রাণীনগরে দুই সন্তানের জননীর রহস্যজনক মৃত্যু

আপডেট: মার্চ ১৮, ২০১৭, ১২:৩৭ পূর্বাহ্ণ

নওগাঁ প্রতিনিধি


নওগাঁর রাণীনগরে মিরাট ইউপির ধনপাড়া গ্রামের নিলুফা বেগম নিলি (২৮) নামের দুই সন্তানের জননীর রহস্যজনক মৃত্যু হয়েছে। তার স্বামীপক্ষের লোকজন আত্মহত্যা বলে চালিয়ে দেয়ার চেষ্টা করলেও তাকে পিটিয়ে হত্যা করা হয়েছে বলে এলাকায় ব্যাপক গুঞ্জন চলছে। পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে মরদেহ উদ্ধার করে নওগাঁ সদর হাসপাতালে ময়নাতদন্তের জন্য প্রেরণ করেছে।
স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার মিরাট ইউনিয়নের ধনপাড়া গ্রামের ছলিমুদ্দিনের ছেলে মনিরুল ইসলাম রনির সাথে গত ১২ বছর আগে পারিবারিক আয়োজনে অনেক ধুমধাম করে একই গ্রামের আলেফ উদ্দিনের মেয়ে নিলির বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকেই তাদের মধ্যে নানা বিষয় নিয়ে কারণে অকারণে ঝগড়া-বিবাদ লেগেই থাকতো। এর মাঝে তাদের সংসারে এক ছেলে ও এক মেয়ে জন্ম নেয়। শুক্রবার রাত আনুমানিক দেড়টার দিকে ওড়না পেঁচিয়ে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছে বলে দাবি করেন নিলির স্বামী মনিরুল ইসলাম রনি। শুক্রবার সকালে লাশ উদ্ধারের জন্য পুলিশ ঘটনাস্থলে আসছে এমন সংবাদ পেয়ে কিছু সময়ের জন্য হঠাৎ করে রনি উপস্থিত শত মানুষের চোখের আড়াল হয়ে যায়। কিন্তু পুলিশ মোবাইল ফোনে রনিকে লাশের কাছে আসতে বললে অনেক টাল-বাহানার পর ওই গ্রামের কতিপয় মোড়লের পরামর্শে ঘটনাস্থলে রনি এসেই নাটকীয়ভাবে হাউমাউ করে কেন্দে উঠে বর্ণনা দেন তার স্ত্রী নিজের ওড়না গলায় পিঁচিয়ে ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছে। তবে রনি দাবি করেন, রাতে খাবার শেষে বিশেষ কাজে তিনি বাড়ির বাইরে গিয়েছিলেন। রাত আনুমানিক দেড়টার দিকে বাড়িতে ফিরলে নিলির ঝুলন্ত দেহ দেখে রনি নিজেই নামিয়ে রেখে পরিবারের লোকজনকে ডেকে নিয়ে আসেন।
এ বিষয়ে রাণীনগর থানার অফিসার ইনচার্জ মোস্তাফিজুর রহমান জানান, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে লাশ দেখে আমার সন্দেহ হওয়ায় ময়নাতদন্তের জন্য নওগাঁ সদর হাসপাতালে প্রেরণ করি। তবে আমি যতটুকু জেনেছি তাদের স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে ভালো সর্ম্পক ছিলো না। মাঝে মধ্যেই রনি তার স্ত্রী নিলিকে মারপিট করতো। এটা হত্যা না আত্মহত্যা তা ময়নাতদন্ত শেষে জানা যাবে। এ ব্যাপারে রাণীনগর থানায় নিলির মামা উপজেলার হরিশপুর গ্রামের ছহির উদ্দিন বাদী হয়ে একটি ইউডি মামলা দায়ের করেছেন।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ