবেক্ষক এস.এম রেজওয়ানুল হক জানান, গত বহস্পতিবার রাজশাহীতে দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ৯ দশমিক ৩ রেকর্ড করা হয়েছিল। গত শুক্রবার তা কিছুটা বেড়ে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয় ১০ দশমিক ৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস। আর শনিবার সর্বনিম্ন তাপামাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে ১২ দশমিক ৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস। এবং সর্বোচ্চ তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে ২৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

তিনি আরও জানান, সর্বনিম্ন তাপমাত্রা কিছুটা বাড়লেও সন্ধ্যারপর শীতের তীব্রতা বাড়ছে। সামনে এই তীব্রতা আরও বাড়বে।
শীতের তীব্রতায় ছিন্নমূল ও কর্মজীবী মানুষের দূর্ভোগ বেড়েছে। প্রতিদিন সকালে নগরীর তালাইমারী, ফুলতলা চার রাস্তার মোড়, মোন্নাফের মোড়, সাধুর মোড়, রেলগেটসহ বিভিন্ন জায়গায় শ্রমিকদের ভোরে অপেক্ষার প্রহর গুনতে দেখা যায়। গোদাগাড়ীর ফরহাদপুর থেকে রাজমিস্ত্রির কাজে আসা সাবিয়ার রহমান জানান, শীতে রাজশাহী আসা খুব কষ্টের। সকাল ৬ টায় আসার সময় চারিদিক কুয়াশায় অন্ধকার থাকছে। কাজ শেষে সন্ধ্যায় যাওয়ার সময় ড্রাইভারও অনেক সময় বেশিদূর দেখতে পান না।