রাজশাহীর মানুষের উন্নয়ন চাই : লিটন

আপডেট: জুলাই ২২, ২০১৭, ১২:৪২ পূর্বাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক


সভায় বক্তব্য দেন নগর আ’লীগের সভাপতি এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন। এসময় উপস্থিত ছিলেন সাধারণ সম্পাদক ডাবলু সরকারসহ নেতৃবৃন্দ-সোনার দেশ

মহানগর আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী কমিটির সভায় আ’লীগের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য ও নগর সভাপতি এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন বলেছেন, রাজশাহীর মানুষের উন্নয়ন করতে চাই। রাজশাহীর উন্নয়নমূলক কর্মকাণ্ড জনগণের মধ্যে তৃণমূল নেতাকর্মীদের ব্যাপকভাবে প্রচার করতে হবে। পিছিয়ে পড়া রাজশাহীর জনগণের উন্নয়নের অধিকার নিয়ে ছিনিমিনি করার অধিকার কারো নেই। গতকাল শুক্রবার সন্ধ্যায় নগরীর কুমারপাড়াস্থ দলীয় কার্যালয়ে মহানগর আ’লীগের উদ্যোগে আয়োজিত সভায় সভাপতির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।
সাবেক মেয়র লিটন বলেন, বিএনপি-জামায়াত জোট আমলে রাজশাহীর রূপরেখা কেমন ছিল, আর এখন কেমন হয়েছে তা বোঝাতে হবে নগরবাসীকে। নৌকা প্রতীকের নামে জামায়াত-শিবিরের দেয়া অপব্যাখ্যা ও তথ্যগুলো যে ভুল তা তুলে ধরতে হবে। নগরীর প্রতিটি থানা, ওয়ার্ড ও এলাকার মানুষের মাঝে উন্নয়নের দৃষ্টান্ত তুলে ধরতে হবে। আ’লীগ মানে মানুষের হৃদয়ে গাঁথা, শান্তির রাজনীতি বিশ্বাস করে। প্রধানমন্ত্রী দেশের উন্নয়ন চায়। এখন সেই গতিতে এগিয়ে যাচ্ছে দেশ।
মহানগর আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক ডাবলু সরকারের পরিচালনায় বক্তব্যে লিটন বলেন, নৌকা বাংলার জনগণের মার্কা, গ্রামগঞ্জের মার্কা। নৌকায় ভোট দিয়ে দেশের মানুষ স্বাধীনতা ও ভাষার মর্যাদা পেয়েছে। নৌকা ছাড়া এ দেশের মানুষের উন্নতিও সম্ভব নয়। দেশের জনগণকে বোঝাতে হবে যখনই নৌকা ক্ষমতায় এসেছে তখনই দেশের উন্নতি ও অগ্রগতি হয়েছে। আর বিএনপি ক্ষমতায় এলেই তো জঙ্গিবাদ, সন্ত্রাস, দুর্নীতি ও লুটপাট করবে। ক্ষমতায় থাকতে এরা সন্ত্রাস ছাড়া আর কিছু দিতেও পারেনি। ক্ষমতা উপভোগ করেছে। এরা ক্ষমতায় এলেই দেশকে পিছিয়ে নিয়ে যায়। এসব কথাও জনগণকে বোঝাতে ও জানাতে হবে।
এসময় উপস্থিত ছিলেন, মহানগর আওয়ামী লীগের সহসভাপতি ও সমাজসেবী শাহীন আকতার রেনী, মোহাম্মদ আলী কামাল, নওশের আলী, সৈয়দ শাহাদত হোসেন, যুগ্মসাধারণ সম্পাদক রেজাউল ইসলাম বাবুল, নাঈমুল হুদা রানা, সাংগঠনিক সম্পাদক আজিজুল আলম বেন্টুসহ আলীগের নেতাকর্মীরা।
খায়রুজ্জামান লিটন বলেন, রাজশাহীর দুখী মানুষের ভাগ্য পরিবর্তনের আগ পর্যন্ত আমার সংগ্রাম অব্যাহত থাকবে। তাই একদিকে সরকারের উন্নয়ন কর্মকাণ্ড প্রচার করতে হবে, অন্যদিকে বিএনপি কী করেছে তাদের সেসব অপকর্মগুলোও জনসমক্ষে তুলে ধরতে হবে।
দলের নেতাকর্মীদের উদ্দেশে তিনি বলেন, কী পেলাম আর কী পেলাম না, সেটি বড় কথা নয়। রাজশাহীর মানুষকে কী দিতে পারলাম সেটিই সবচেয়ে বড় কথা। বঙ্গবন্ধুর আদর্শ ও স্বপ্ন বাস্তবায়নে আওয়ামী লীগকে কাজ করতে হবে। আগামী নির্বাচনে দলের উন্নয়নমূলক কর্মকাণ্ড তুলে ধরে দলের জন্য ভোট অর্জন করতে দলের সকল নেতাকর্মীকে প্রত্যেক ভোটারের কাছে পৌঁছতে হবে।