রাণীনগরে রাস্তার দু’পাশে পুকুর খননের মাটি, জলাবদ্ধতার মুখে গ্রামবাসী

আপডেট: জুলাই ১৯, ২০২০, ১:৪১ অপরাহ্ণ

নওগাঁ প্রতিনিধি :


নওগাঁর রাণীনগরে গ্রামবাসীর চলাচলের জন্য একমাত্র রাস্তার পাশে পুকুর খনন করে দুই পাশে মাটি ভরাট করে পানি নিষ্কাশনের পথ বন্ধ করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। যার কারণে চরম দুর্ভোগে পরেছে উপজেলার পৌওতাপাড়া গ্রামের বাসিন্দারা। গবাদি পশু নিয়ে চলাচল করাসহ চরম বেকায়দায় পড়েছেন ওই গ্রামের মানুষ।
জানা গেছে, উপজেলার ৫ নং বড়গাছা ইউনিয়নের পৌওতাপাড়া গ্রামের মধ্যে দিয়ে চলাচলের জন্য একমাত্র জনগুরুত্বপূর্ণ রাস্তা এটি। যে রাস্তা দিয়েই গ্রামের ভিতরে প্রবেশ ও গ্রামের উত্তর দিকে মাঠে চলাচল করেন গ্রামবাসী। কিন্তু রাস্তার পাশেই জমির শ্রেণি পরিবর্তন না করে ওই গ্রামের প্রভাবশালী শুকবর হাজীর ছেলে বুলবুল এবং মৃত সাকিমের স্ত্রী পুকুর খনন করে জোরপূর্বক রাস্তার দুই পাশে মাটি ভরাট করে রেখেছে। এছাড়াও গ্রামের মধ্যকার পানি নিষ্কাশনের পাইপগুলো তুলে ফেলায় পানি নিষ্কাশনের পথ বন্ধ করার কারণে একটু বৃষ্টিতেই হাঁটু পানি জমে সৃষ্টি হয় কৃত্রিম জলাবদ্ধতার। ফলে গ্রামবাসীদের চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। মানুষ চলাচল ছাড়াও গবাদি পশু নিয়ে চরম বিপাকে পরেছেন তারা। এছাড়াও শিশু ও বয়স্ক লোকদের নিয়ে চরম শংকায় রয়েছেন রাস্তার পাশের বাড়িওয়ালারা।
ওই গ্রামের মুসলিম উদ্দিন, আলাউদ্দিন, সাহাদ, আরিফসহ অনেকেই জানান, রাস্তায় পুকুর খননের মাটি রাখায় একটু বৃষ্টিতেই হাঁটু পানি জমে গিয়ে ঘরের মধ্যেও পানি চলে আসছে। আমরা পরিবারের লোকজন ও গবাদি পশু নিয়ে চরম বিপদের মধ্যে বসবাস করছি।
পুকুর খননকারী বুলবুল জানান, ওই বাড়িগুলো নিচু জায়গায় যার জন্য ওখানে পানি জমে যায়। এতে আমার কিছু করার নেই।
বড়গাছা ইউপি চেয়ারম্যান সফিউল আলম বলেন, বিষয়টি আমার জানা ছিল না। যদি কেউ লিখিত ভাবে অভিযোগ দেয় তবে আমি বিষয়টি তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা গ্রহণ করবো।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ