রাবির ভর্তি পরীক্ষা শেষ হলো

আপডেট: অক্টোবর ৬, ২০২১, ৯:৫৩ অপরাহ্ণ


রাবি প্রতিবেদক:


রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ২০২০-২০২১ শিক্ষাবর্ষে স্নাতক ও স্নাতক (সম্মান) শ্রেণির ভর্তি পরীক্ষা শেষ হয়েছে। তিন দিনব্যাপী এই পরীক্ষার শেষ দিনে বুধবার ইউনিট-বি (বাণিজ্য) গ্রুপ-১ (সকাল ৯:৩০ থেকে ১০:৩০), গ্রুপ-২ বেলা ১২টা থেকে ১টা) ও গ্রুপ-৩ (বেলা ৩টা থেকে ৪টা) এর পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। গ্রুপ-১, গ্রুপ-২ ও গ্রুপ-৩ এ চূড়ান্ত আবেদনকারীর সংখ্যা ছিল যথাক্রমে ১৬ হাজার ২৩৮, ১৬ হাজার ২৩৭ ও ৭ হাজার ৪২০ জন। পরীক্ষাসমূহে উপস্থিতির হার ছিল প্রায় ৭৯ শতাংশ। এদিন উপাচার্য প্রফেসর গোলাম সাব্বির সাত্তার, উপ-উপাচার্য প্রফেসর চৌধুরী মো. জাকারিয়া ও উপ-উপাচার্য প্রফেসর মো. সুলতান-উল-ইসলাম পরীক্ষা কেন্দ্রসমূহ পরিদর্শন করেন। এসময় রেজিস্ট্রার প্রফেসর মো. আবদুস সালাম, ভারপ্রাপ্ত প্রক্টর মো. লিয়াকত আলী, জনসংযোগ দপ্তরের প্রশাসক ড. মো. আজিজুর রহমানসহ সংশ্লিষ্ট অনুষদ অধিকর্তা ও শিক্ষকগণ উপস্থিত ছিলেন।

প্রসঙ্গত, এ বছরের ভর্তি পরীক্ষায় তিন ইউনিট মিলিয়ে মোট ১ লক্ষ ২৭ হাজার ৬৪৭ জন ভর্তিচ্ছু চূড়ান্ত আবেদন করে। পরীক্ষার সি ও এ ইউনিটে উপস্থিতির হার ছিল যথাক্রমে প্রায় ৭৬ ও ৮৪ শতাংশ।

উল্লেখ্য যে, ভর্তি পরীক্ষা ৪ অক্টোবর সি ইউনিটের পরীক্ষা দিয়ে শুরু হয়। ১০ অক্টোবর থেকে পরীক্ষার ফল প্রকাশ এবং ২৫ অক্টোবর থেকে ভর্তি শুরু হবে। ক্লাস শুরু সম্ভাব্য তারিখ ১ ডিসেম্বর ২০২১।

ভর্তি সংক্রান্ত বিষয়ে তথ্যের জন্য সংশ্লিষ্ট সকলকে বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়েবসাইট admission.ru.ac.bd-তে নজর রাখার জন্য পরামর্শ দেয়া যাচ্ছে।

রাবির ভর্তি পরীক্ষা সম্পন্ন : উপাচার্যের ধন্যবাদ জ্ঞাপন
রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ২০২০-২০২১ শিক্ষাবর্ষে স্নাতক ও স্নাতক (সম্মান) শ্রেণির ভর্তি পরীক্ষা বুধবার শেষ হয়েছে। এই পরীক্ষা সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন করতে সহযোগিতা প্রদানের জন্য বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর গোলাম সাব্বির সাত্তার বিশ্ববিদ্যালয়ের সকল শিক্ষক, কর্মকর্তা, কর্মচারী, ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থী ও তাদের অভিভাবক, রাবি শিক্ষক সমিতি, রাবি প্রক্টরিয়াল বডি, রাজশাহী সিটি কর্পোরেশন কর্তৃপক্ষ, জেলা প্রশাসন, বিভিন্ন আইন-শৃঙ্খলা ও নিরাপত্তা রক্ষাকারী সংস্থা, গণমাধ্যম ও এলাকাবাসীসহ সংশ্লিষ্ট সকলকে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন। তিনি বিশেষ করে রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের মেয়র, জেলা প্রশাসক ও রাজশাহী মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনারের ব্যক্তিগত উদ্যোগের জন্যও তাদের ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানান। বিশ্ববিদ্যালয়ের কর্মকান্ডে ভবিষ্যতেও অনুরূপ সহযোগিতা পাওয়া যাবে বলে তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ এবার ক্যাম্পাসের ৬টি ছাত্রী হলে ভর্তিচ্ছু ছাত্রীদের আবাসনের ব্যবস্থা করে। এছাড়া পুরুষ ও মহিলা অভিভাবকদের জন্য যথাক্রমে পুরুষ ও মহিলা জিমনেসিয়ামে থাকার ব্যবস্থাও করে। পরীক্ষা চলাকালে অভিভাবকদের বসার জন্য ক্যাম্পাসের বিভিন্ন স্থানে ১০টি প্যান্ডেলের ব্যবস্থা করা হয়। পরীক্ষা চলাকালে সঠিক ট্রাফিক নিয়ন্ত্রণ ব্যবস্থা প্রয়োগের ফলে ক্যাম্পাসে সুশৃঙ্খল পরিবেশ বজায় রাখা সম্ভব হয়েছে। রাবি প্রক্টরিয়াল বডি, জেলা প্রশাসন, রাজশাহী মেট্রোপলিটন পুলিশ, এনএসআই, ডিজিএফআই, র‌্যাবসহ আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী সকল বাহিনীর তৎপরতার ফলে ক্যাম্পাস বা ক্যাম্পাস সংলগ্ন কোনো স্থানে অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেনি।

রাজশাহী মেট্রোপলিটন পুলিশ পর্যাপ্ত পরিমানে বিনা মূল্যে খাবার পানি বিতরণের ফলে খাবর পানির সংকট তৈরি হয়নি। এছাড়া সিটি কর্পোরেশন ও কোয়ান্টাম ফাউন্ডেশনের স্বেচ্ছাসেবক এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিচ্ছন্ন কর্মীদের দ্রুত ময়লা আবর্জনা অপসারণের ফলে ক্যাম্পাসের পরিচ্ছন্নতা রক্ষা করা সম্ভব হয়েছে। বিএনসিসি, রোভার স্কাউট গ্রুপ, রেঞ্জারস ইত্যাদি সংগঠনের তথ্য প্রদান ও দিক নির্দেশনায় সহায়তার কারণে ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের বিভিন্ন ভবনে সহজে পৌঁছাতে কোনো বিঘ্নতা তৈরি হয়নি।
পাশাপাশি ভর্তি পরীক্ষায় জালিয়াতি ও অসদুপায় অবলম্বন রোধে সংবাদপত্র ও অফিসিয়াল ফেইসবুক পেজে সতর্কীকরণ বিজ্ঞপ্তি প্রচার, আইন-শৃঙ্খলা ও নিরাপত্তা বাহিনী, বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন এবং পরীক্ষাগ্রহণ সংশ্লিষ্ট সকল শিক্ষকের তৎপরতার কারণে সকল প্রকারের জালিয়াতি ও অসদুপায় অবলম্বন রোধ করা সম্ভব হয়েছে।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ