রাবিতে শিবির সন্দেহে দুই শিক্ষার্থীকে পুলিশে সোপর্দ

আপডেট: আগস্ট ২১, ২০১৭, ১২:৫০ পূর্বাহ্ণ

রাবি প্রতিবেদক


রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে (রাবি) শিবির সন্দেহে দুই শিক্ষার্থীকে আটক করে বেধড়ক পিটিয়ে পুলিশে দিয়েছে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা। গতকাল রোববার সন্ধ্যা ৭টার দিকে মতিহার হলের ৩০৩ নম্বর রুম থেকে তাদের আটক করা হয়। আটককৃতরা হলেন, সমাজকর্ম বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী রুহুল আমিন ও দর্শন বিভাগের মাস্টার্সের শিক্ষার্থী আব্দুল আজিজ। চিকিৎসার জন্য তাদের রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করে পুলিশ। তাদের কাছে শিবিরের নথি পাওয়া গেছে বলে দাবি করেছে ছাত্রলীগ। তবে তারা বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রশিবিরের কর্মী নয় বলে সংবাদ বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে দাবি করেছে বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রশিবির।
হল সূত্র জানায়, সন্ধ্যা পৌনে ৭টার দিকে হল ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা হলের ৩০৩ নম্বর রুমে তল্লাশি চালায়। এসময় রুহুল আমিন ও আজিজকে সন্দেহ হওয়ায় বেধড়ক মারধর করা হয়। এতে তাদের হাত ও পা গুরতর আহত হয়। এরপর তাদের পুলিশে সোপর্দ করা হয়।
রাবি ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক ফয়সাল আহমেদ রুনু বলেন, ‘সন্ধ্যার দিকে হলের সামনে রুহুল আমিন ঘোরাফেরা করছিল। এসময় তার আচরণে সন্দেহ হওয়ায় তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করি। পরে তার দেয়া তথ্যে মতিহার হল থেকে আজিককে আটক করে পুলিশে দেয়া হয়। তাদের কাছে শিবিরের বিভিন্ন নথি পাওয়া গেছে।’
তবে বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রশিবিরের প্রচার সম্পাদক সাদিক বিল্লাহ প্রেরিত সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে আটক দুজন শিবিরকর্মী নয় বলে দাবি করেন বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রশিবিরের সভাপতি হাসান তারিক ও লাবিব আব্দুল্লাহ।
এ বিষয়ে মতিহার থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি তদন্ত) মাহবুব হাসান বলেন, ‘ওই দুজনকে আপাতত রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। পরে যাচাই-বাছাই করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।’

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ