রাবিতে ভর্তিযুদ্ধ শুরু ।। ভর্তিচ্ছুদের পদচারণায় মুখরিত ক্যাম্পাস

আপডেট: অক্টোবর ২৪, ২০১৬, ১১:৫১ অপরাহ্ণ

রাবি প্রতিবেদক
ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থী ও অবিভাবকদের পদচারণায় মুখরিত হয়ে উঠেছে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস। উৎসবমুখর পরিবেশের মধ্য দিয়ে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ২০১৬-২০১৭ শিক্ষাবর্ষের ¯œাতক (সম্মান) প্রথম বর্ষের ভর্তি পরীক্ষা শুরু হয়েছে। গতকাল সোমবার ‘বি’ ইউনিট (আইন অনুষদ) ও ‘ডি’ ইউনিটের (ব্যবসায় শিক্ষা অনুষদ) পরীক্ষার মাধ্যমে প্রথম বর্ষের ভর্তি পরীক্ষা শুরু হয়।
বিশ্ববিদ্যালয় সূত্রে জানা গেছে, পরীক্ষার প্রথম দিন গতকাল সোমবার সকাল ৯টা থেকে ১০টা পর্যন্ত ‘বি’ ইউনিটের বিজোড় রোল নম্বরধারীদের ও ১১টা থেকে ১২টা পর্যন্ত জোড় রোল নম্বরধারীদের পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। এরপর দুপুর ১টা থেকে ২টা পর্যন্ত ‘ডি’ ইউনিটের বিজোড় রোল নম্বরধারীদের ও সাড়ে ৩টা থেকে সাড়ে ৪টা পর্যন্ত জোড় রোল নম্বরধারী এবং সকল অ-বাণিজ্য শিক্ষার্থীদের পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। ‘বি’ ইউনিটের ২০০টি আসনের বিপরীতে আবেদন করেছেন ১৭ হাজার ৯৭২ জন এবং ‘ডি’ ইউনিটের ৫২০টি আসনের বিপরীতে আবেদন করেছেন ১৭ হাজার ৫২৮ জন ভর্তিচ্ছু।
পরীক্ষা শুরু হবার পরপরই বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক মুহম্মদ মিজানউদ্দিন, উপউপাচার্য অধ্যাপক চৌধুরী সারওয়ার জাহান, রেজিস্ট্রার অধ্যাপক এন্তাজুল হক, কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক সায়েন উদ্দিন আহমেদসহ প্রশাসনের উর্ধ্বতন কর্মকর্তবৃন্দ পরীক্ষার বিভিন্ন হল পরিদর্শন করেন।

RU-Pic-1-24.10.2016
পরিদর্শন শেষে উপাচার্য অধ্যাপক মুহম্মদ মিজানউদ্দিন বলেন, ‘ভর্তিপরীক্ষা সুষ্ঠুভাবে স¤পন্ন করতে প্রয়োজনীয় সকল ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। আশা করছি শিক্ষার্থীরা সুন্দর পরিবেশে পরীক্ষা দিতে পারবে। ভর্তিপ্রক্রিয়া যথাযথভাবে সম্পন্ন করতে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তির সম্ভব সর্বোচ্চ ব্যবহার করা হয়েছে। এতে করে ভুয়া পরীক্ষার্থী ও জালিয়াতি রোধ সম্ভব হবে।’ যদি ভুয়া শিক্ষার্থী কিংবা ভর্তি জালিয়াতির সাথে জড়িত কাউকে পাওয়া যায়, তাকে মোবাইল কোর্টের মাধ্যমে সাথে সাথেই শাস্তি প্রদান করা হবে বলেও জানান তিনি।
এদিকে ভর্তি পরীক্ষা উপলক্ষে উৎসবমুখর পরিবেশ লক্ষ্য করা গেছে ক্যাম্পাসে। ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থী এবং অবিভাবকদের পদচারণায় মুখরিত ছিলো পুরো ক্যাম্পাস। ময়মনসিংহ থেকে পরীক্ষা দিতে আসা আশিকুর রহমান বলেন, ‘সুষ্ঠু পরিবেশে পরীক্ষা দিতে পেরে ভালো লাগছে। আশা করি কোন জালিয়াতি হবে না। মেধাবীরাই বিশ্ববিদ্যালয়ে জায়গা করে নেবে।’
বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অধ্যাপক মুজিবুল হক আজাদ খান জানান, ক্যাম্পাসের সার্বিক নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিশ্চিত করতে এবং যে কোন ধরনের অপ্রীতিকর পরিস্থিতির মোকাবিলায় পুলিশ প্রশাসনের পাশাপাশি বিএনসিসি, রোভার স্কাউট, বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টরিয়াল বডির সদস্য এবং গোয়েন্দা পুলিশ কাজ করছে।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ