রাজশাহীতে সমকালের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপিত

আপডেট: অক্টোবর ১, ২০২২, ১১:১০ অপরাহ্ণ

সংবাদ বিজ্ঞপ্তি:


রাজশাহীতে সমকালের ১৭তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপিত হয়েছে। শনিবার (১ অক্টোবর) রাজশাহী ব্যুরো অফিসে কেক কাটা, আলোচনা সভার মধ্যদিয়ে প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপিত হয়। অনুষ্ঠানের আয়োজন করে সমকাল সুহৃদ সমাবেশ রাজশাহী জেলা শাখা।
রাজশাহী জেলা সুহৃদ সমাবেশের সভাপতি ও রাজশাহী কলেজের প্রাক্তণ অধ্যক্ষ অধ্যাপক মহা. হবিবুর রহমানের সভাপতিত্বে এবং রাজশাহী ব্যুরো প্রধান সৌরভ হাবিবের সঞ্চালনায় এতে প্রধান অতিথি ছিলেন, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক গোলাম সাব্বির সাত্তার। এতে সম্মানিত অতিথি ছিলেন, সাবেক প্রতিমন্ত্রী ও বীর মুক্তিযোদ্ধা অধ্যাপক জিনাতুন নেসা তালুকদার, রাজশাহী মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার আবু কালাম সিদ্দিক, মহানগর আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহভাপতি শাহীন আক্তার রেনী, রাজশাহীর অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার এএনএম মঈনুল ইসলাম, রাজশাহী শিক্ষাবোর্ডের সাবেক চেয়ারম্যান অধ্যাপক তানবীরুল আলম, জেলা পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ইফতেখায়ের আলম, বরেন্দ্র কলেজের প্রাক্তণ অধ্যক্ষ অধ্যাপক আলমগীর মালিক, পুঠিয়া উপজেলার চেয়ারম্যান জিএম হিরা বাচ্চু, বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব রাশেদ রিপন, কবিকুঞ্জের সাধারণ সম্পাদক আরিফুল হক কুমার। এসময় রাজশাহী সাংবাদিক ইউনিয়নের সহসভাপতি তৈয়বুর রহমান, সদস্য আনিসুর রহমান প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

এসময় রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক গোলাম সাব্বির সাত্তার বলেন, সমকালের প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকেই আমি পত্রিকাটি পড়ি। সে হিসেবে আমাকে সমকালের একনিষ্ঠ পাঠকও ভাবতে পারেন। পত্রিকাটির সম্পাদকীয় অন্যান্য পত্রিকার চেয়ে খুবই উন্নতমানের। যেজন্য আমি পত্রিকাটিকে এতই পছন্দ করি। এর বাইরে সমকাল মুক্তিযুদ্ধের চেতনাকে ধারণ করে অন্যায়ের বিরুদ্ধে আপসহীনভাবে কাজ করে যাচ্ছে। সমকাল প্রতি শুক্রবার ‘কালের খেয়া’ নামের একটি ম্যাগাজিন বের করে। যেটিকে জ্ঞানের সমুদ্রও বলা যায়। এত জ্ঞানগর্ব লেখা যেটি বলে বোঝানো সম্ভব নয়। দেশের বিখ্যাত বিখ্যাত লেখকদের লেখা কালের খেয়ায় ছাপা হয়। কালের খেয়া আমার খুবই পছন্দের। প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে সবাইকে শুভেচ্ছা।

অধ্যাপক জিনাতুন নেসা তালুকদার বলেন, সমকাল মুক্তিযুদ্ধের কথা বলে, বঙ্গবন্ধুর বাংলার কথা বলে। এর সফলতা কামনা করি।
পুলিশ কমিশনার আবু কালাম সিদ্দিক বলেন, অন্যান্য পত্রিকার মতো সাদামাটা সংবাদের বাইরে গিয়ে ব্যতিক্রম কিছু প্রকাশের চেষ্টা করে। সেজন্য সমকাল পত্রিকা আমি নিজেও পড়ি। এই আয়োজনে আমন্ত্রণ জানানোয় তিনি আয়োজকদেরকে এসময় ধন্যবাদ জানান।
আওয়ামী লীগ নেত্রী ও রাজশাহী সিটি মেয়র পতœী শাহীন আক্তার রেনী, সমকাল গণমানুষের পত্রিকা। ডিজিটাল বাংলাদেশে প্রযুক্তির কারণে এই সময়ে পত্রিকা টিকিয়ে রাখা অনেক কষ্টকর। সমকাল অনেক চ্যালেঞ্জ পার করে ভালোভাবেই এগিয়ে যাচ্ছে। ডিজিটাল বাংলাদেশে সংবাদপত্রের চাহিদা কিছুটা কমেছে। তবে ডিজিটাল প্লাটফর্মগুলোতে সমকালের জনপ্রিয়তা ব্যাপক।

অতিরিক্ত জেলা পুলিশ সুপার ইফতেখায়ের আলম বলেন, সংবাদপত্র সমাজের দর্পন, সমাজের বাস্তবতা তুলে ধরে। সমকালের অনলাইন ভার্সন খুবই জনপ্রিয়। আমার কাছে ২-৩টা বাংলা পত্রিকা খুবই পছন্দের। তার মধ্যে অন্যতম সমকাল। সমকালের জন্য শুভকামনা।
বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব রাশেদ রিপন বলেন, সমকাল পত্রিকা দেড় যুগে পদার্পন করে। এর পাঠক-প্রিয়তা রয়েছে। পাঠক-প্রিয়তা ধরে রেখে সমকাল কাজ করবে এই প্রত্যাশা।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ