রাজশাহীসহ তিন বিভাগের সব চিকিৎসা প্রতিষ্ঠান রাজশাহী মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের অধিভুক্ত হচ্ছে

আপডেট: জুলাই ২৪, ২০১৭, ১২:৫৩ পূর্বাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক


বাংলাদেশের চিকিৎসা শিক্ষা ও চিকিৎসা সেবা কার্যক্রমের উন্নয়ন এবং সম্প্রসারণে দূরদৃষ্টি সম্পন্ন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অন্যতম যুগান্তকারী পদক্ষেপ হলো রাজশাহী মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপন। দ্রুত এ বিশ্ববিদ্যালয়ের বাস্তবায়ন, শিক্ষা কার্যক্রমের উন্নয়ন ও যুগোপযোগী নতুন নতুন কোর্স সংযোজন করে এর বিকাশ সাধনে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা রয়েছে। তাই আগামী সেশন থেকেই রাজশাহী, রংপুর ও খুলনা বিভাগের সরকারি-বেসরকারি মেডিকেল ও ডেন্টাল কলেজ, নার্সিং কলেজ, ইনস্টিটিউট অব হেলথ টেকনোলজি (আইএইচটি) সহ সব চিকিৎসা প্রতিষ্ঠান (৪০টি) কে রাজশাহী মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের অধিভুক্ত করে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষা কার্যক্রম চালু করা হবে। এসব প্রতিষ্ঠানের অধ্যক্ষগণের সাথে এক মতবিনিময় সভায় বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি প্রফেসর ডা. মাসুম হাবিব এসব কথা বলেন।
গতকাল রোববার সকালে রাজশাহী মেডিকেল কলেজের সভা কক্ষে ‘রাজশাহী মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষা ও চিকিৎসা কার্যক্রমের বাস্তবায়ন এবং উন্নয়নে সুচিন্তিত মতামত প্রদান’ শীর্ষক এক মতবিনিময় সভা ভিসি ডা. মাসুম হাবিবের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত হয়েছে। সভায় রামেক’র অধ্যক্ষ প্রফেসর ডা. আনোয়ার হাবিব, রামেক হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল এএফএম রফিকুল ইসলাম, পরিচালক (স্বাস্থ্য), ডা. আব্দুস সোবহান, রামেক’র উপাধ্যক্ষ ডা. নওশাদ আলীসহ রাজশাহী, রংপুর ও খুলনা বিভাগের সব চিকিৎসা প্রতিষ্ঠানের অধ্যক্ষগণ উপস্থিত ছিলেন।
সভার শুরুতে ভিসি মাসুম হাবিব বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাদেশ, কাজের অগ্রগতি ও পরবর্তী কর্ম-পরিকল্পনার উপর একটি প্রামাণ্য চিত্র উপস্থাপন করেন। এসময় তিনি বলেন, চিকিৎসা ক্ষেত্রে গবেষণা ও চিকিৎসা সেবায় দক্ষ জনশক্তি গড়ে তোলার লক্ষে স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতার ভিত্তিতে প্রয়োজনীয় সব কিছু করা হবে। আর এতে সব শ্রেণি-পেশার মানুষের সরাসরি সম্পৃক্ততা চান তিনি। ভিসি জানান, ইতোমধ্যে রাজশাহী ও ঢাকায় অস্থায়ী কার্যালয় চালু হয়েছে। মূল ক্যাম্পাসের জন্য জমি অধিগ্রহণ প্রক্রিয়াও শুরু হয়ে গেছে। তিনি আরো জানান, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের মেডিসিন অনুষদের অধীনে ২২টি পোস্ট গ্র্যাজুয়েট কোর্স করানো হয়। এখন থেকে রাজশাহী মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের ৮টি অনুষদের অধীনে ৯০টির মত পোষ্ট গ্র্যাজুয়েট কোর্স করানো হবে। এছাড়াও বিশ্ববিদ্যালয়ের সাথে এক হাজার শয্যার একটি অত্যাধুনিক হাসপাতাল সংযুক্ত থাকবে। সেই সাথে দক্ষ নার্স তৈরির লক্ষে একটি নার্সিং ইনস্টিটিউটও স্থাপন করা হবে বলে জানান ভিসি।
পরে বিশ্ববিদ্যালয়ের ডিপিপি তৈরি, গবেষণা ক্ষেত্রসহ রাজশাহী মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষা ও চিকিৎসা কার্যক্রম বাস্তবায়ন ও উন্নয়নে  উপস্থিত অধ্যক্ষগণ তাদের মতামত ব্যক্ত করেন।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ