রাজশাহী অঞ্চলে দৃশ্যধারণ হলো ‘শেষ কথা’

আপডেট: মার্চ ১৫, ২০১৭, ১২:১০ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক



জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারপ্রাপ্ত নির্মাতা সৈয়দ অহিদুজ্জামান ডায়মন্ড। ২০০৯ সালে নির্মিত ‘গঙ্গাযাত্রা’ সিনেমার জন্য জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পান তিনি। এবার তিনি নির্মাণ করেছেন ‘শেষ কথা’ শিরোনামের সিনেমা। শুটিং সম্পন্ন করে সম্প্রতি সিনেমাটি সেন্সরে জমা দেয়া হয়। গতকাল ১২ মার্চ সিনেমাটি সেন্সরে প্রদর্শিত হলে বিনাকর্তনে সেন্সর ছাড়পত্র প্রদান করার সিন্ধান্ত নেন সেন্সর বোর্ড। আজ পরিচালকের হাতে সেন্সর ছাড়পত্র তুলে দেয়া হয় বলে সেন্সর সূত্রে জানা যায়।
এ প্রসঙ্গে পরিচালক সৈয়দ অহিদুজ্জামান ডায়মন্ড রাইজিংবিডিকে বলেন, “মাত্র সেন্সর ছাড়পত্রটি হাতে পেলাম। এখনো নিজের অফিসে ফিরতে পারিনি। অফিসে গিয়ে সিদ্ধান্ত নিব কত তারিখে সিনেমাটি মুক্তি দেয়া যায়। ‘শেষ কথা’ যেহেতু দেশের সিনেমা তাই পয়লা বৈশাখ হলে ভালো হয়। কিন্তু এ তারিখে মনে হয় অন্য সিনেমা মুক্তি দেয়া হবে। এর মধ্যে ভালো দিনক্ষণ দেখে সিনেমাটি মুক্তি দেয়া হবে।”
‘শেষ কথা’ সিনেমায় জুটি বেঁধে অভিনয় করেন চিত্রনায়িকা আইরিন সুলতানা ও ওপার বাংলার অভিনেতা সমদর্শী দত্ত।
প্রথমে সিনেমাটির শিরোনাম ‘বাষ্পস্নান’ থাকলেও পরবর্তীতে নাম পরিবর্তন করে ‘শেষ কথা’ রাখা হয়। গত বছর ১-২৫ এপ্রিল পর্যন্ত রাজশাহী, নাটোর, চাঁপাইনবাবগঞ্জসহ নানা জায়গায় এ সিনেমার টানা দৃশ্যধারণের কাজ হয়েছে। এরপর ঢাকার বিভিন্ন লোকেশনে দৃশ্যায়ন করা হয়।
আইরিন-সমদর্শী ছাড়াও এতে অভিনয় করেছেন- মামুনুর রশীদ, রাইসুল ইসলাম আসাদ, শিশুশিল্পী সৈয়দা সাবরিনাসহ অনেকে।
এর আগে ঐতিহাসিক তেভাগা আন্দোলন নিয়ে ‘নাচোলের রানী’ সিনেমাটি নির্মাণ করেন সৈয়দ অহিদুজ্জামান ডায়মন্ড। সিনেমাটি চলচ্চিত্র বোদ্ধাদের কাছে ও আন্তর্জাতিক পর্যায়েও ব্যাপক প্রশংসিত হয়।  পরবর্তীতে গুণী এই নির্মাতা ‘গঙ্গাযাত্রা’ ও ‘অন্তর্ধান’ নামে আরো দুটি চলচ্চিত্র নির্মাণ করেন। তার ‘গঙ্গাযাত্রা’ চলচ্চিত্রটি জাতীয় (৮টি সেক্টরে) এবং আন্তর্জাতিক (৪টি সেক্টরে) পুরস্কার লাভ করে।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ