রাজশাহী অঞ্চলে বিশ্ব মা দিবস উদযাপিত মা প্রতি মুহূর্তের, প্রতিদিনের সম্মান ও মর্যাদার অধিকারী

আপডেট: মে ৮, ২০২২, ১০:৩১ অপরাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক:


বিশ্ব মা দিবসের আলোচনায় বক্তারা বলেছেন, মা প্রতি মুহূর্তের, প্রতিদিনের সম্মান ও মর্যাদার অধিকারী। বিশ্বের সব মায়েরা ভাল থেকো, সব সন্তান মায়েদের ভাল রেখোÑ সব স্বামীরা তোমার সন্তানদের মাকে ভাল রেখো। মা ভাল থাকলে, সন্তান ভাল থাকে, দেশ ভাল থাকে। এটাই উন্নয়ন ও সমৃদ্ধির ভাষা-অনুশীলন।

রাজশাহী অঞ্চলের বিভিন্ন স্থানে অনুষ্ঠিত সভা-সমাবেশ থেকে এমনই অনুভব- উচ্চারণ ঘোষিত হয়েছে। দিবসটি উপলক্ষে আলোচনা সভা, র‌্যালি ও স্বপ্নজয়ী মা-কে সম্মাননা প্রদান করা হয়েছে।

রাজশাহী জেলা মহিলা অধিদফতর: রোববার (৮ মে) সকালে জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে জেলা প্রশাসক আব্দুল জলিল এঁর সভাপতিত্বে আলোচনা সভার আয়োজন করে রাজশাহী জেলা মহিলা অধিদফতর।

ভায় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, রাজশাহী পুলিশ সুপার এবিএম মাসুদ হোসেন, অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট সাবিহা সুলতানা, জেলা এনএসআই এঁর যুগ্ম পরিচালক মো. ছানোয়ার হোসেন, আরএমপি’র ডেপুটি পুলিশ কমিশনার (সদর) মো. রফিকুল ইসলাম, মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদফতরের উপ-পরিচালক মোহাম্মদ লুৎফর রহমান।

এছাড়াও জেলা শিক্ষা অফিসার নাসির উদ্দিন, পবা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা ইয়াসিন আলী, দৈনিক সোনার দেশ পত্রিকার ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক আকবারুল হাসান মিল্লাত, রাজশাহী প্রেসক্লাবের সভাপতি সাইদুর রহমান, পবা উপজেলা নির্বাহী অফিসার লসমী চাকমাসহ জেলা সকল উপজেলার নির্বাহী অফিসার ও উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যানবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

মা’য়ের প্রতি শ্রদ্ধা ও ভালোবাসায় সভায় বক্তারা বলেন, শুধু সন্তানের জন্মদান ও প্রতিপালনই নয়, মা হচ্ছেন সন্তানের প্রধান শিক্ষক। সন্তানের শারীরিক ও মানসিক বিকাশসহ জীবনের সফলতা আসে মা’য়ের হাত ধরে। মা’য়ের ঋণ কখনো শোধ হবার নয়। আমাদের সকলের উচিৎ, পরম মমতায় মা’কে আগলে রাখা।

পবা উপজেলা: পবা উপজেলায় বিশ্ব মা দিবস উদযাপন উপলক্ষ্যে আলোচনা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়েছে। রবিবার (৮ মে) বিকেলে উপজেলা প্রশাসন ও মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তরের আয়োজনে উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে বিশ্ব মা দিবস উদযাপন উপলক্ষ্যে আলোচনা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার লসমী চাকমা। অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা শিমুল বিল্লাহ সুলতানা।

এ সময় আরো উপস্থিত ছিলেন, পবা উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান ওয়াজেদ আলী খাঁন, উপজেলা কৃষি অফিসার শফিকুল ইসলাম, উপজেলা সিনিয়র পল্লী দারিদ্র্য বিমোচন কর্মকর্তা আবু বক্কার সিদ্দিক, পল্লী সঞ্চয় ব্যাংক শাখা ব্যবস্থাপক শাহানাজ পারভীন, উপজেলা যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা এমএন জহুরুল ইসলাম, উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা জোবাইদা খানম, প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা নজরুল ইসলাম, পবা উপজেলা কিশোর কিশোরী ক্লাব সংগীত শিক্ষক আসলাম আলী, রিমন, মনোয়ারা পারভীন ও আবৃত্তি শিক্ষক সাজু আহম্মেদ।

এছাড়াও আলোচনা সভায় আরোও উপস্থিত ছিলেন উপজেলা প্রশাসনের বিভিন্ন দপ্তরের কর্মকর্তা ও কর্মচারী, উপজেলা মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তর কর্তৃক পরিচালিত বিভিন্ন কিশোর কিশোরী ক্লাবের আবৃত্তি ও সংগীত শিক্ষক এবং ছাত্র ছাত্রীসহ বিভিন্ন ইউনিয়ন থেকে আগত আমন্ত্রিত অতিথিবৃন্দ ও বিভিন্ন নারী সংগঠনের নেতৃবৃন্দসহ মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তরের কর্মকর্তা ও কর্মচারীসহ প্রমুখ।

আলোচনা সভায় উপজেলা নির্বাহী অফিসার লসমী চাকমা বলেন, মা মানে মমতা, মা মানে ক্ষমতা, মা মানে নিরাপত্তা, মা মানে স্বাধীনতা। সন্তানের জন্য গর্ভধারিণী মাকে ভালোবাসার কোনো বিশেষ দিন থাকে না। আজকের মা দিবসে এই প্রতিজ্ঞা করি প্রতিটি মুহুর্তে মাকে যেন আমরা কোন ভাবে কষ্ট না দিই। সবসময় তাদের সেবা যত্ন করি।

তিনি আরো বলেন ছেলে ও মেয়ের নিজের মা ও বাবা এবং শাশুড়ী মা ও শশুর বাবার প্রতিও সকলের দায়িত্ব আছে। কোন অবস্থায় যেন অবহেলা না করে কোন আশ্রয় কেন্দ্রে না পাঠায়। বিশ্বজুড়ে প্রতিটি সন্তান প্রতিদিনের মতোই মাকে একই ভাবে ভালোবাসবে প্রত্যাশা।

বাঘা : সন্তান যখন কোন সন্তান কোন বিষয়ে হতাশ হয়ে যায়, তখন মায়ের আঁচলের নিচে শান্তি খুঁজে পায় প্রতিটি সন্তান। পৃথিবীর সকল ’মা’ তার বিপথগামী সন্তানদের আগলে রাখেন। রোববার (৮ মে) দুপুরে বাঘা উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে বিশ্ব ’মা’ দিবসের আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে রাজশাহী-৬ (বাঘা-চারঘাট) আসনের সংসদ সদস্য ও পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম এ কথা বলেন।

উপজেলা পরিষদের সভা কক্ষে আয়োজিত ’মা’ দিবসের আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা পাপিয়া সুলতানা।

পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী আরো বলেন, মহান মুক্তিযুদ্ধে অনেকই মা’কে হারিয়েছে। যারা মা’দের নির্মমভাবে হত্যা করেছে, তারা কখনো জান্নাতবাসী হতে পারবেনা। কোন মা যেনো কোন সন্তান দ্বারা নির্যাতিত না হয়, সে বিষয়ে সকলকে সচেতন হওয়ার আহবান জানান। বর্তমান সরকার দরিদ্র গর্ভবতী মা’দের জন্য মাতৃত্বকালীন ভাতা চাকুরীজীবীদের ৬ মাসের ছুটি ঘোষনা করেছেন। যা পৃথিবীর অন্য কোন দেশে নেই।

তিনি বলেন, সরকার নারীদের কর্মমুখি করতে নানা রকম প্রশিক্ষনের ব্যবস্থা করেছেন। এ প্রশিক্ষনের মাধ্যমে নারীরা এখন অনেকেই সাবলম্বী। ফলে অর্থনৈতিক দিক থেকে সারা বিশ্বে বাংলাদেশের নারীরা বর্তমানে দশম স্থান অধিকার করেছে।
আয়োজিত সভায় বক্তব্য রাখেন, বাঘা থানা ওসি সাজ্জাদ হোসেন, উপজেলা মহিলা বিষয়ক অফিসার নাসরীন আক্তার, সমাজ সেবা অফিসার নাফিক শরিফ, পল্লী উন্নয়ন অফিসার ইমরান আলী প্রমুখ।

পরে পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী উপজেলা আ.লীগের সাধারণ সম্পাদক আশরাফুল ইসলাম বাবুলের নিজ গাওপাড়ার বাড়িতে উপজেলা, পৌর ও ইউনিয়ন আ.লীগের নেতাকর্মীদের সাথে ঈদ পরবর্তী মতবিনিময় করেন।

চারঘাট : শেখ হাসিনার বারতা. নারী-পুরুষ সমতা এই প্রতিবাদ্যকে সামনে রেখে রাজশাহীর চারঘাটে যথাযোগ্য মর্যাদায় বিশ^ মা দিবস পালিত হয়েছে। দিবসটি উপলক্ষ্যে রোববার (৮ মে) সকাল ১১টায় উপজেলা প্রশাসন ও মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তর আয়োজনে বিশ্ব মা দিবস উপলক্ষে স্বপ্নজয়ী মা-কে সম্মাননা প্রদান ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা মাহফুজা বেগমের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসাবে ছিলেন উপজেলা সহকারী কমিশনার ভুমি নিয়তি রানী কৈরী। এসময় অন্যাদেও মধ্যে বক্তব্য রখেন উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান তাজমিরা খাতুন, উপজেলা প্রাণি সম্পদ ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা নাজনীন নাহার, উপজেলা মাধ্যমিক কর্মকর্তা জয়নাল আবেদীন, চারঘাট মেডিকেল অফিসার ডা. আতিকুর হক, চারঘাট মডেল থানার উপ-পরিদর্শক শাহনেওয়াজ, প্রবীণ সাংবাদিক মোজাম্মেল হক, স্বপ্নজয়ী মা আজমিরা বেগম ও চারঘাট প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক নজরুল ইসলাম বাচ্চুসহ মা ও মেয়ে উপস্থিত ছিলেন।

স্বপ্নজয়ী মা আজমিরার ছেলে চারঘাট মেডিকেল অফিসার ডা. আতিকুর হক বলেন, মা, আমার মা। সন্তানকে মানুষ করতে একজন মা জীবনে কত শত-সহস্র ব্যথা সহ্য করেন। সন্তানের জন্য গর্ভধারিণীকে বিশেষভাবে ভালোবাসার কোনো বিশেষ দিন থাকে না। বিশ্বজুড়ে সন্তানরা আজো মাকে ভালোবাসবে প্রতিদিনের মতোই এই প্রত্যাশা।

সবশেষে বিশ্ব মা দিবস উপলক্ষে চারঘাট উপজেলার নিমপাড়া ইউনিয়নের স্বপ্নজয়ী একজন মা আজমিরা বেগমকে সম্মাননা ক্রেস প্রদান করেন উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) নিয়তি রানী কৈরী।

পুঠিয়া : রাজশাহীর পুঠিয়ায় বিশ্ব মা দিবস উদযাপন উপলক্ষে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। রোববার (৮ মে) সকালে রাজশাহীর পুঠিয়া উপজেলা পরিষদ সম্মেলন কক্ষে আলোচনা সভার আয়োজন করে উপজেলা প্রশাসন ও উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তার কার্যালয়।

জানা যায়, রাজশাহী জেলার পুঠিয়া উপজেলা সম্মেলন কক্ষে আলোচনা সভায় উপস্থিত ছিলেন পুঠিয়া উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান মৌসুমী রহমান, উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা মোছা. ডালিয়া পারভীন, তথ্য আপার তথ্য সেবা কর্মকর্তা মোছা. কামরুন নাহার সহ অনেকে উপস্থিত ছিলেন।

মান্দা : ‘শেখ হাসিনার বারতা, নারী-পুরুষ সমতা’ এই প্রতিপাদ্য বিষয় নিয়ে নওগাঁর মান্দায় রোববার (৮ মে) বেলা ১১টায় আলোচনা সভার মধ্য দিয়ে বিশ্ব মা দিবস পালন করা হয়েছে। উপজেলা মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তরের আয়োজন ও উপজেলা প্রশাসনের সহযোগিতায় আয়োজিত অনুষ্ঠানে সভাপ্রধান ছিলেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) আবু বাক্কার সিদ্দিক।

উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা নিলুফা ইয়াসমিনের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে বক্তব্য দেন উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মাহবুবা সিদ্দিকা রুমা, উপজেলা পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা আফম আছফানুল আরেফিন, উপজেলা রিসোর্স ইন্সট্রাক্টর কায়ছার হাবীব, উপজেলা ভেটেরিনারী সার্জন শায়লা শারমিন, মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা শেখ শাহ্ আলম, উপজেলা সহকারী শিক্ষা কর্মকর্তা রেজাউল ইসলাম প্রমূখ।

গোমস্তাপুর : ‘শেখ হাসিনার বারতা নারী পুরুষ সমতা’ এ প্রতিপাদ্যকে নিয়ে সারাদেশের ন্যায় চাঁপাইনবাবগঞ্জের গোমস্তাপুরে বিশ্ব মা দিবস পালিত হয়েছে। দিবসটি উপলক্ষে শোভাযাত্রা ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। রোববার (৮ মে) সকালে শোভাযাত্রাটি উপজেলা চত্বর থেকে বের হয়ে রহনপুর শহর প্রদক্ষিণ করে।

পরে উপজেলা সভাকক্ষে আলোচনা সভায় মিলিত হয়। উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা উম্মে সুমাইয়ার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় বক্তব্য দেন, উপজেলা সমাজ সেবা কর্মকর্তা নুরুল ইসলাম, পল্লী উন্নয়ন কর্মকর্তা রাইসুল ইসলাম, উপজেলা প্রেসক্লাব সভাপতি আতিকুল ইসলাম আজম, উপজেলা তথ্য আপা তাকদিরা খাতুন, ছাত্রী হালিমা খাতুন, আইজিএ প্রকল্পের ট্রেনার শামসুন্নাহার টুম্পা প্রমুখ। আলোচনা শেষে কিশোর-কিশোরী ক্লাবের সদস্যরা গান পরিবেশন করেন।

চাঁপাইনবাবগঞ্জ : ‘শেখ হাসিনার বারতা, নারী-পুরুষ সমতা’ এ প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে চাঁপাইনবাবগঞ্জে বিশ্ব মা দিবস পালিত হয়েছে। প্রতিবছর মে মাসের দ্বিতীয় রোববার (৮ মে) এ দিবসটি পালন করা হয়। দিবসটির মূল উদ্দেশ্য-মাকে যথাযথ সম্মান ও ভালোবাসা দেয়া।

এ উপলক্ষে জেলা প্রশাসনের আয়োজনে ও জেলা মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তরের সহযোগিতায় রোববার বিকালে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সম্মেলন কক্ষে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিষ্ট্রেট দেবেন্দ্র নাথ উরাঁ’র সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন জেলা প্রশাসক এ কে এম গালিভ খান। এসময় তিনি বলেন, যদিও মায়ের প্রতি ভালোবাসা প্রকাশে নির্দিষ্ট কোনো দিন নেই। তারপরও একটি দিনকে বেছে নেয়া হয়েছে।

মা শব্দটি অনেক উচ্চাঙ্গে যেটাকে অন্য ভাষা দিয়ে তুলনা করা যায় না। মা হচ্ছে পৃথিবীর শ্রেষ্ঠ আশ্রয়স্থল। তাই আজকের এই মা দিবসে সবাই যেন মা এর প্রতি যতœশীল হই এই প্রত্যাশা রইল। অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, জেলা প্রাণি সম্পদ কর্মকর্তা ডা. মোস্তাফিজুর রহমান, সদর উপজেলা পরিষদের মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান নাসরিন আকতার, পৌরসভার সংরক্ষিত নারী কাউন্সিলর নাজনীন ফাতেমা, জাতীয় মহিলা সংস্থার চেয়ারম্যান এ্যাডভোকেট ইয়াসমিন সুলতানা, সমতা নারী উন্নয়ন সংস্থার সভানেত্রী আকসানা খাতুন, গ্রাম-বাংলার মহিলা সমিতির সভানেত্রী শরীফা খাতুন ডেজী। অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন, জেলা মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক সাহিদা আকতার।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ