রাবির বিদায়ী উপাচার্যের পরিবারের পাঁচ সদস্যকে ব্যাংক হিসাব তলব

আপডেট: মে ২৮, ২০২১, ৮:৫৪ অপরাহ্ণ

রাবি প্রতিবেদক:


রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের সদ্য বিদায়ী উপাচার্য আবদুস সোবহান, তার ছেলে ও মেয়ে, জামাতাসহ পরিবারের পাঁচ সদস্যের ব্যাংক হিসাব তলব করে তাদের লেনদেনের তথ্য সরবরাহে বিভিন্ন ব্যাংকে চিঠি পাঠিয়েছে জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর)। চিঠি পাওয়ার সাত দিনের মধ্যে এই পাঁচ ব্যক্তির ব্যাংকের যাবতীয় তথ্য সরবরাহ করতে বলা হয়েছে।
চিঠিতে বলা হয়েছে, উপাচার্যসহ পরিবারের পাঁচ সদস্যের একক বা যৌথ নামে অথবা তাদের মালিকানাধীন ব্যবসাপ্রতিষ্ঠানের (ব্যক্তি মালিকানাধীন ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান) নামে ব্যাংকে/প্রতিষ্ঠানে পরিচালিত/রক্ষিত যেকোনো মেয়াদি আমানত হিসাব (এফডিআর, এসডিটি হিসাবসহ যেকোনো ধরনের বা নামের হিসাব), যেকোনো ধরনের বা মেয়াদের সঞ্চয়ী হিসাব, চলতি হিসাব, ঋণ হিসাব, ক্রেডিট কার্ড, লকার বা ভল্ট, সঞ্চয়পত্র , ইনভেস্টমেন্ট স্কিম বা ডিপোজিট স্কিম বা অন্য যেকোনো ধরনের বা নামের হিসাব পরিচালিত বা রক্ষিত হয়ে থাকলে ১ জুনের মধ্যে এনবিআরে পাঠাতে বলা হয়েছে। আয়কর অধ্যাদেশ, ১৯৮৪ এর ১১৩ (এ) ধারায় প্রদত্ত ক্ষমতাবলে এ তথ্য চাওয়া হয়েছে বলে ওই চিঠিতে উল্লেখ করা হয়েছে। এনবিআরের চিঠিতে ব্যাংকগুলোকে ২০১৪ সালের ১ জুলাই থেকে হালনাগাদ তথ্য সরবরাহ করতে বলা হয়েছে। তবে উল্লিখিত সময়ের আগেও যদি কোনো হিসাব থাকে, তা–ও সরবরাহ করার নির্দেশ দেয়া হয়েছে।
চিঠিতে মোট পাঁচজনের ব্যাংক হিসাব তলবের কথা বলা হয়েছে। তারা হলেন সদ্য বিদায়ী উপাচার্য এম আবদুস সোবহান, তার স্ত্রী মনোয়ারা সোবহান, ছেলে মুশফিক সোবহান, মেয়ে সানজানা সোবহান ও জামাতা এ টি এম শাহেদ পারভেজ। এর মধ্যে মেয়ে সানজানা সোবহান বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্যুরিজম অ্যান্ড হসপিটালিটি ম্যানেজমেন্ট বিভাগের প্রভাষক ও জামাতা এটিএম শাহেদ পারভেজ বিশ্ববিদ্যালয়ের ইনস্টিটিউট অব বিজনেস অ্যাডমিনিস্ট্রেশনের (আইবিএ) প্রভাষক।