রাজশাহীতে বিভাগীয় পর্যায়ে তামাকবিরোধী সেমিনারে বিভাগীয় কমিশনার II তামাকের বিরুদ্ধে সামাজিক জাগরণ সৃষ্টির উদ্যোগ এগিয়ে নিতে হবে

আপডেট: মে ২৬, ২০২৪, ৯:২০ অপরাহ্ণ


নিজস্ব প্রতিবেদক :


রাজশাহীতে ধুমপান ও তামাকজাত দ্রব্যের ব্যবহার নিয়ন্ত্রণে বিভাগীয় পর্যায়ে তামাক বিরোধী সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়েছে। সেই লক্ষ্যে রোববার (২৬ মে) সকাল ১০টায় বিভাগীয় কমিশনারের কার্যালয়ের সম্মেলন কক্ষে জাতীয় তামাক নিয়ন্ত্রন সেলের সহযোগিতায় রাজশাহী বিভাগীয় প্রশাসন এ সেমিনারের আয়োজন করে।

সেমিনারে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিভাগীয় কমিশনার ড. দেওয়ান মুহাম্মদ হুমায়ূন কবীর।
আলোচনা সভার শুরুতে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন সেমিনারের সভাপতি অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার (সার্বিক) তরফদার মো. আক্তার জামীল। সেমিনারে ভার্চুয়ালি বক্তব্য রাখেন- জাতীয় তামাক নিয়ন্ত্রণ সেলের সমন্বয়ক মো. আকতারুজ্জামান।

এসময় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, রাজশাহী বিভাগের স্থানীয় সরকার শাখার পরিচালক পারভেজ রায়হান, অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার (উন্নয়ন ও আইসিটি) মোহাম্মদ কবির উদ্দীন, বিভাগীয় পরিচালক (স্বাস্থ্য) ডা. আনোয়ারুল কবীর, রাজশাহী মেডিকেল কলেজের মেডিসিন বিভাগের বিভাগীয় প্রধান অধ্যাপক ডা. মোহাম্মদ হাসান তারিক।

সেমিনারে মুক্ত আলোচনায় অংশ গ্ৰহণ করেন, রাজশাহী সিভিল সার্জন ডা. আবু সাইদ মোহাম্মদ ফারুক, আরএমপি’র উপ-পুলিশ কমিশনার (এস্টেট অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট) মো. নাছির উদ্দিন যুবায়ের, সোনালী সংবাদ পত্রিকার সম্পাদক মো. লিয়াকত আলী, সোনার দেশ পত্রিকার সম্পাদক আকবারুল হাসান মিল্লাত, রাজশাহী প্রেসক্লাবের সভাপতি মো. সাইদুর রহমান, আপস মাদকাসক্ত নিরাময় কেন্দ্রের প্রোগ্রাম ম্যানেজার এসএম আব্দুল্লাহ আল রেজা। সেমিনারে রাজশাহী বিভাগের বিভিন্ন সরকারি-বেসরকারি দপ্তরের কর্মকর্তারা অংশগ্রহণ করেন।

মুক্ত আলোচনায় উপস্থিত বক্তারা বলেন, তামাক ও তামাকজাত দ্রব্য থেকে সরকার যে রাজস্ব আহরণ করে সরকারের তামাকজনিত চিকিৎসা ব্যয় তার চেয়ে অনেক বেশি। ধূমপান ও তামাক জাতীয় দ্রব্য ব্যবহার নিয়ন্ত্রণ আইনের কঠোর প্রয়োগ, তামাক চাষিদেরকে বিকল্প লাভজনক ফসল চাষে উৎসাহিত করা, শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ধূমপান বিরোধী প্রচারণা বৃদ্ধি, পাবলিক প্লেসে ধূমপানের জন্য এলাকা সংরক্ষণ বাতিলসহ নানা সুপারিশ পেশ করেন।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

Exit mobile version