রাণীনগরে ডাকাতি সংঘটিত || ককটেল হামলায় আহত ৩

আপডেট: জানুয়ারি ৩০, ২০১৭, ১২:০৭ পূর্বাহ্ণ

রাণীনগর প্রতিনিধি


নওগাঁর রাণীনগরে এক গরু ব্যবসায়ীর বাড়িতে ডাকাতি সংঘটিত হয়েছে। ডাকাতরা ৭ ভরি স্বর্ণালংকার ও নগদ টাকাসহ প্রায় সাড়ে ৩ লাখ টাকার মালামাল লুট করে নিয়ে গেছে। গ্রামবাসী ডাকাতদের প্রতিহত করতে গেলে ডাকাতদলের ছোড়া ককটেল ও মারপিটে তিনজন আহত হয়েছে। উপজেলার ভেবড়া গ্রামে ছোলাইমান সরদারের ছেলে বাবলু সরদারের বাড়িতে এ ডাকাতির ঘটনা ঘটে।
আহতদের মধ্যে আলম হোসেনকে (২০) ভোরে রাণীনগর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
ওই বাড়ির গৃহিনি লাবলি বিবি (৩৬) জানান, শনিবার রাত অনুমানিক ১টার দিকে প্রায় ২০/২৫ জনের একদল ডাকাত বাড়ির প্রাচীর টপকে বাড়িতে প্রবেশ করে। এরপর কেচি গেটের তালা কেটে বাড়ির ভিতরে প্রবেশ করে ঘড়ের দরজা ভেঙে বাড়ির সবাইকে মারপিট করে এবং শিশু কন্যা নেহাকে (৬) দেশিয় ধারালো অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে। এরপর ড্রয়ারে থাকা নগদ প্রায় ১ লাখ টাকা এবং প্রায় ৭ ভরি স্বর্ণের গহনা লুট করে যাবার সময় গ্রামের লোকজন এগিয়ে আসলে ডাকাতরা পর পর দুইটি ককটেল নিক্ষেপ করে ঘটনাস্থল ত্যাগ করে। এসময় ডাকাতদের ছোড়া ককটেলে ওই গ্রামের লুঃফর রহমানের ছেলে আলম হোসেন (৩২) গুরুত্বর আহত হয়। আহত আলমকে ভোরে রাণীনগর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এছাড়া ডাকাতদের মারপিটে বাড়ির মালিক বাবলু হোসেন (৪২) ও গৃহিনী লাবলি বিবি আহত হয়। খবর পেয়ে রাতেই থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে। এছাড়া গতকাল রোববার সকালে পুলিশের ঊর্দ্ধতন কর্মকর্তারা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। গৃহিনী লাবলি বিবি আরো জানান, ডাকাতদলের অনেকেই মুখোষ এবং সবার গায়ে কালো জ্যাকেট ও প্যান্ট পরা ছিল। তাছাড়া তাদের প্রত্যেকের হাতে ধারালো চাকু, লোহার রড, শাবল, লাঠি ও বেশ কয়েকজনের হাতে পিস্তল ছিল বলে জানান তিনি।
স্থানীয়রা জানান, সকালে বাড়ির অদূরে স্কুলমাঠ থেকে ডাকাতদের ব্যবহৃত একটি তালাকাটা কাটারি ও বেশ কয়েকটি লাঠি উদ্ধার করা হয়েছে।
এ ব্যাপারে রাণীনগর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোস্তাফিজুর রহমান জানান, ডাকাতির ঘটনা খুব গুরুত্বের সঙ্গে ক্ষতিয়ে দেখা হচ্ছে। পুরো বিষয়টা উদঘাটনে আমরা জোর তৎপর রয়েছি এবং জড়িতদের গ্রেফতারে অভিযান চলছে। এ ঘটনায় থানায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে বলে জানান তিনি।