রাবিতে সাংবাদিক মারধরকারীদের গ্রেফতার দাবি || ছাত্রলীগের নেতাদের বিরুদ্ধে ভুক্তভোগী ও দেশ ট্রাভেলসের মামলা, মানববন্ধন

আপডেট: জুলাই ১২, ২০১৭, ১:৩৪ পূর্বাহ্ণ

রাবি প্রতিবেদক


রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে কর্মরত ডেইলি স্টারের সাংবাদিককে মারধরের ঘটনায় দায়েরকৃত মামলায় আসামিদের গ্রেফতারে ২৪ ঘণ্টার আল্টিমেটাম দিয়েছে সাংবাদিক নেতারা। গতকাল মঙ্গলবার দুপুরে বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় গ্রন্থাগারের সামনে আয়োজিত মানববন্ধনে তারা এ দাবি জানায়। এদিকে সাংবাদিক মারধরে জড়িত বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগ নেতাদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেছে আহত সাংবাদিক আরাফাত রহমান। বাস ভাঙচুরের অভিযোগে ছাত্রলীগ নেতাদের বিরুদ্ধে পৃথক আরেকটি মামলা দায়ের করেছে বাস কোম্পানি দেশ ট্রাভেলস।
সাংবাদিক জড়িতদের গ্রেফতার দাবিতে আয়োজিত মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, ‘সাংবাদিককে মারধরের ঘটনায় দায়েরকৃত মামলা যেন কোনও রাজনৈতিক প্রভাব বা অন্য কোনোভাবে প্রভাবিত না হয়। পুলিশ যেহেতু মামলা গ্রহণ করেছে, তাই মামলার আসামিদের ২৪ ঘণ্টার মধ্যে গ্রেফতার করতে করতে হবে। কারণ, দেশে প্রচলিত আইনে আমরা এ ঘটনার বিচার চাই।’
বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনকে ব্যবস্থা গ্রহণের দাবি জানিয়ে বক্তরা বলেন, ‘আরাফাত সাংবাদিকের পাশাপাশি একজন শিক্ষার্থী। বিশ্ববিদ্যালয়ের একজন শিক্ষার্থীর ওপর হামলার সুষ্ঠু তদন্ত সাপেক্ষে বিচারের দায়িত্বও বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের ওপর বর্তায়।’ এসময় বক্তারা জড়িতদের বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বহিষ্কারের দাবি জানায়।
মানববন্ধনে রাজশাহী ও রাবিতে কর্মরত বিভিন্ন গণমাধ্যমের সাংবাদিকসহ বিভিন্ন বিভাগের শিক্ষার্থীরা অংশ নেয়। এতে বাংলাদেশর ওয়াকার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক ফজলে হোসেন বাদশা, রাবি কেন্দ্রীয় সাংস্কৃতিক জোট, রাবি ছাত্র ফেডারেশন, ঝিনাইদহ জেলা সমিতি সংহতি জানায়।
রাবি সাংবাদিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক মুস্তাফিজ রনি সঞ্চালনায় বক্তব্য দেন দৈনিক সমকালের রাজশাহী ব্যুরো প্রধান সৌরভ হাবীব, যমুনা টিভির ক্যামেরাম্যান জাভেদ অপু, রাবি সাংবাদিক সমিতির সভাপতি হাসান আদিব, সহ-সভাপতি মোস্তাফিজ মিশু, রাবি রিপোর্টার্স ইউনিটির সভাপতি কায়কোবাদ খান, সাধারণ সম্পাদক হুসাইন মিঠু, রাবি প্রেসক্লাবের সভাপতি তাসলিমুল আলম তৌহিদ, সাধারণ সম্পাদক ইমদাদুল হক মিলন, কেন্দ্রীয় সাংস্কৃতিক জোটের সভাপতি আব্দুল মজিদ অন্তর প্রমুখ।
মামলা দায়ের: এদিকে এ ঘটনায় নগরীর মতিহার থানায় সোমবার রাত সাড়ে ১১টার দিকে চার ছাত্রলীগ নেতার নাম উল্লেখসহ ৮/১০ জনকে অজ্ঞাত আসামি করে মামলা দায়ের করা হয়েছে। ভুক্তভোগী সাংবাদিক আরাফাত রহমান বাদী হয়ে মামলাটি দায়ের করেন। মামলার আসামিরা হলেন- রাবি ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি আহমেদ সজীব (ফলিত গণিত, ১ম বর্ষ), সাংগঠনিক সম্পাদক আবিদ আল আহসান লাবন (আইন, ৩য় বর্ষ), আইন বিষয়ক সম্পাদক সাইফুল ইসলাম বিজয় (আইন, ৩য় বর্ষ), তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক মাহমুদুর রহমান কানন (ফলিত গণিত, ৩য় বর্ষ)। মতিহার থানার ওসি হুমায়ন কবীর জানান, ‘দন্ডবিধির ৩০৭, ৩২৩ ও ৩২৫ ধারায় মামলা রেকর্ড করা হয়েছে। দ্রুত এ বিষয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।’ এছাড়া ছাত্রলীগ নেতা সাইফুল ইসলাম বিজয়সহ অজ্ঞাতনামা ৮-১০ জনকে আসামী করে বাস ভাঙচুরের অভিযোগে এক লাখ টাকা ক্ষতিপূরণ দাবি করে মতিহার থানায় মামলা দায়ের করেছে দেশ ট্রাভেলস।
রাবি প্রশাসনকে লিখিত অভিযোগ: একই ঘটনায় বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনকে লিখিত অভিযোগ দিয়েছে ভুক্তভোগী সাংবাদিক গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী  আরাফাত রহমান। লিখিত অভিযোগে ৭ ছাত্রলীগ নেতাকর্মীর নাম উল্লেখ করা হয়েছে। মামলায় উল্লেখিত চার জন এবং অন্য তিন জনের বিরুদ্ধে অভিযোগ করা হয়েছে। অন্য তিন জন হলেন- ইমতিয়াজ আহমেদ (ইসলামের ইতিহাস, ৩য় বর্ষ), নারায়ণ চন্দ্র রায় (ফলিত গণিত, ৩য় বর্ষ) সানাউর রহমান সানী (ভাষা, ২য় বর্ষ)।
প্রসঙ্গত, সোমবার (১০ জুলাই) বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান ফটকে দেশ ট্রাভেলস-এর বাস ভাঙচুর করছিলেন বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি আহমেদ সজীব, সাংগঠনিক সম্পাদক আবিদ আল হাসান লাবন, আইন বিষয়ক সম্পাদক সাইফুল ইসলাম বিজয়, তথ্য ও গবেষণা বিষয়ক সম্পাদক কাননসহ  কয়েকজন নেতাকর্মী। ওই ঘটনার ছবি তোলায় সাংবাদিক আরাফাতকে বেধড়ক মারধর করে তারা। এ ঘটনায় নগরীর মতিহার থানায় সাংবাদিক আরাফাত বাদী হয়ে চার ছাত্রলীগ নেতার নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাতনামা ৮-১০ জনকে আসামি করে মামলা দায়ের করেছেন।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ