রাবিতে রোকেয়া স্মৃতিস্তম্ভ নির্মাণের দাবি

আপডেট: ডিসেম্বর ৯, ২০১৬, ১১:৫২ অপরাহ্ণ

রাবি প্রতিবেদক



মহিয়সী নারী বেগম রোকেয়ার স্মৃতির প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের বেগম রোকেয়া হলের সামনে রোকেয়া স্মৃতিস্বম্ভ নির্মাণের দাবি জানিয়েছেন শিক্ষার্থীরা। গতকাল শুক্রবার দুপুরে বেগম রোকেয়া দিবস উপলক্ষে ক্যাম্পাসে আয়োজিত সমাবেশ থেকে এ দাবি জানানো হয়। ‘অতএব জাগো, জাগো গো ভগিনী জাগো’ এই স্লোগানকে সামনে রেখে শুক্রবার রাবি ড্রামা অ্যাসোসিয়েশন (রুডা) ও তীর্থক নাটক’র যৌথ উদ্যোগে দিবসটি পালন করা হয়।
দিবসটি পালন উপলক্ষে গতকাল বেলা ১২টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের রাকসু ভবনের সামনে থেকে র‌্যালি বের করা হয়। র‌্যালিটি বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিন করে বেগম রোকেয়া হলের সামনে গিয়ে শেষ হয়। এসময় হল গেটে বেগম রোকেয়ার প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ করা হয়।
পরে সেখানে সংক্ষিপ্ত সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। সমাবেশে বক্তারা বলেন, উনবিংশ শতকে নারীদেরকে ভোগ্যপণ্য হিসাবে বিবেচনা করা হতো। পুরুষশাসিত সমাজে নারীরা চার দেয়ালের মাঝে বন্দি ছিল। শিক্ষা-দীক্ষায় নারীদের কোন অংশগ্রহণ ছিল না। বেগম রোকেয়া সেখান থেকে বাংলার মুসলিম নারীদের সমঅধিকার প্রতিষ্ঠা ও নারী মুক্তির আন্দোলনের সূচনা করেন।
বক্তারা বলেন, আজ বাংলাদেশে বিভিন্ন ক্ষেত্রে নারী নেতৃত্ব এসেছে ঠিকই, কিন্তু নারীরা পুরোপুরি মুক্ত হতে পারেনি। আজও নারীরা নানাভাবে শোষনের শিকার। বক্তারা নারীদেরকে বেগম রোকেয়ার চেতনাকে ধারণ করে তাদের অধিকার আদায়ে সচেতন হওয়ার জন্য আহ্বান জানান।
সমাবেশ থেকে বক্তারা বেগম রোকেয়া হলের সামনে তার একটি স্মৃতিস্তম্ভ নির্মাণ করার জন্য প্রশাসনের কাছে জোর দাবি জানান। সেই সাথে প্রতি বছর প্রশাসনিকভাবে রোকেয়া দিবসটি পালনেরও আহ্বান জানান তারা।
রুডার সভাপতি সুব্রত কুমারের সভাপতিত্বে সমাবেশে বক্তব্য দেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাজকর্ম বিভাগের সভাপতি অধ্যাপক ছাদেকুল আরেফিন মাতিন, রাবি শাখা উদীচী’র সভাপতি অধ্যাপক গোলাম সারওয়ার, রাবি কেন্দ্রীয় সাংস্কৃতিক জো্েটর সভাপতি আব্দুল মজিদ অন্তর, তীর্থক নাটকের সদস্য শরীফ মোস্তফা হীরা। সঞ্চালনা করেন রুডার সাধারণ সম্পাদক আকাশ কুমার।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ