রাবিতে বিশ্ব ফার্মাসিস্ট দিবস উদযাপন

আপডেট: সেপ্টেম্বর ২৫, ২০২২, ১০:৪০ অপরাহ্ণ

রাবি প্রতিবেদক:


দিনব্যাপী নানা কর্মসূচির মধ্য দিয়ে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে (রাবি) ‘বিশ্ব ফার্মাসিস্ট দিবস-২০২২’ উদযাপন করা হয়েছে।
রোববার (২৫ সেপ্টেম্বর) সকালে বিশ্ববিদ্যালয়ের ড. এম এ ওয়াজেদ মিয়া অ্যাকাডেমিক ভবনের সামনে বেলুন উড়িয়ে দিবসটির উদ্বোধন করেন ভিসি অধ্যাপক গোলাম সাব্বির সাত্তার।

বিশ্ববিদ্যালয়ের ফার্মেসী বিভাগের সংগঠন ‘রাজশাহী ইউনিভার্সিটি ফার্মেসী অ্যাসোসিয়েশন (রুপা)’ আয়োজিত দিনব্যাপী এই আয়োজনের শুরুতে এক সংক্ষিপ্ত সমাবেশের আয়োজন করা হয়।

সমাবেশে ভিসি অধ্যাপক গোলাম সাব্বির সাত্তার বলেন, ওষুধ আমাদের প্রাণ রক্ষাকারী হিসেবে কাজ করে। আর এসব ওষুধ উৎপাদন, বিপনন এবং গুণগত মান নিয়ন্ত্রণ করে ফার্মাসিস্টরা। কাজেই ওষুধের যে প্রায়োগিক বিষয়, এটা আমার মনে হয় ফার্মাসিস্টদের চেয়ে অন্য কেউ বেশি ভালো জানেনা।

ভিসি আরো বলেন, আমি মনে করি আমাদের দেশে এখনও ডাক্তার এবং ফার্মাসিস্টদের মাঝে কিছুটা দুরত্ব রয়ে গেছে। আমার মতে যে সকল ডাক্তাররা প্রাকটিস করেন তাদের সঙ্গে একজন ফার্মাসিস্ট অবশ্যই থাকা প্রয়োজন। এটা করলে ওষুধের প্রায়োগিক দিকটা খুব সাফল্য লাভ করবে।

রুপা’র ছাত্র উপদেষ্টা ও ফার্মেসী বিভাগের অধ্যাপক মোসা. শাহনাজ পারভীন অনুষ্ঠানের সঞ্চালনা করেন এবং বিভাগের সভাপতি অধ্যাপক আজিজ আব্দুর রহমান সভাপতিত্ব করেন। অনুষ্ঠানে বিশ্ববিদ্যালয়ের জনসংযোগ দফরের প্রশাসক অধ্যাপক প্রদীপ কুমার পান্ডেসহ বিভাগের শতাধিক শিক্ষক-শিক্ষার্থী উপস্থিত ছিলেন। উদ্বোধনী শেষে ড. এম এ ওয়াজেদ মিয়া অ্যাকাডেমিক ভবনের সামনে থেকে একটি র‌্যালি বের করা হয়। র‌্যালিটি বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান সড়কগুলো প্রদক্ষিণ শেষে আমতলায় দিবসটি উপলক্ষে বিনামূল্যে রক্তের গ্রুপ নির্ণয় ও রক্তচাপ পরিমাপ কর্মসূচির উদ্বোধন করেন ভিসি।

এছাড়াও, দিবসটি উপলক্ষে রাজশাহী ইউনিভার্সিটি ফার্মেসী এসোসিয়েশনের হেলথ ক্যাম্পেইন, ফার্মেসি পেশা সম্পর্কে অভিহিত করতে লিফলেট বিতরণ ও ফার্মা অলিম্পিয়াড এর আয়োজন করে।

প্রসঙ্গত, ২০১০ সাল থেকে দিবসটি পালন শুরু হলেও বাংলাদেশে দিবস পালন শুরু হয় ২০১৪ সালে। ওষুধের আবিষ্কার, উৎপাদন, মান নিয়ন্ত্রণ, সংরক্ষণ, বিপনন এবং সঠিক মাত্রায় সঠিক ওষুধ রোগীর হাতে যিনি তুলে দেওয়ার কাজে নিয়োজিত তিনি হচ্ছেন ফার্মাসিস্ট। প্রতি বছর ২৫ সেপ্টেম্বর এই পেশার গুরুত্ব ও তাদের সন্মান জানানোর জন্য দিবসটি পালন করা হয়।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ