রাজশাহী অঞ্চলে পাঁচ বছরে আয়কর ২৮৫ কোটি টাকা বৃদ্ধি

আপডেট: ডিসেম্বর ৩১, ২০১৬, ১২:২১ পূর্বাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক



রাজশাহী কর অঞ্চলে আয়কর আদায় ও করদাতার সংখ্যা বেড়েছে। আয়কর আদায় প্রক্রিয়া সহজীকরণ এবং কর কর্মকর্তা ও করদাতাদের মধ্যে আন্তরিক সম্পর্কের বৃদ্ধি হয়েছে। ফলশ্রুতিতে দিনদিন আয়কর আদায়ের হার বৃদ্ধি পেয়েছে। এতে করদাতাদের মধ্যে কর দেয়ার ভয় কেটে স্বতঃফুর্ত অংশগ্রহণ বেড়েছে। যা সরকারি আয় তথা রাজস্বখাতকে অর্থনৈতিকভাবে সমৃদ্ধশালী করতে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখছে আয়কর বিভাগ। এতে জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের দেয়া টার্গেট অনুযায়ী রাজশাহী কর অঞ্চল আয়কর আদায়ে ইতিবাচক ও সাফল্য অর্জন করতে সক্ষম হয়েছে।
রাজশাহী আয়কর অঞ্চলের তথ্য মতে, গত ৫ বছর আয়কর বাজেট পরিসংখ্যানের (২০১২-১৩ থেকে ২০১৬-১৭ অর্থবছরে) তথ্যনুযায়ী মোট ২৮৫ কোটি টাকা আয়করের বাজেট বৃদ্ধি পেয়েছে। ২০১২-১৩ অর্থবছরে বাজেট ধরা হয়েছিল ২৫৫ কোটি টাকা ও ২০১৬-১৭ (জুন-১৭) অর্থবছরে আয়করের বাজেট ধরা হয়েছে ৫৪০ কোটি টাকা এবং এর মধ্যে নভেম্বর-১৬ পর্যন্ত ১৬৪ দশমিক ৫৩ কোটি টাকা কালেকশন হয়েছে বলে জানান আয়কর বিভাগের সংশ্লিষ্টরা। এছাড়া কর অঞ্চলের তথ্যমতে, রাজশাহী অঞ্চলে করদাতার সংখ্য প্রায় ৮৫ হাজার রয়েছে। তবে প্রতিদিনই আয়কর দাতার সংখ্যা বৃদ্ধি পাচ্ছে বলে জানানো হয়।
এবিষয়ে রাজশাহী আয়কর অঞ্চলের উপ-করকমিশনার আবদুল মালেক বলেন, এবছর রাজশাহী কর অঞ্চল সপ্তাব্যাপি আয়কর মেলা ও আয়কর দিবস, সেরা করদাতা পুরস্কার দেয়া হয়েছে। ২০১৫-১৬ অর্থবছরে ৪১০ কোটি টাকা বাজেট ধরা হয়েছিল এবং ৪১০ দশমিক ৫৩ কোটি টাকা আদায় হয়েছে। এরই পরিপ্রেক্ষিতে ২০১৫-১৬ অর্থবছরের কালেকশন থেকে ২০১৬-১৭ অর্থবছরে ১৩০ কোটি টাকা বাজেট বেশি ধরা হয়েছে।
এছাড়া ২০১৪-১৫ অর্থবছরে আয়করের বাজেট ধরা হয়েছিল ২৯৫ কোটি টাকা এবং আদায় হয়েছে ৩২১ দশমিক ৬৬ কোটি টাকা। ২০১৩-১৪ অর্থবছরে বাজেট ধরা হয়েছিল ২৫০ কোটি টাকা এবং আদায় হয়েছিল ২৫৭ দশমিক ৪৮ কোটি টাকা। ২০১২-১৩ অর্থবছরে বাজেট ধরা হয়েছিল ২৫৫ কোটি টাকা এবং যা নির্ধারিত বাজেটের চেয়ে ৩৫ দশমিক ৩৫ কোটি টাকা কম আদায় হয়ে ২১৯ দশমিক ৬৫ কোটি টাকা আদায় হয়েছিল।
রাজশাহী আয়কর অঞ্চলের মধ্যে ৫ টি জেলা রয়েছে- রাজশাহী, নওগাঁ, নাটোর, চাঁপাইনবাবগঞ্জ ও পাবনা। এবছর ১ থেকে ৭ নভেম্বর সপ্তাব্যাপি আয়কর মেলা এবং ২৪ থেকে ৩০ নভেম্বর পর্যন্ত কর সপ্তাহ ও শেষদিন আয়কর দিবস-২০১৬ পালিত হয়। এরআগে রাজশাহী অঞ্চলের কর কমিশনার দবির উদ্দিন আয়কর সচেতনতা ও করদাতাদের স্বতঃফুর্ত অংশগ্রহণ এবং উদ্ধুব্ধকরণের জন্য তার অফিস সম্মেলন কক্ষে সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করেন। রাজশাহী আয়কর অঞ্চলের কর্মকর্তা ও কর্মচারীবৃন্দ জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের দেয়া নিদের্শনানুযায়ী কাজ করে যাচ্ছেন।
এবিষয়ে রাজশাহী অঞ্চলের কর কমিশনার দবির উদ্দিন বলেন, রাজশাহী অঞ্চলের নতুন ও সাধারণ কারদাতা যুক্ত হওয়ায় ধীরে ধীরে করদাতার সংখ্যা বাড়ছে। এটি দেশের জন্য একটি শুভ ইঙ্গিত। অঞ্চলের সব জেলায় উল্লেখ্যযোগ্য হারে কর আদায় ও করদাতার সংখ্যা বৃদ্ধি পেয়েছে। যদিও এসব এলাকায় বৃহৎ শিল্প অথবা বাণিজ্য কেন্দ্র নেই। তিনি আশা প্রকাশ করেন, আমরা ২০১৬-১৭ অর্থবছরে ৫৪০ কোটি টাকা আয়কর আদায়ের লক্ষ্যমাত্রা অর্জনে সক্ষম হবো। চলতি অর্থবছরে নতুন করদাতা সনাক্ত করার প্রক্রিয়া চলছে। করদাতাদের স্পট অ্যাসেসমেন্ট, সার্ভে ও পুরস্কৃত করাসহ বিভিন্ন উদ্বুদ্ধকরণ পদক্ষেপ গ্রহণের ফলে করের আওতা বৃদ্ধি পেয়েছে। প্রতিবছর আয়কর মেলার মূল উদ্দেশ্য থাকে করদাতাদের উৎসাহিত ও সচেতনতা বৃদ্ধি করা।