রাজশাহী বিভাগে করোনা শনাক্তের হার ৩৩ শতাংশ

আপডেট: ফেব্রুয়ারি ৬, ২০২২, ১০:৪৬ অপরাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক:


গত ২৪ ঘণ্টায় রাজশাহী বিভাগের আট জেলায় ১ হাজার ৬০১ জনের নমুনা পরীক্ষায় ৪৮৬ জনের করোনা ধরা পড়েছে। পরীক্ষার অনুপাতে করোনা শনাক্তের হার ৩৩ দশমিক ৩৫ শতাংশ।

এদিকে, গত এক দিনে বগুড়া জেলায় একজন প্রাণ হারিয়েছেন করোনায়। এর বাইরে বিভাগের বাকি সাত জেলায় করোনায় প্রাণহানির খবর নেই।

রোববার (৬ ফেব্রুয়ারি) দুপুরের দিকে বিভাগীয় স্বাস্থ্য দফতরের সহকারী পরিচালক (রোগ নিয়ন্ত্রণ) ডা. নাজমা আক্তার স্বাক্ষরিত আলাদা প্রতিবেদনে এসব তথ্য জানানো হয়েছে।

এই দুই প্রতিবেদন বিশ্লেষণে দেখা গেছে, বিভাগে এ পর্যন্ত করোনা ধরা পড়েছে ১ লাখ ১৪ হাজার ৪৪০ জনের। এর মধ্যে গত এক দিনে করোনা ধরা পড়েছে ৪৮৬ জনের।

এই এক দিনে রাজশাহী জেলায় ৩৭৬ জনের নমুনা পরীক্ষায় ১৩১ জনের করোনা ধরা পড়েছে । এই জেলায় করোনা শনাক্তের শতকরা হার ৩৪ দশমিক ৮৪ শতাংশ।

চাঁপাইনবাবগঞ্জে ১০৭ জনের নমুনা পরীক্ষায় ৩১ জনের করোনা ধরা পড়েছে। এই জেলায় করোনা শনাক্তের হার ২৮ দশমিক ৯৭ শতাংশ। নওগাঁয় ১৬১ জনের নমুনা পরীক্ষায় ৫৩ জনের করোনা ধরা পড়েছে।

জেলায় করোনা শনাক্তের হার ৩২ দশমিক ৯১ শতাংশ। নাটোরে ৮২ জনের নমুনা পরীক্ষায় ২০ জনের করোনা ধরা পড়েছে। জেলায় করোনা শনাক্তের হার ২৪ দশমিক ৩৯ শতাংশ।

এ ছাড়া পাবনায় ২৩৫ জনের নমুনা পরীক্ষায় ৮৯ জনের করোনা ধরা পড়েছে। এই জেলায় করোনা শনাক্তের শতকরা হার ৩৭ দশমিক ৮৭ শতাংশ। সিরাজগঞ্জে ১৪৬ জনের নমুনা পরীক্ষায় ৪৭ জনের করোনা ধরা পড়েছে।

এই জেলায় করোনা শনাক্তের হার ৩২ দশমিক ১৯ শতাংশ। বগুড়া জেলায় ৩৮৭ জনের নমুনা পরীক্ষায় ৯২ জনের করোনা ধরা পড়েছে। এই জেলায় করোনা শনাক্তের হার ২৩ দশমিক ৭৭ শতাংশ এবং জয়পুরহাটে ১০৭ জনের নমুনা পরীক্ষায় ২৩ জনের করোনা ধরা পড়েছে। এই জেলায় করোনা শনাক্তের হার ২১ দশমিক ৪৯ শতাংশ।

এদিকে, বিভাগজুড়ে এ পর্যন্ত ১ হাজার ৭১৮ জনের প্রাণ নিয়েছে করোনা। বিভাগে সর্বোচ্চ ৬৯৮ জন মারা গেছে বগুড়ায়। এ ছাড়া রাজশাহীতে ৩৩০, নাটোরে ১৭৬, চাঁপাইনবাবগঞ্জে ১৬৩, নওগাঁয় ১৪৭, সিরাজগঞ্জে ৯৭, জয়পুরহাটে ৬৭ এবং পাবনায় ৪০ জনের মৃত্যু হয়েছে এই মহামারিতে।

এ পর্যন্ত বিভাগজুড়ে করোনা জয় করেছেন ১ লাখ ১ হাজার ৩৭৭ জন। এর মধ্যে গত একদিনে সুস্থ হয়েছে ৫৬৭ জন। এ পর্যন্ত করোনা নিয়ে হাসপাতালে চিকিৎসা নিয়েছেন ১৯ হাজার ৫২ জন। গত এক দিনে হাসপাতালে এসেছেন ৩২ জন।

বর্তমানে করোনা নিয়ে কোয়ারেন্টাইনে রয়েছেন ৩৩৫ জন। গত একদিনে কোয়ারেন্টাইন শেষ করেছেন ২৫২ জন। আইসোলেশনে থেকে চিকিৎসা নিচ্ছেন ৬৩ জন। আইসোলেশন থেকে ছাড়পত্র নিয়েছেন ৮২ জন।