রাজশাহীতে রেলের জমি নিয়ে দু’পক্ষের দ্বন্দ্ব, পাল্টাপাল্টি অভিযোগ

আপডেট: আগস্ট ৩১, ২০২১, ৯:৫৪ অপরাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক:


রাজশাহীতে রেললাইন সংলগ্ন রেলের জমির দখল নিয়ে দুই পক্ষের মধ্যে মারামারির ঘটনা ঘটেছে। এ ব্যাপারে থানায় পাল্টাপাল্টি লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। বিষয়টি নিয়ে মঙ্গলবার (৩১) বেলা সাড়ে ১১টায় এনিয়ে বিবাদমান একটি পক্ষ সংবাদ সম্মেলন করেছে। রাজশাহী সংবাদিক ইউনিয়ন অফিসে অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলনে রবিউল ইসলাম নামে এক পক্ষ অভিযোগ করেন- ‘তার লিজকৃত জমির উপরে থাকা টিনের ঘর ভেঙ্গে দিয়েছে অপরপক্ষ রাশেদ খান মেনন (পাপুল)। তারা এই জায়গাটুকু দখলের পায়তারা করছে।’
তবে বিষয়টি নিয়ে রাশেদ খান মেনন পাপুল জানান, ‘প্রত্যেকের বাড়ির সামনে রেলওয়ের জায়গা/জমি আছে। সেগুলো ওই বাড়ির মালিক ব্যবহার করে। দীর্ঘদিন আগে আমরা গ্রামের বাড়ি তানোরে থাকতাম। তখন রবিউল ইসলামের বাবা আব্দুল খালেক আমাদের বাড়িটি দেখভাল করতেন। সেই সময় তিনি আমাদের বাড়ির সামনের রেলওয়ের জায়গা রেলওয়ে কর্তৃপক্ষের থেকে লিজ নিয়েছে বলে জানান।’
এদিকে অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে নগরীর দড়িখরবনা এলাকার মৃত আব্দুল খালেকের ছেলে রবিউল বলেন, ‘আমার বাবা মৃত আব্দুল খালেক জীবিত থাকা অবস্থায় নগরীর দড়িখরবনা এলাকার রেললাইন সংলগ্ন ০.০৯ একর রেলের জায়গা বিভাগীয় এস্টেট অফিস পাকশী থেকে কৃষি জমি হিসেবে লিজ নিয়ে ১৯৯৭ সাল পর্যন্ত ভোগ দখল করে। পরবর্তীতে তিনি মারা গেলে আমি (রবিউল ইসলাম) বাংলা ১৪২২ সাল পর্যন্ত খাজনা পরিশোধ করি এবং সেখানে ঘনবসতি গড়ে ওঠায় ফসলাদি না হওয়ায় কাঁচাঘর নির্মাণ করে ভোগদখল করি। কিন্তু সোমবার (৩০ আগস্ট) দুপুরে আমার বাড়ির পাশের (প্রতিবেশী) আব্দুস সামাদের ছেলে পাপুল অবৈধভাবে জমি দখল করে ঘর ভাঙচুর করে। এনিয়ে পাপুলকে নিষেধ করতে গেলে কথা কাটাকাটি হয় ও গালাগাল দেয়। এছাড়া পাপুল ও পরিবারের লোকজন আমার বাড়িতে হামলা চালায়।’
এবিষয়ে অপরপক্ষ পাপুলের বাবা বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুস সালাম বলেন, ‘আমার ছেলের বিরুদ্ধে যে অভিযোগ তুলে সংবাদ সম্মেলন করা হয়েছে তা মিথ্যা ও ভিত্তিহীন। অভিযোগকারীদের লিজের কোনো কাজপত্র নেই। তারা জোরপূর্বক রেলেওয়ের জায়গা দখল করে রেখেছে। এছাড়া বাড়ির পাশের রাসিকের ড্রেন নিজের বলে দাবি করে আমাদের বিভিন্ন সময় পানি নামাকে কেন্দ্র করে হয়রানি করেন।’ তিনি আরো বলেন, তারাই গত সোমবার গোয়াল ঘরে টিন তোলাকে কেন্দ্র করে ছেলে পাপুলকে ডেকে মারধর করেন। এবিষয়ে বোয়ালিয়া থানায় অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। এই ঘটনায় আমার ছেলে পাপুলের অন্তঃসত্তা স্ত্রী আহত হয়েছেন। তিনি রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ (রামেক) হাসপাতালে ভর্তি আছে।’
এব্যাপারে নগরীর বোয়ালিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নিবারণ চন্দ্র বর্মণ বলেন, ‘রেলওয়ের জমি নিয়ে দুইপক্ষ দ্বন্দ্বে জড়িয়েছিল। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠিয়ে পরিস্থিতি শান্ত করা হয়। পরে এ ঘটনায় রোববার রাতে উভয়পক্ষই থানায় অভিযোগ দিয়েছে। বিষয়টি খতিয়ে দেখে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।’
রেলওয়ের বিবাদমান এই জমি সম্পর্কে জানতে পশ্চিমাঞ্চল রেলওয়ের প্রধান ভূ-সম্পত্তি কর্মকর্তা মো. রেজাউল করিমকে ফোন করা হলে তিনি ব্যস্ত আছেন বলে ফোন রেখে দেন। প্রায় দুই ঘণ্টা পর পুনরায় ফোন করা হলেও তিনি ফোন রিসিভ করেননি।