রানওয়েতে চাকা ফেটে গেল নভোএয়ার প্লেনের, অল্পের জন্য ৩৩ যাত্রী রক্ষা পেল

আপডেট: নভেম্বর ১৮, ২০১৯, ১:০৬ পূর্বাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক


বেসরকারি বিমান পরিবহন সংস্থা নভোএয়ার এয়ারলাইনসের একটি বিমান অবতরণের সময় চাকা ফেটে গেছে। এসময় বিমানে থাকা ৩৩ যাত্রী অল্পের জন্য রক্ষা পেয়েছে। পরে ঢাকা থেকে টেকনিশিয়ান নিয়ে এসে দুর্ঘটনা কবলিত বিমানটির চাকা পরিবর্তন করে নিয়ে যাওয়া হয়।
ঘটনাটি গতকাল রোববার সকাল ৯টা ৪৫ মিনিটে শাহ মখদুম বিমানবন্দরে ঘটে। এর আগে সকাল ৯টায় শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে শাহ মখদুম বিমানবন্দরে উদ্দেশে উড্ডয়ন করে নভোএয়ারের এই বিমানটি। শাহ মখদুম বিমানবন্দরে অবতরণ করার সময় তার পিছনের বাম দিকের একটি চাকা বিকট শব্দে ফেটে যায়। পরে ঢাকায় খবর দেয়া হলে সেখান থেকে নভোএয়ারের প্রকৌশলী ও টেকনিশিয়ানরা এসে বিমানের চাকার পরির্বতন করে দেন।
আর নভোএয়ারের এই বিমানটি দিয়ে যে ৬৮ জন যাত্রীর ফিরতি পথে ঢাকায় ফেরার কথা ছিলো তাদের ঢাকা থেকে ফাঁকা একটি নভোএয়ার পাঠিয়ে রাজশাহী থেকে যাত্রীদের ঢাকায় নিয়ে যাওয়া হয়েছে।
সিভিল এভিয়েশনের দায়িত্বশীল এক কর্মকর্তা জানান, শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে সকাল ৯টা ৫ মিনিটে রাজশাহীর উদ্দেশে ফ্লাইটটি ছেড়ে আসে। সকাল ৯টা ৪৫ মিনিটে শাহ মখদুম বিমানবন্দরে রাজশাহীতে অবতরণ করার পর পিছনের বাম দিকে একটি চাকা ফেটে যায়। পরে যাত্রীদের নিরাপদে বিমান থেকে নামিয়ে আনা হয়।
তবে এই বিষয়ে বিমানবন্দদেরর কোনো কর্মকর্তা মুখ খুলতে রাজি হয়নি। শাহমখদুম বিমানবন্দরের ব্যবস্থাপক সেফাতুর রহমান বলেন, আমরা বিষয়টি শুনেছি। যারা আমাদের স্টাফ রয়েছেন তারাও শুনেছেন। কারণ রানওয়েতে আমাদেরও যাওয়ার নিয়ম নেই।
যাত্রীরা জানান, দুর্ঘটনা থেকে অল্পের জন্য রক্ষা পেয়েছে নভোএয়ারের ফ্লাইটটি। চাকা ফেটে যাওয়ার খবরে রুদ্ধশ্বাস পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়। তবে শেষ পর্যন্ত নিরাপদে অবতরণে সক্ষম হয় বিমানটি।
নভোএয়ারের সিনিয়র ম্যানেজার মাহফুজুল আলম ফোনে বলেন, বিমানটি অবতরণ করার পর রানওয়ে দিয়ে তার গন্তব্যে পৌঁছার পর পিছনের বাম পাশের একটি চাকা পাংচার হয়ে যায়। যাত্রীদের কোনো ক্ষতি হয়নি। ওই বিমান দিয়ে ফিরতি পথে রাজশাহী থেকে ঢাকায় যে ৬৮ জন যাত্রীর ফেরার কথা ছিলো পরে ঢাকা থেকে একটি উড়োজাহাজ পাঠিয়ে ওইসব যাত্রীদের রাজশাহী থেকে ঢাকা নিয়ে যাওয়া হয়েছে।